ফিলিস্তিন এবং ইসরাইলকে নিয়ে অবাক করা তথ্য

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রেক্ষাপট এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দেয়া সাম্প্রতিক বক্তব্য বলছে, খুব শীঘ্রই ফিলিস্তিন এবং ইসরাইল দুটি আলাদা স্বাধীন দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। ফিলিস্তিন বাংলাদেশের চিরবন্ধু, অকৃত্রিম বন্ধু। ইসরাইলিরা যদি ফিলিস্তিনকে মেনে নেয় এবং ফিলিস্তিনিরা ইসরাইলকে মেনে নেয় স্বাধীন দেশ হিসেবে তখন মনে হয় না বাংলাদেশ আর কোন বিরোধীতা করবে ইসরাইলের।

শুনেছিলাম এবং বিভিন্ন ডকুমেন্ট বলে ইসরাইল বাংলাদেশকে দুইবার স্বীকৃতি দিয়েছিল। প্রথম স্বীকৃতি দিয়েছিল ১৯৭১ সালের এপ্রিল মাসে যা কোন প্রথম দেশ বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়। ইসরাইল দ্বিতীয়বার আবার স্বীকৃতি দেয় ১৯৭২ এর পর। যা তৎকালীন সরকারগুলো ফিরিয়ে দিয়েছিল ভদ্রতার সঙ্গে। ১৯৭১ সালের এপ্রিল মাসে দেয়া স্বীকৃতি ফিরিয়ে দেন অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী খন্দকার মোশতাক আহমেদের মাধ্যমে এবং ১৯৭২ সালের স্বীকৃতি ফিরিয়ে দেন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদের মাধ্যমে। jews telegraphic agency জিউস টেলিগ্রাফিক এজেন্সি এর ৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৭২ সালের পেপার কাটিং থেকে এরকম তথ্যই পাওয়া যায়।

er-cutting

এমনও শুনেছি ইসরাইল ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা মেনে নিলে পাকিস্তানও ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবে এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করবে৷ বাংলাদেশও এমন একটা কিছু করতে পারে তবে এজন্য ইসরাইল ফিলিস্তিনকে স্বাধীনতা দিতে হবে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি হলো- কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়, সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। ইসরাইলের সঙ্গে বৈরিতা দেখিয়ে শুধু শুধু শত্রু বাড়ানোর কি দরকার? তার চেয়ে ফিলিস্তিন এবং ইসরাইল দুজনের সঙ্গে সম্পর্ক থাকাই ভাল। আমাদের চিরবন্ধু ভারত ইসরাইলের খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু। ভারতের সঙ্গে ফিলিস্তিনেরও সম্পর্ক খুব ঘনিষ্ঠ। ইসরাইলের সঙ্গে বড় ইসলামিক কান্ট্রি সংযুক্ত আরব আমিরাত বা দুবাই এর রয়েছে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। দুবাই এখন ইসরাইলের সবচেয়ে বড় বন্ধু। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে দুবইয়ের সবচেয়ে বেশি প্রভাব অন্য দেশগুলোর ওপর। দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিশাল শ্রমবাজার ধরে রাখার স্বর্থে বাংলাদেশ সরকার যদি ইসরাইলের সঙ্গে কোন ভাল সম্পর্ক গড়ে তুলে তাহলে অবাক হওয়ার মত কিছু থাকবে না কারণ দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার। অর্থ কষ্টে থাকা পাকিস্তান দুবাইয়ের কাছ থেকে অর্থ সহায়তা পেতে এবং দুবাইকে খুশি করতে ইসরাইলকে স্বীকৃতিসহ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে পারে। এগুলো মনগড়া কথা না, বাস্তব কথা।

GD Star Rating
loading...
GD Star Rating
loading...
এই পোস্টের বিষয়বস্তু ও বক্তব্য একান্তই পোস্ট লেখকের নিজের,লেখার যে কোন নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব লেখকের। অনুরূপভাবে যে কোন মন্তব্যের নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট মন্তব্যকারীর।
▽ এই পোস্টের ব্যাপারে আপনার কোন আপত্তি আছে?

২ টি মন্তব্য (লেখকের ১টি) | ১ জন মন্তব্যকারী

  1. মুরুব্বী : ০৩-০৬-২০২১ | ৯:১১ |

    ইসরাইলকে স্বীকৃতিসহ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করা যেতে পারে। কারণ বৈশ্বিক রাজনীতি এখন উন্মুক্ত। পারস্পরিক সহযোগিতা চলা অসম্ভব। ক্ষুদ্র পাঠক হিসেবে আমি এমনটাই মনে করি। আপনার মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা। https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_good.gif

    GD Star Rating
    loading...
    • এস এম হৃদয় রহমান : ০৩-০৬-২০২১ | ১২:১৫ |

      ধন্যবাদ ভাই, মূল্যবান মন্তব্যের জন্য ।

      GD Star Rating
      loading...