সাইদুর রহমান-এর ব্লগ

এ যাবত ২টি কাব্যগ্রন্থ (একক) এবং যৌথ ১৬টি কবিতা ও গল্পের বই প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতিশোধ
অবশেষে কি নিষ্ঠুর প্রতিশোধ
নিয়েই নিলো প্রকৃতি;
ক্ষুদ্র একটি করোনা ভাইরাসে
বিশ্ব জুড়ে এত ভীতি। আসলে মানুষ আজ অবিমৃশ্য
বন কেটে বানায় নগর;
তাই যে বিশ্ব এখন এত উষ্ণ
নদী ভরে গড়ে বাড়িঘর। মাটি আমাদের দেয় কত কিছু
বুক চিঁড়েই তবু প্রাসাদ;
তবু পাই গ্যাস তেল বহু কিছু
তার বুকেই শস্য আবাদ। রক্ষক না হয়ে মানুষেরা পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৯ বার দেখা | ৯৩ শব্দ
অতি খুশির ভারে
অতি খুশির ভারে
হেমন্ত যেই প্রতি বছর
কৃষাণেরি দ্বারে,
মুখে ফোটে হাসির ঝলক
অতি খুশির ভারে। ছাতিম ফুলের গন্ধে সবে
উদাস হয়ে পড়ে,
নবান্নেরি উৎসব তখন
সবার ঘরে ঘরে। সোনার ধানে ভরে গোলা
হেমন্তের এ খেলা,
গ্রামেগঞ্জে মেলার হিড়িক
বসে রাত্রি বেলা। পিঠাপুলি ফিরনী পায়েস
খাওয়া চলে গাঁয়ে,
শিউলি ঝরা বকুল তলে
মানুষ জড়ো ছায়ে। শশী হাসে রাতের বেলা
ছড়ায় পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৩ বার দেখা | ৪৭ শব্দ ১টি ছবি
খড়ির ভাগ্য
খড়ির ভাগ্য
বাড়িতে আগে দেখেনি তাকে,
সে কেগো মা, জিজ্ঞাসি মাকে।
এ কি, মানুষের নাম, ‘খড়ি’ ?
তোর কি তাতে, জ্বালায় মরি। মা যে বিরক্ত, করি প্রস্থান,
ভাবি, আমারই নেই জ্ঞান।
চাঁদ দেখি, বসি জানালেতে,
মা পাঠালে দুধ, খড়ির হাতে। খাবে এ তুমি, বলি আমি হেসে,
মুখখানি তার হলো ফ্যাকাসে।
জোর করে পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৯ বার দেখা | ১২৯ শব্দ ১টি ছবি
করোনাকালের কবিতা
তিন। হয়ত: প্রকৃতি সবই জানে হয়ত: প্রকৃতি সবই জানে
আমরা সে যান্ত্রিক জীবনে
নেই আর সহমর্মিতা মননে
স্নেহ মমতা নেই প্রিয়জনে
ব্যস্ত কখন পৌঁছব গগনে। হয়ত: প্রকৃতি সবই জানে
দৌড়াচ্ছি সুখের অন্বেষণে
প্রিয়জন একাকী রয় ঘরে
নিঃসঙ্গ ভেবে কি কষ্ট মনে
সাথী দীর্ঘশ্বাস জল নয়নে। হয়ত: প্রকৃতি সবই জানে
করোনার দাপটে এ ক্ষণে
মানুষ ভয়ে কোয়ারেন্টিনে
জন্ম পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০৩ বার দেখা | ৪৯ শব্দ
নয়ত বসুধা মিছে
নয়ত বসুধা মিছে কে বলেছে তোমায় তুমি আমার পর
ছড়াও সুগন্ধ সৌরভ, হই উন্মাদ;
কখন হারিয়ে যাও, মনে লাগে ডর
এতোই সুন্দর যে তুমি,হারে ঐ চাঁদ।
এ হৃদয়ে তুমি যেন সে এক পৃথিবী
দিবানিশি যারে আমি বারে বারে খুঁজি;
সবি ম্লান,উজ্জ্বল শুধু তোমার ছবি
অন্তরে আছো, প্রেমফুলে অপ্সরা সাজি। না পেলে ভালোবাসা অনুভবি পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪১ বার দেখা | ৬৭ শব্দ
জলে পুষ্পডালা
জলে পুষ্পডালা
তরল তিমিরে যেন প্লাবিত পৃথিবী
রোদ-স্নানে ফিরে পায় তার সজীবতা;
পাখিদের কলরবে, উচ্ছ্বসিত সবি
মৃদু স্নিগ্ধ সমীরণে নাচে তরুলতা।
উষ্ণ দুপুরে মাটির বুকখানি যেন
হয়ে উঠে ক্লান্ত, হয় অতীব তৃষ্ণার্ত;
পশুপাখি মানুষের কি কষ্ট কখনো
বিকেলের মর্তখানি তবে বড় শান্ত। প্রকৃতির প্রতিরূপ মানব জীবনে
শিশুকাল কাটে যেন আঁধার বিবরে;
ঝলমলে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫ বার দেখা | ৬৫ শব্দ ১টি ছবি
কেটে যাবে বিপদ
কেটে যাবে বিপদ
কেটে যাবে বিপদ খুব শীঘঘির
থাকি না হয় কিছুদিন ঘরে;
কেহ যদি যাও, যেথা তবে ভিড়
সংক্রমণ যেন ততটা বাড়ে। নিত্যই চলছে করোনার কামান
শঙ্কিত আমরা বিশ্ববাসী;
অস্ত্র এখন থাকি সবাই সাবধান
তবেই মুখে ফুটবে হাসি। দৃশ্যত: সকলে দূরে দূরে থাকি
রহিব হৃদয়ের কাছাকাছি;
দেশটাকে যেন খুব ভালো রাখি
আমরা, যে পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৮ বার দেখা | ৫৫ শব্দ ১টি ছবি
খণ্ড কবিতা - ২
খণ্ড কবিতা - ২
যে হৃদয় বেদনায় ভরা
খুশিরা যেথা তবে অনুপস্থিত;
মুহূর্তগুলোও অগ্নি ঝরা
সেথা গড়ে অসন্তোষের ভিত। জগতে অভাবই অভাব
আরো বেশি ভালোরই প্রয়াস;
চাই আরো চাই স্বভাব
বিকশিত চায় আরো বিকাশ। পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০০ বার দেখা | ২৩ শব্দ ১টি ছবি
মিলবে পথ বাঁচবে দেশ
কিযে একটা করোনা এলো বিশ্ব মাঝে
ঝরেই যাচ্ছে প্রাণ সুবাস;
ফুল সবই ফুটার আগে নেতিয়ে পড়ে
কেমন খেলা এ কি সর্বনাশ। ধরনী বুকে এলো দুর্যোগ হয়নি ভোর পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০ বার দেখা | ১৫৭ শব্দ
ড্যাডি
ড্যাডি
Daddy: অনুবাদ কবিতা (প্রথম অংশ) তিরিশটি বছর যেন
পদ প্রদীপ হয়ে, করেছি বসবাস;
ড্যাডি, তুমি কখনো
কায়ক্লেশে, তবু কত শক্তি শ্বাস। যদিও হন্তার কারণ
ছিলে ঐ ঈশ্বর প্রদত্ত মর্মর ভাস্কর;
সিলমোহরের মতন
যেন বিপদে পাশে, নখের উপর। তুমি ছিলে যেন প্রধান
উদ্ভট পড়ুন
অনুবাদ | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫ বার দেখা | ১০২ শব্দ ১টি ছবি
ড্যাডি
ড্যাডি
Daddy: অনুবাদ কবিতা
(দ্বিতীয় অংশ) যখন রাগে হারাতে ধৈর্য
আর মোচ সতত কি ঝরঝরে;
নীল চোখে লাগতো আর্য্য
হতেম কম্পিত, শত ভয় ডরে। তুমি ছিলে সূর্য নও ঈশ্বর
ফ্যাসিবাদী,তবে নারীর পছন্দ;
নির্দয় ও মুখখানি কঠোর
পাশবিকতায়, পড়ুন
অনুবাদ | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫ বার দেখা | ১২৯ শব্দ ১টি ছবি
তুমি হে প্রভু
তুমি হে প্রভু
শেষ বিচারের মালিক তুমি হে প্রভু
এ ব্রহ্মাণ্ডের কোথায় কি, জ্ঞাত সবই;
তুমিই তো প্রেমময়ী, স্নেহময়ী বিভু
গুণগান উপাসনা যত সেও তোমারি। পশুপাখি মানুষ কিংবা কীট পতঙ্গ
মাগে কৃপা, তুমিই শক্তিমান জগতে ;
চায় মমতা, সহায়তা, অনন্ত সঙ্গ
ব্যাকুল সবাই তোমার করুণা পেতে। গর্হিত কুকর্মে যারা চলছে পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১ বার দেখা | ৭০ শব্দ ১টি ছবি
লিমেরিক
লিমেরিক
কই আর থামে
আতঙ্ক আর কান্না জীবনে কই আর থামে আজকাল
ঐ হিমালয় কি বিশাল দৃঢ় যেন হাসি খুশিতে চিরকাল;
বুকের ধন পাথর তবুও কাঁদে
ক্লান্তি অশান্তি যত উতলা নদে
পাথরেও ফুটে ফুল নদীও পায় শেষে সমুদ্রের নাগাল। পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১ বার দেখা | ৩৩ শব্দ ১টি ছবি
এই তো জীবন
জীবনের স্রোত বহে নদীর মতন
কলকল তানে তবে গন্তব্য অজানা;
স্বপন ডানায় ঘুরে জগত কানন
সুখের আশায় সহে শত বিড়ম্বনা।
তমস বিবরে খুঁজে বেড়ায় সকাল
অভাব যন্ত্রণা সদা খেলে লুকোচুরি;
ব্যর্থতার উগ্র নৃত্যে হাসির আকাল
হৃদয়ের অতলান্তে কান্না আহাজারি। সোনালি প্রত্যুষ দেয় যেন হাতছানি
ছুটছে জীবন, মিলে যদি সুখখান;
প্রাপ্তির খুশীতে যায় ভুলে সব পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২ বার দেখা | ৬৭ শব্দ
অ‍্যাকুরিয়াম
এই পৃথিবীটা আসলে একটি ছোট্ট
সে অ‍্যাকুরিয়ামের মতন;
আমরা রঙিন ক্ষুদ্র মাছ খুবই তৃপ্ত
পাচ্ছি যে সহস্র যতন। যেমন মৃত্তিকা করে সকল প্রাণীর
লালন পালন ভরণ পোষণ;
রঙিন মৎস্যরাও তো পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১ বার দেখা | ১২৭ শব্দ