নীতিশ রায়ের কবিতা সমগ্র ট্যাগের সব লেখা

স্বপ্ন
স্বপ্ন
চলছে কি! হচ্ছেটা কি?
কোথায় যাচ্ছে দেশ।
নিজের কাছে ভালো সবাই
যেন সুফি দরবেশ। কালো এখন বেশী ভালো
বাঁকি সবই মিছে,
মন্দ কাজে আগে সবাই
ভালো কাজে পিছে। স্বার্থের কাছে মাথা নত
এটাই এখন ধর্ম,
কালো টাকার পাহাড় গড়া
নিত্য যেন কর্ম। অর্থে যে পাহাড় সম
মান্য করি তারে,
জ্ঞানীর জ্ঞানে মূল্য নেই
অজ্ঞের কাছে পড়ুন
কবিতা | | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯৭ বার দেখা | ৭৭ শব্দ ১টি ছবি
প্রত্যাশা
বছর ঘুরে এল ফিরে নতুন শুভক্ষণ,
সবাই নাচে আপন ধাঁচে নাচে সবার মন।
নতুন রবি নতুন ছবি নতুন পথে চলা,
পিছে ফেলা কথার মেলা নতুন ভাবে বলা।
যত ব্যথা দুঃখ কথা ছিল না যা বলা,
দুরে ঠেলে সবই ভূলে নতুন পথে চলা।
স্বপ্নে দেখা আলোর রেখা মিলায় যদি রাতি,
নতুন পড়ুন
কবিতা | | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০০১ বার দেখা | ৭৪ শব্দ
ফিরে যেতে চাই
ফিরে যেতে চাই আমি পল্লী মায়ের কোলে,
সেথায় আমার বেড়ে ওঠার স্বপ্ন গুলো দোলে।
ঘুম ভাঙে পাখির ডাকে কাক ডাকা ভোরে,
রাতের আঁধার যায় লুকিয়ে রবির বাহুডোরে।
শিশির ভেজা ঘাসের ডগায় সোনা বরণ আভা,
নয়ন জুড়ায় দৃশ্যপটে দেখে রুপের শোভা।
সবুজ বনের ছায়া সেথায় সিক্ত করে মন,
রাখাল সেথায় বাজায় বাঁশি পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৫ বার দেখা | ১০০ শব্দ
গাঁয়ের বধু
চলছে একা গাঁয়ের বধু আনতে ঘাটে জল,
কলস কাঁখে নদীর বাঁকে বাজছে পায়ের মল।
নদীর ঢেউয়ে উথাল-পাতাল হৃদয় আনচান,
ভেজা পায়ে ছলছলানি গাইছে সুরে গান।
পাল তোলা ঐ নৌকা গুলি চলছে ছুটে দুরে,
আনমনা মন হয় যে উদাস বাড়ির কথা ভুলে। রাখাল ছেলের বাঁশির সুরে পাগল করে পড়ুন
কবিতা | | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭২৭ বার দেখা | ১১৭ শব্দ
মনে পড়ে একাত্তর
আজও মনে পড়ে একাত্তর,
সেই ভয়ানক দিনগুলি।
যে দিন দেখেছি দানবের হিংস্র থাবায়
ছিন্নভিন্ন হয়েছে বোনের শরীর,
কামানের গোলায় ঝাঁঝরা হয়েছে ভাইয়ের বুক।
দেখেছি, সবুজ ঘাসের বুকে
তাজা রক্তের স্রোত।
যে রক্তের প্রতিটি কনা বলছে,
তোমরা স্বাধীন হও, তোমরা স্বাধীন হও। আজও মনে পড়ে একাত্তর,
সেই অশ্রুসিক্ত দিন গুলি।
যেদিন দেখেছি দানবের ছোবল পড়ুন
কবিতা | | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫১৫ বার দেখা | ১১১ শব্দ
অন্তর্যামী
হঠাৎ আজিকে কালো মেঘে
সারা আকাশ বব্বর,
ডেকে বলে মা যাসনে কোথাও
এখুনি আসিবে ঝড়।
কে শোনে কথা মানিবে না বাধা
যেতে হবে ঐ দুরে,
ফুলে ফুলে সাদা বকুল তলা
আসিব এখুনি ফিরে।
কালো আর ও গাঢ় হলো
আঁধার হলো যে ধরা,
মন পাখি আর থাকে না ঘরে
যেতে পড়ুন
কবিতা | | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২৫৬ বার দেখা | ১৪৪ শব্দ
ফিরে দেখা
বিশ বছর পর দেখা হল সার
আমার পল্লী গ্রামখানি,
না পারিলাম কিছু হটিলাম পিছু
রয়ে গেলাম চির ঋনী।
কি যে হল ফল চোখে এল জল
দেখে মানবের দুর্দশা,
বেদনা আঁধার শুধু হাহাকার
নিত্য তাদের আশা।
সুখের ঘরে কেঁদে কেঁদে মরে
দীনতা একা বসে,
পায় না খেতে দিনে বা রাতে
দুঃখ থাকে যে পিছে।
সোনার মাটি আর পড়ুন
কবিতা | | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮৬৩ বার দেখা | ১১১ শব্দ
শান্তনা
প্রিয় বন্ধুবর মনে নিয়ে ছল লুকায়েছ কতদুর,
আজি গহিন নিশিতে মনের বাঁশিতে বিরহের বাজে সুর।
ছিল কত স্মৃতি ছায়া বনবিথি হাজার রঙের ভিড়ে,
রাত ফিরে আসে হুল্লোড় শেষে ফিরেছি নিজের নীড়ে।
না হলে দেখা রক্তিম শিখা অনল জ¦লেছে মনে,
দিবা হলে পার বেদনা আঁধার ভেঙেছে হৃদয় বানে।
নিয়ে করে পড়ুন
কবিতা | | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭৪৭ বার দেখা | ২৬০ শব্দ
এইতো জীবন
এইতো মাত্র আর কটা দিন,
হয়তো জয়ি বন্যাকে মনে রাখবে না কেউ!
মনে পড়বে কালে ভদ্রে,
বিশেষ কোন সময়ে,নতুবা বিশেষ দিনে।
জাগ্রত হবে না আর কারো বিবেক।
কাঁদতে কাঁদতে চোখের জল ও
শুকিয়ে যাবে এক দিন।
কেবল শুকাবেনা মায়ের শাড়ির-
আঁচলের প্রান্ত ভাগ।
দিগন্তের মেঘমালা উড়ে যাবে,
পাখির কুজনে মুখরিত হবে
সবুজে ঘেরা বন পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮০১ বার দেখা | ১১৫ শব্দ
আমি জয়ি বলছি
আমি জয়ি বলছি,
ওদের তোমরা ক্ষমা করো না।
যাদের উদ্মাত্ত রক্তের নেশায়
বলি হতে হল আমায়,
বিদায় বলতে হল-
প্রিয় মা,মাটি, মানুষকে।
বিদায় বলতে হল সহপাঠি ও
প্রিয় শিক্ষকদের কে।
ওদের তোমরা ক্ষমা করো না। মা-বাবা,
আমায় ক্ষমা করে দিও।
আমি চাইনি তোমাদের ছেড়ে,
তোমাদের কাঁদিয়ে চলে আসতে।
আমি কি কষ্ট পাইনি?
অনেক কেঁদেছি মা।
তবু আমি পারিনি,
আমি পড়ুন
কবিতা | | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯১৫ বার দেখা | ১৫৫ শব্দ
ফরিয়াদ
হে প্রভু ক্ষমা কর তুমি, আমি অপরাধী,
তোমারে ভজিতে নাহি পারি।
অন্তরে মোর সহস্র ব্যথা ,
মালা করে গলে গাঁথি।
মলিন বদনে চেয়ে থাকি আমি,
তুচ্ছ করি তোমারে।
কেমনে ডাকিব জানিনা আমি
ব্যথা ভরা এ হৃদয়ে।
চারিদিকে শুধু দুঃখের সাগর,
কষ্টে গড়া পাহাড়।
হৃদয়ের কপাট খোলনি তুমি,
দিয়েছ অমার আঁধার।
জীর্ণ বস্ত্র শীর্ণ আহার
চুম্বিছে আমার পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬০৩ বার দেখা | ৬২ শব্দ
জীবনের বাঁকে
সেদিন দুপুরে পথের ধারে ছোট্ট এক ভীড়ে,
দেখিল বিশু এক পথশিশু বিদ্ধ কথার তীরে।
চোখে তার জল গা থরথর ভয়ে সে জড়োসড়ো,
কম্পিত স্বরে বলছে বারে বারে মার্জনা মোরে করো। ক্ষুধার জ্বালায় প্রান চলে যায় ভুল করেছি তাই,
আমি যে অনাথ কষ্ট অগাধ বাবা মা বেঁচে নাই।
কাকে পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭৬৩ বার দেখা | ১৭৯ শব্দ
বিয়ে বাড়ি
হৈচৈ হৈচৈ বিয়ে বাড়ির হৈ চৈ,
চারিদিকে লোকজন হরদম হৈ হৈ।
ছোট ছোট ছেলেমেয়ে মুখে হাসি সারাদিন,
আসবে বর আজ, মন নাচে ধিনধিন।
সূর্যটা যায় হেলে পশ্চিম আকাশে,
সানাই এর সুর বাজে দুর ঐ বাতাসে।
লোকজন সাথে নিয়ে বর এল সন্ধ্যায়,
চারিদিকে ছোটাছুটি, বর দেখে আসি আয়।
কিশোর কিশোরীরা আড় চোখে দেখে পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৫৫ বার দেখা | ১০১ শব্দ
বুকের মানিক
দুঃখী এক মাতা কেঁদে ফেরে একা
কোল জুড়ে হাহাকার।
দিলনা বিধাতা পুরিল না আশা
রহিল কালো আঁধার।
জোড় করি হাত জেগে সারা রাত
মানত করে দরগায়।
আলো দিলে কোলে ডাকিব তোমারে
পুঁজিব তোমার পায়।
চাহিল বিধাতা পুরিল আশা
কোল হল আলোকিত।
কুটিকুটি হাসে বসে মা পাশে
দেখে মুখ উচ্ছ্বাসিত।
যতদিন গেল বাড়িয়া পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৫৩ বার দেখা | ১১৮ শব্দ