অক্ষমতাকে সক্ষমতায় পরিণত করা মানুষের কাজ

2787

অন্যকে অনুভব করতে হলে আগে নিজের স্বরূপ কে চিনতে হবে। তাই মানুষকে প্রথম নিজের জায়গাকে পরিষ্কার করতে হয় নিজের অবস্থান সম্পর্কে সচেতন হতে হয়। নয়তো কখনোই অন্যের ধর্মও আপনার চোখে সুন্দর সৃষ্টি তারা উপলব্ধি হবে না।

আত্মা এই ব্রহ্মাণ্ডের মত বিশালাকৃতির না হলেও তার চেয়ে বিস্তৃত এবং সুবিশাল। মন তারই প্রতিনিধিত্ব করে, মস্তিষ্ক দ্বারা সেই প্রতিনিধিত্ব বাস্তবায়িত হয় এবং মহাবিশ্বের যা কিছু রয়েছে তাকে উপলব্ধি করে। সত্য আর মিথ্যা হচ্ছে হৃদয়ের স্পন্দনের মত; এই দুইটার যেকোনো একটা করবেন হৃদয় স্পন্দনে এসে তা ধাক্কা দেবে তার থেকে আনন্দ এবং দুঃখ নির্গত হয়।

মানুষ ঘুমালে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করে না মানুষ যখন জ্ঞান হারা হয় (সেন্সলেস হয়) মানুষ তখন তার জীবদ্দশায় মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করে। জীবন একটি অনুপ্রেরণার ভাণ্ডার প্রকৃতি সে ভাণ্ডারকে আরো উজ্জীবিত করে পরিপূর্ণ করে তুলেছে। কর্ম মানুষের অনুপ্রেরণা- একটি কর্ম দ্বারা আপনি দাঁড়াতে পারেন এবং মুছে যেতে পারেন। মানুষ মরলেও অমর হয় জীবিতদের পাশাপাশি সেই মানুষ কেউ স্মরণ করা হয় তার সৃষ্টি ও কর্ম দ্বারা।

মানুষের নৈতিক আদর্শ তার একটি উজ্জ্বল নিদর্শন এটাই তাদের দৃষ্টান্ত যে তারা তাদের যাপিত জীবনে কি ধরনের সাফল্য বয়ে আনবে জীবন তার নৈতিক আদর্শ ব্যবস্থা দ্বারা পরিচালিত ও পরিপূর্ণ হয়।

বাস্তবতা হলো অন্ধ বিশ্বাসের দ্বারা আপনার জীবন কোনোভাবেই সাফল্যের শিখরে উঠবে না। এখানে তাত্ত্বিক বাস্তবতার যথাযথ প্রয়োগ যতক্ষণ পর্যন্ত একজন মানুষ তার জীবদ্দশায় না করবে ততক্ষণ পর্যন্ত কারো সাধ্য নেই জীবনকে বাস্তবসম্মত করতে পারে।

প্রত্যেকটি মানুষকে তাদের জীবন ধারায় জীবনের উৎস সম্পর্কে সফলভাবে গাদার করতে হবে। আপনার ভেতরে যে ব্যবহারিক দৃষ্টিকোণ রয়েছে তা যদি সজাগ হয় যথার্থ হয় তবেই আপনি সেই মানুষ। যে জীবনের প্রকৃতজসা আলো খুঁজে পেতে পারেন।

মানুষ যদি তার সন্তানের ভুলকে ক্ষমা করতে পারে তবে অন্যের ভুল ক্ষমা যোগ্য। সে ক্ষেত্রে মানুষ কিছুটা ব্যতিক্রম পশুর ভুল কখনো ক্ষমা করা হয় না। এটা যার যার মনস্তাত্ত্বিক ব্যাপার তবে বুঝতে হবে পশু মানুষ নয়। আপনার সন্তুষ্টি একটি পরিবার একটি সমাজ আর রাষ্ট্র গড়ার জন্য যথেষ্ট।

প্রতিনিয়ত নানা ধরনের আলো আপনার জগৎ জীবনে বিকিরণ করছে কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সেই আলোকে বাস্তবতার নিরিখে গণ্য করলে জীবনে এগিয়ে যায়। বৃক্ষের তলদেশের কঠিন শেকড়কে ছিড়তে হয় এবং অন্ধকার সময়ের সকল শেকলকে ভাঙতে হয় আপনি যদি শেকলকে ছিঁড়তে বা ভাঙতে না জানেন তাহলে আপনি পুরোনোকে কখনোই অতিক্রম করতে পারবেন না।

অজ্ঞতা মানুষের দাস; মানুষ যখন অজ্ঞতার দাস হবে তখন তাদের জীবনকে ঘনীভূত অন্ধকার নিষ্পেষিত করবে। আমরা অন্ধকারকে ভয় পেলেও অন্ধকারকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেই আমরা অজ্ঞতাকে ভয় পেলেও অজ্ঞতার কাজকেই সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেই বিশ্বাসের সময় গ্রহণ করি।

আমাদের অন্তর্জগৎ এমন একটা বিশাল ভূখণ্ড সমান যা কিনা অনায়াসে সবকিছুকে স্থান দেয় কিন্তু গ্রহণ করার ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। এটাই মানুষকে ভাবিয়ে তোলার জন্য যথেষ্ট যে আপনি কি গ্রহণ করবেন। সুন্দর নাকি অসুন্দর সহজ পথ নাকি কঠিন পথ।

GD Star Rating
loading...
GD Star Rating
loading...
অক্ষমতাকে সক্ষমতায় পরিণত করা মানুষের কাজ, 5.0 out of 5 based on 1 rating
এই পোস্টের বিষয়বস্তু ও বক্তব্য একান্তই পোস্ট লেখকের নিজের,লেখার যে কোন নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব লেখকের। অনুরূপভাবে যে কোন মন্তব্যের নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট মন্তব্যকারীর।
▽ এই পোস্টের ব্যাপারে আপনার কোন আপত্তি আছে?

১টি মন্তব্য (লেখকের ০টি) | ১ জন মন্তব্যকারী

  1. মুরুব্বী : ২৪-০৪-২০২২ | ১৯:১২ |

    জীবন একটি অনুপ্রেরণার ভাণ্ডার প্রকৃতি সে ভাণ্ডারকে আরো উজ্জীবিত করে পরিপূর্ণ করে তুলেছে। কর্ম মানুষের অনুপ্রেরণা। https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_good.gif

    GD Star Rating
    loading...