আসল অভিপ্রায়
আসল অভিপ্রায় অনেকটা সময় লেগেছে ওই বোবাকে বুঝতে
আসল কথা চুপ করে থেকে মানুষকে খুঁচোনো
এটাই উদ্দেশ্য, হাজারটা দোষ ঢাকবে কি সে?
তার ওপর আবার জমজমাট সহোদরের নীরব প্রেম
এখন তার ডিজিটাল অক্সিজেন না পেয়ে জীবন মরণ
নিজের অহংকারে নিজেই হয়েছে পতন —-
তাই রোজ তারিখে খুঁচিয়ে মরণ কামড় দিয়ে যায়
ওসব পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১৬ বার দেখা | ৫৭ শব্দ
শীতের দ্বিতীয় শীত
শীতের দ্বিতীয় শীত ট্রেনের হর্নের গায়ে মাকড়সা-ঝুল লেগে আছে
পঞ্চায়েতে দু’মাসের কাজ পেল আকাশি মেয়েরা:
পায়ে-চলা জ্যোৎস্না দেবে বিলের মাটিতে, বিষধর —
ঝাঁপির পার্বণী পেয়ে হবে গোল সুখিত বেড়াল বৃদ্ধ দাঁতাল পাখি — ধান কাটতে গিয়ে ক্ষেতওলা
কোলে নেয়, মরাইতে রাখে। ঝরা পোকা, ঝরা ভিড়,
হিমের মশারি। এই যে দাঁতনফল, আমার পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ২০ বার দেখা | ৮৭ শব্দ
Facebook Profile photo
ঘ্রাণ
ঘ্রাণ যদি স্পর্শের অনুভূতি নাই জাগ্রত হয়, তবে
একবার তাঁর কাঁচা স্নানের ঘ্রাণ শুকে দ্যাখো
শিউলি, বেলি, গোলাপ, গাঁদা মৃত ছাড়া আর
কিছুই নয়। অবিশ্বাস হলে একবার জলের কাছে প্রশ্ন করো
তাঁর চুলের সাথে কি সম্পর্ক তোমার? জবাবে
একটুও বিব্রত না হয়েই বলবে, একবার শুকে দ্যাখো;
তুমিও বলবে, ভালোবাসা কারে বলে। এরপরও যদি পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১২ বার দেখা | ৫৮ শব্দ
হেমন্ত এলো
হেমন্ত এলো কার্ত্তিকে ভর করে হেমন্ত এলো
দোল খেতে খেতে হিমেল বাতাসে;
শরতের মেঘগুলো নেমে এলো
ভূমে,যেন কুয়াশা কন্যার বেশে।
খাল বিলে ফুটেছে শাপলা ফুল
ধান ক্ষেত সেজেছে সোনালী রঙে;
ঘরে ঘরে আনন্দ উচ্ছ্বাস প্রতুল
হিমে ভেজা ফড়িং নাচে কত ঢঙে। শরত সহোদরা সেজেছে নব বধু
শীত শীত আমেজে করবে উৎসব;
চারিদিকে পাই সে নবান্ন পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১৬ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
জীবন মানেই কি নিয়ম?
জীবন মানেই কি নিয়ম? জীবনকে জিজ্ঞাসা করলাম
ত্রিশতো পার হয়ে এলে
আর কত দিন বোঝা নিয়ে বেড়াবে? জীবন বলল অপেক্ষা কর
না হয় আরো ত্রিশ বছর বাঁচবে!
আমি বললাম, আরো ত্রিশ বছর!
কত দীর্ঘ সময়! কত দিন লাগবে পার হতে!
জীবন বলল তাড়াতাড়ি কিসের!
এভাবেই চলে যাবে
যে ভাবে যাচ্ছে আমি বুঝিনা মানুষ অনেক দিন পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১৭ বার দেখা | ১২১ শব্দ
জলের শরীর
তুমি এসেছিলে জলের শরীর
তৃষ্ণা বাড়িয়ে দিলে পৃথিবীর
ভয়ে ভয়ে মেলেছি চোখের পাতা
খুলে দিলে তুমি বুকের খাতা
কবিতা লিখেছি নূতন ভাষায়
তুমি অনুবাদ করো আমায়! ফুলের মতো ছড়াও মিষ্টি ঘ্রাণ
ঘাসে ঘাসে জাগাও শিহরণ
ভালো লাগে রোদের আলতো ঘুম
তুমি হাসো যখন নিঝঝুম; চাঁদের মতো তোমার উঁকিঝুঁকি
ডানা ঝাঁপটে রাতজাগা পাখি
রূপকথা রাজ্যে করেছি ভ্রমণ
পাই পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ২৩ বার দেখা | ৭৪ শব্দ
কালের উচ্চারণ
আমি তো
অতটা বিদ্বান নই
নেই গোলামীর যোগ্য সনদ!
অথবা, উপভোগ্য কোন জোকার নই
সার্কাসের বামুন নই-
আমি কালের উচ্চারণ! এক মহা যুদ্ধ শেষে
মাঘের শীত জড়ানো গোধূলি রঙ মেখে জন্মেছিলাম, সেদ্ধ ধানের গন্ধে, ক্ষণ জয়ে
মোহন সান্দ্রে মামুলি উল্কা পতনে, অমোঘ উচ্চারণে
কিন্তু- আমি ধ্বনি পড়ুন
কবিতা | | ১টি মন্তব্য | ১৮ বার দেখা | ৯৫ শব্দ ১টি ছবি
স্বপ্নহীনের সাপলুডো (একাঙ্ক নাটক)- ৮ম পর্ব
স্বপ্নহীনের সাপলুডো(একাঙ্ক নাটক)- ৮ম পর্ব জগাই – থানায়! ওয়ারেন্ট! বলেন কি! কি সৌভাগ্য আমার! ওরে কে আছিস! হাবু, কেলু, ঘেটু শীগগির শরবৎ নিয়ে আয়! আমার নামে ওয়ারেন্ট এয়েচে!
কনস্টেবল – একি! একি! আপনি তো মশাই আচ্ছা ঢ্যামনা! ওয়ারেন্ট শুনলে লোকে ভিরমি খায়, আর আপনি দেখছি একেবারে পড়ুন
শিল্পসংস্কৃতি | ১টি মন্তব্য | ২০ বার দেখা | ৩৮০ শব্দ
যখন গল্প মরে যায়
যখন গল্প মরে যায় প্রতিটি মানুষের মধ্যে গল্প থাকে
প্রতিটি গল্পের ভেতর মানুষ
তারা গাছের ছায়ায় নদীর তীরে বসত গড়ে
তারা একজন আরেকজনকে আঁকড়ে ধরে
ভালবাসা বিরহকাতর রাত্রি জাগে
কান্নাহাসির দিগন্তরেখা ছায়াপথ
দৃষ্টিসীমায় হেসেখেলে যেতে যেতে
আগমীকে বপন করে মানুষের ভেতর
প্রেম অপ্রেমে কাতর উল্কাপাত।
মানুষ মানুষের কাছে যায়
শত প্রত্যাশায় ভালবেসে গল্প শোনে
গল্প শোনায় পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | ২৭ বার দেখা | ১০১ শব্দ
দৃশ্যপটহীন দৃশ্য
দৃশ্যপটহীন দৃশ্য ঢেউকল ছুঁড়ে দেয়ার পর সাগর উত্তাল হলে
আমাদের অনিশ্চিত গন্তব্যে যাত্রা শুরু হয়
ভাতপাতে বিষ নিয়ে যে দৃশ্যের জন্ম দিই
সেখানে হরিণশাবক মন নিয়ে অন্ধকারে
পরে থাকে তাড়া করা বাঘ
মূলত এইসব দৃশ্যের অবতারণা করতে গিয়ে
নিরাপদে বাড়ি ফেরা হয় না আমাদের
খুব সম্ভবত মৃত্যুর অভিনয় করতে গিয়ে
পুড়িয়ে ফেলি মুখস্থ পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | ২০ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
তবুও আমি প্রণয়িনীর কথা ভাবি
তবুও আমি প্রণয়িনীর কথা ভাবি তবুও কিছু কিছু ভালোবাসার দিকে তাকিয়ে থাকি
যদিও উদয়ের পর অস্ত থেমে থাকে না
তবুও গতবুদ্ধি রাংতার কাজলের কথা ভাবি
মহাসমুদ্রের অলৌকিক বিভাজনের কথা ভাবি!!
শুরু যেভাবে মুদ্রিত হয়, শেষও যদি সেভাবে মুদ্রিত
হতো?
তাহলে কি পাহাড়ের দীর্ঘশ্বাস যুবতী রমণী হতো?
মৌণতার হাত ধরে ধীরে ধীরে ভালোবাসা পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১৬ বার দেখা | ৯৭ শব্দ
জীবন সায়াহ্নে
জীবন সায়াহ্নে একদিন প্রান্তের নদীরা শুকিয়ে যাবে
বৃক্ষের বৃদ্ধত্ব হাঁটু গেড়ে কার্বনের ভিক্ষা মাগবে
একদিন ধোপা দুরুস্ত পোষাকে লেগে যাবে
ময়লার দাগ, পিচ করা ঝকঝকে রাস্তায়
গোল্লাছুট খেলবে বেওয়ারিশ সারমেয়
একদিন প্রাচীন সুন্দরী অন্দরের আয়নায়
দেখবে ক্ষয়ে উঠা মুখ, তাগড়া জোয়ান
উদগত কর্মের শেষে অতৃপ্তির আশ্লেষে
গজরাবে, একদিন সময়ের অন্তে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১৮ বার দেখা | ৯৩ শব্দ
ছায়াগুলো সাজানো ছিল
ছায়াগুলো সাজানো ছিল [] নাটকের যবনিকা এলে বদলে যায় পর্দার রঙ। যারা
অভিনয় করেছিল,তারা পোশাক পাল্টে মিশে যায় জনস্রোতে।
হাততালি দিতে দিতে যারা উপভোগ করেছিল দৃশ্যাবলি-
তারাও ভুলে যায় বিগত সংলাপ। নাটকটি মূলত সাজানো ছিল,বলতে বলতে নাট্যকার
হাত দেন পরবর্তী পরিচ্ছেদ পরিকল্পনায়।বোকা মাটির ঘ্রাণ
বুকে নিয়ে পাখিরা সেরে নিতে চায় দেশান্তরের পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১৮ বার দেখা | ১০০ শব্দ
এক চতুর্থাংশ সুখ (অণুগল্প ৪০০)
এক চতুর্থাংশ সুখ (অণুগল্প ৪০০)
অবশেষে ৪০০তম অণুগল্পটিও লেখা হলো। আরো ৬০০ অণুগল্প লেখা বাকী এখনো
_________________________________________ চলার নামই জীবন। জীবন সুখ-দু:খের মহাসম্মেলন। প্রত্যেকেরই যার যার নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে এ ব্যাপারে। প্রাপ্তির নিরিখে এই দেখার ভিন্নতা এবং বিচিত্রতা। জীবনের এই পর্যায়ে এসে শায়লা নিজেকে পড়ুন
অণুগল্প, গল্প | | ৪ টি মন্তব্য | ২৫ বার দেখা | ১৬৫ শব্দ ১টি ছবি
গোধূলি রং
গোধূলি রং
গোধূলি রং শেষ বিকেলের আলোয়
জোনাকিপোকা তার রূপের প্রকাশ করতে না পেরে প্রতিনিয়ত রাতকে ডাকে,
দিন চলে যায় গহীন আঁধারে নতুন প্রভাত পথে। শুধুশুধুই পথ আগলে দাঁড়িয়ে থাকি একা,
বিহঙ্গী বাসায় অপেক্ষায় প্রহর গোনে
মৌনতার সিঁড়িপথ পাহাড় চূড়ায়। গোছানো দিনের সুখের সৌধ গড়া হয়না, ক্লান্তির ছায়াপথ পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৩৬ বার দেখা | ১০৩ শব্দ ১টি ছবি