জিয়া রায়হান-এর ব্লগ
পিকনিকের হাসি-কাঁন্না
পিকনিকের হাসি-কাঁন্না
১৯৮২ সাল। ইন্টারমিডিয়েট সেকেন্ড ইয়ারে পড়ি। কলেজের পিকনিক হয়, হবে করে করেও প্রথম বছর পেরিয়ে গেলো। আমাদের ক্লাসের বন্ধু-বান্ধবী সবার মনের মধ্যেই ইচ্ছের সাত রং পাখার প্রজাপতিটা মরতে শুরু করলো। সবায় চায় পিকনিক কিন্তু কোন শিক্ষক এগিয়ে এসে দায়িত্ব নেয় পড়ুন
স্মৃতিকথা | ১টি মন্তব্য | ৬১ বার দেখা | ৮৪১ শব্দ ১টি ছবি
শেষ পংক্তি
শেষ পংক্তি
শেষ পংক্তি উচ্চারণের আগে একবার মাছ হতে চাই।
নদীর গভীরে নদী আমি তার গভীরে যেতে চাই
বর্ষায় ভিজে শাখা প্রশাখা ছড়ায় যে কদম বৃক্ষ
আমি তার কাছে উৎসের ঠিকানায় নতজানু হতে চাই।
আমি দেবী হত্যা হুলিয়ায় ফেরারী কয়েদী আজ
তোমার কাছে আশ্রয় চাই।
শব্দরা সব পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১ বার দেখা | ৮০ শব্দ ১টি ছবি
প্রাণী প্রেমিক এই আমি ও আমার নিজস্ব অভিজ্ঞতা
প্রাণী প্রেমিক এই আমি ও আমার নিজস্ব অভিজ্ঞতা
ছোটবেলা, মানে আমার কলেজ জীবন পর্যন্ত কেটেছিলো উত্তরের এক অবহেলিত জেলা শহরে। কিছুটা গ্রামীন আবহে। সে কারণে আজকের এই মানুষটি আমি গর্বিত এবং ভীষণ অহংকারীও বটে কারণ আমি মাটির গন্ধ চিনি। নদী নালা খাল বিল, ফসলের মাঠ, ধান ফুলের পড়ুন
জীবন | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭০ বার দেখা | ৮৮৫ শব্দ ১টি ছবি
জলের কাব্য
জলের কাব্য
নারী চায় জল
জল চায় নারী, উষ্ণ কিম্বা শীতল
সমুদ্র ঝর্ণা নদী, সান বাঁধা পুকুর। যদিও জলের বুকে কাঁপে ছাঁয়া
কাঁপে চাঁদ সূর্য্য হৃদয়
তবু নারী জল চায়, ছুঁয়ে দেখে
আঙ্গুলে তোলে ঢেউ, বিষণ্ন হয়, হাসে কাঁদে। জল ভাঙ্গে-
জলের স্রোতে নারী হয় মা,
চোখে নামে জল, নারী কাঁদে
চোখে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০১ বার দেখা | ৫৬ শব্দ ১টি ছবি
কষ্ট
কষ্ট
চন্দন কাঠের নিচে শুয়ে আছি
আমার উত্তরে অগ্নি দক্ষিণে মহুয়া
আজ বুঝতে পারি
মৃত মানুষেরা কেনো এতো মাদকতা ভালোবাসে ।
গভীর রাতে হঠাৎ টের পাই কোন এক গৃহকোণে আনন্দ উৎসব
বাসর রাতে বাঁজে নিক্কন ভাঁঙ্গে কাকঁন।
পরিচিত রমনীর কন্ঠস্বর মনে হয় অন্য কারো টিয়া পাখি
আমারি হৃদপিন্ডে পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯৭ বার দেখা | ১০৩ শব্দ ১টি ছবি
চিঠি দিও, জোসনার খামে ভরে অমাবস্যার ঠিকানায়
চিঠি দিও, জোসনার খামে ভরে অমাবস্যার ঠিকানায়
সেদিনের রাত ছিলো মেঘমেদুর; বাতাসে ছিলো হংসমিথুন ছায়া,
জলকেলী শেষে উড়েছিলো সে, আকাশে। স্বপ্নরাজ্যের খোঁজে।
বাতাসে ছিলো মৃদু সোঁদা গন্ধ, বৃষ্টি ছিলোনা কোথাও,
দেখেছিলাম রুপবতী চাঁদ আর দুষ্টমেঘের প্রণয়
বড় লোভ জেগেছিলো চোর হতে, জোসনা ভেজা সেই রাতে। তুমি দেখেছিলে কি তা?
পূর্ণিমার চাঁদ যখন জোসনার পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৩৫ বার দেখা | ১৪২ শব্দ ১টি ছবি
নারী-৩
নারী-৩
নত চোখে নববধূ তুমি, জড়ানো মসলিনে
নদী তুমি, তুমি আনন্দদায়িনী, নবান্ন, নীল শাড়িতে কদমতুল্য,
তুমি নকশীকাঁথা, কলাবউ তুমি, তুমি তুলনাহীনা।
নত শিরে পূজি তোমাকে, দেবতার পুস্পার্ঘ্য তোমায় অবিরত
নীলোৎপলে সাজো তুমি, তুমি জলকন্যা; তুমি জল
আমার আকাশ নক্ষত্র নত নিঃসীম কৃষ্ণ রাত। তুচ্ছ সবি, তুচ্ছ পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৭৭ বার দেখা | ১১১ শব্দ ১টি ছবি
রাজকন্যার গল্প
রাজকন্যার গল্প
রাজ পথটা সোজা এসে মিলেছে পান্থশালা। ঘোড়ার পিঠ থেকে নেমে দাঁড়ায় হেম আর হিয়া। তখনো শহর জাগেনি। ভোরের সূর্যালোকের স্নিগ্ধ আভা দুজনের ধরে থাকা হাতে চুমু দিয়ে আমন্ত্রন জানায় সকালের শহরে। ওরা হাটতে হাটতে ঢুকে পড়ে প্রথম গলিতে। গলিটির তিনটি পড়ুন
অণুগল্প | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩৯৫ বার দেখা | ৪৫৪ শব্দ ১টি ছবি
নে
নে
নে। নে, তবে সবটুকু জল তোকেই দিলাম
ফিঙ্গে ফড়িং মরুক সব তেষ্টা পেয়ে
পাখার ভাজে পরাগ মেখে আর না আসুক প্রজাপতি
সরষে ফুলে মধুর লোভে,
নিবি যখন সবটুকু নে
শিউলীবৃন্তে একফোঁটা জল সেটিও নে
ঘাসের ডগায় শিশির কণা, সেটুকুও নে
দারুণ আমার সবুজ ক্ষেতের গামর ধান পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৩১ বার দেখা | ১০৩ শব্দ ১টি ছবি
দেবদাস
দেবদাস
দেবদাস কে আমার কোন কাল্পনিক বা উপন্যাসের চরিত্র মনে হয় না, হয়নি কখনো। সব সময় মনে হয় সে আমার পাশের বাড়ির কিম্বা পাড়া মহল্লার খুব পরিচিত কেউ। কখনো নিকট আত্মীয়, স্বজন বন্ধু বলেও মনে হয়। শরৎ বাবুর এক অসাধারন সৃষ্টি। অথচ লেখক নিজেই একে পড়ুন
সাহিত্য | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮৯৩ বার দেখা | ৭০৯ শব্দ ১টি ছবি