হুলিয়া এবং রফিজ ... নির্মলেন্দু গুণ
আমি যখন বাড়িতে পৌঁছলুম তখন দুপুর,
আমার চতুর্দিকে চিকচিক করছে রোদ,
শোঁ শোঁ করছে হাওয়া।
আমার শরীরের ছায়া ঘুরতে ঘুরতে ছায়াহীন
একটি রেখায় এসে দাঁড়িয়েছে। কেউ চিনতে পারেনি আমাকে,
ট্রেনে সিগারেট জ্বালাতে গিয়ে একজনের কাছ থেকে
আগুন চেয়ে নিয়েছিলুম, একজন মহকুমা স্টেশনে পড়ুন
স্মৃতিকথা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪০৫ বার দেখা | ৫৩৬ শব্দ ২টি ছবি
পথের ঠিকানায়
মাঠ পেরোলেই গাঁ
যেখানে এক বৈষ্ঠমী হঠাৎ
এসে আগলে দাঁড়িয়েছিলো
পথ, বলেছিলো বৈষ্ণব হবি ? যাবি নাকি আমার সাথে পথের ঠিকানায় ?
কি ছিলো তার চোখে
আমার মুখে কথা সরেনি। আমার বুকের ভেতর কষ্ট হয়
ভীষণ কষ্ট। আমার দম বন্ধ
হয়ে আসতে চায়। পড়ুন
কবিতা, বিবিধ | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯৬ বার দেখা | ১০৩ শব্দ ২টি ছবি
বৃষ্টি তোমার জন্য
হঠাৎ বৃষ্টি উড়ে এসে
ভেজালো চুল
কোন কিছু না বুঝেই
ফেরালাম চোখ;
দেখি দাঁড়িয়ে আছো তুমি
অপলক দেখছো আমায় –
দৃষ্টিতে লোভ নেই
আছে বিষণ্ণতা।
ওষ্ঠরেখায় নেই কৌতুক
জানি তুমি ভুলে গেছো
বর্ষা এলে যেমন
সবাই ভুলে যায় চৈত্রকে। বৃষ্টির জন্য আকুল ছিলে তুমি
বৃষ্টি এলো।
সবুজের জন্য আকুল হলে তুমি
বসন্ত এলো।
তোমার জন্য আকুল হলাম পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩৯৭ বার দেখা | ৮১ শব্দ ২টি ছবি
নির্বাসনে ভালোবাসার হিসাব মেলে ভালো‏
তুমি যে ভূখন্ডের সাজানো ঘরে বসে
ভালোবাসার ঠোঁটে চুমু খাচ্ছো
আমি তারই সীমান্তে এসে পৌঁছেছি আজ সকালে। এখন মধ্য প্রহর
মাথার উপর সুকান্ত সূর্য সোনা রং তার আলো,
কানে সমুদ্র গর্জন, গাংচিল পাখার মায়াবী কথন। পাঁজরের হাড় যেনো সেতারের চিকন তার
সেই তারে তোমারি বিরহের সুর বাজে বার পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪০১ বার দেখা | ১৯৭ শব্দ ২টি ছবি
আমার জীবনে... রবীন্দ্রনাথ
প্রিয়বরেষু। তোমার পছন্দ আছে, স্বীকার করলাম আরেকবার। তবে অবাক হতে হয়, একদম আধুনিক কালের মেয়ে হয়ে রবীন্দ্রনাথ তোমায় পেলো কিভাবে। তাও আবার একটা দুটো উপন্যাস নয় একেবারে তাঁর সারাজীবনের গদ্য ঘটনার সৃষ্টি ধরেই টান দিয়েছো। ভদ্রলোক বেঁচে থাকলে নিশ্চয় অক্কা পড়ুন
স্মৃতিকথা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫০২ বার দেখা | ৬০৭ শব্দ ২টি ছবি
ত্রিজ... কবি মাসুদ খান
মধ্যরাতে ভয়ে ভয়ে চোখ তুলে দেখি,
অসংখ্য প্রিজম ফুটে আছে পুনর্ভবা নদীপারে
আর ঠিক ডাঙায়, জলের সমতলে,
হাওয়ায় হাওয়ায় করতালি-
অবিশ্রাম বর্ষণের মধ্য দিয়ে
তুখোড় তরুণ আলোকের অধ্যাপনা ভেসে যায়।
ধীরে ধীরে বিবর্তিত হতে থাকে রং
এত রং, এত আলোবিচ্ছুরণ,
লোভাক্রান- পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯৪ বার দেখা | ২৪১ শব্দ ৪টি ছবি
পূর্ণ প্রহেলিকা
অন্ধকারে তোমার হাসির
বিদ্যুতে আর স্বর্ণলতার
ঢেউ- খেলানো আলিঙ্গনে
ঝলসে উঠে মধ্যরাতের
হাস্নাহেনার মদির গন্ধ। একটি স্থবির প্রহর- রন্ধ্রে
পাঁপড়ি- মেলা অনুভবে। কোন অন্তহীন নীলিমার জগতে
বিচরণ করো মূহুর্তের পলকে
লাল নয়, কালো নয়
শুধু শূন্য ও সাদায়। পৃথিবীর পাথারে করি স্নান
ভোরের শুকতারার ঈশারায়
স্বপ্নের পূর্ণিমা রাতে রথে চলি। নক্ষত্রের মুকুট মাথায় পরে
আমার শ্বেত পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২৬ বার দেখা | ৬২ শব্দ ২টি ছবি
চন্দ্রবরণ ... শেলী রহমান
এই তো সেদিন
পিচ ঢালা রাস্তায় জলপাঁই কুড়ালাম
ছিপ ছিপ সন্ধ্যায় গুড়ি গুড়ি বরষায় ভিঁজে !
কেউ ছিল না পাশে অথবা অন্য কোথাও !
তবু কে জানি পিছু পিছু পায়ে পায়ে ফিরে আসে বারবার !
কিন্তু এমন তো হবার নয় !
পঁচিশ বছর আগে সে আবেগ মূছে পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪১৯ বার দেখা | ১৩৮ শব্দ ২টি ছবি
শহুরে পান্তা বিলাস
অনেকদিন খাইদাই পোস্ট আর লক্ষ্য করিনা। ইয়ে মানে বলতে চাইছি রেসিপি টাইপের কোন কাহিনি পোস্ট। যা দেখে জিভে জল চলে আসে। সামনে চৈত্র মাস। কাঠফাটা রোদ্দুর তার দাপট বসাবে প্রকৃতিতে। আসবে বৈশাখ। নতুন বাংলা বছরের হিসাব নিকাশ। হৈ হুল্লোড় বেঁধে যাবে পথে- প্রান্তরে। বছরের পড়ুন
জীবন | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০৬ বার দেখা | ১০২ শব্দ ১৫টি ছবি
বাংলা উপন্যাসের স্বরূপ সন্ধানে: মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়
বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে উপন্যাস হলো আধুনিক যুগ সচেতন শিল্পকলা। ঊনবিংশ শতাব্দীর ইংরেজ বেনিয়া শাষিত কলকাতা এবং তৎকালীন মফস্বল জীবনের যে বিন্যাস, সেই বিন্যাসের টানাপোড়নের বাস্তব আকর্ষণেই জন্ম নেয় বাংলা উপন্যাস। সেই সময়ে কলকাতাকে কেন্দ্র করে মধ্যবিত্ত বাঙালি সমাজে জীবন গ্রহের যে পড়ুন
ব্যক্তিত্ব | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪৫২ বার দেখা | ১১৩৩ শব্দ ৪টি ছবি
মানসান্ক
অনেকটা রাস্তা ক্লান্তিহীন পেরিয়ে এসে
অবশেষে অন্ধকারের উপত্যকায়
আমি আবিস্কার করি আমাদের নিজস্ব নিয়তি। মুঠোবন্দী চাঁদের শীৎকার
শীতল উত্তাপে আমাকে নিয়ত দগ্ধ করে। অচিহ্নিত অস্তিত্বের অনন্ত আশ্লেষে
আমার সত্ত্বায়, চেতনায়
বিমূঢ় বিষ্ময়ে আমি অনুভব করি
এক রুদ্ধগতি;
ঈগলের নাভিশ্বাস ডানা- ঝাপটানি। জাগতিক ক্লেদ- গ্লানি পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫৭ বার দেখা | ৬৬ শব্দ ২টি ছবি
জলের সন্ত্রাস
চারিদিকে জল যার সে আর কোথায় যাবে এই
অবেলায়, শ্রাবণের নিরুক্ত সন্ধ্যায় ? নিঃশ্বাসের
মত নিঃশব্দ, নির্জন পায়ে কারা যেন, জেনে নেই,
প্রতি রাতে এসে হানা দেয় পৌরাণিক বিশ্বাসের। মন্দিরে মন্দিরে ! তবু একদিন শেষ সাহসের
কনিষ্ঠ আঙুল ধরে ও- পাড়ার ধ্রুপদী পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০৫ বার দেখা | ১৫৪ শব্দ ২টি ছবি
মানচিত্র ফেটে গেলে
মানচিত্র ফেটে গেলে কেঁপে ওঠে কুমারীর মণি
সদরের দরোজায় কড়া নাড়ে বেখাপ্পা ব্যর্থতা
কি দিয়ে ঢাকব, বল, জীবনের আড়ষ্ঠ নগ্নতা
পাকা ধানে মই দিয়ে চলে যায় দুপুরের শনি। তীরন্দাজ ছোঁড়ে তীর, শিকারের দেহ ছিন্নভিন্ন
মহাপ্রস্থানের ছাপ পড়ে আছে নিরুদ্ধ সৈকতে
বিষাদের বরপুত্র ধাবমান শূন্যে, ছায়াপথে
চরাচরে বর্ম নেই, পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১২ বার দেখা | ৮২ শব্দ ২টি ছবি
অক্ষিরসে তুমি নেই
অকষ্মাৎ যেন খুলে গেলো আগলের ঝাঁপ
থাকে শুধু মারণ উদ্ভাস আকাশ- পাতাল।
ব্যাকরণে অনুক্ত সূত্রের তীখনো ফলা ছিন্ন করে
জরাজীর্ণ মোহ আমার। আর সুখ শীতের কুন্ডলী ধোঁয়া ছেড়ে
ফাল্গুন- বিকেল, দেখো, হিলহিলে সরীসৃপ
প্রজ্ঞা নিয়ে অস্তিত্বের একান্ত চাতালে প্রথম
জন্মের শেষ চিহ্ন রেখে যায়… শোন, কান পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯৩ বার দেখা | ১০৯ শব্দ
বিদেহী বৃষ্টিপাত
প্রাগৈতিহাসিক মনসার কাল
এসে গতরাতে রেখে গেছে ইতিহাস
আমার অদৃশ্য গ্রন্থে, জানতে পারি নি। অবিমিশ্র চন্দ্রালোকে
নির্বাক নিহত আমি স্বপ্নহীন।
ভবিষ্যতশূন্য একটি জীবন
হয়তো এভাবেই ক্ষয় হয়ে যায়।
নিষিদ্ধ নির্মোহে আবৃত আমার তন্দ্রা।
পাপ- পূণ্য অর্থহীন। সমূহ আশ্বাস
কষ্ট হয়ে ঝরে পড়ে পড়ুন
কবিতা | ০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৪০ বার দেখা | ৪৯ শব্দ ২টি ছবি