মৃত্তিকার মেঘলা ভ্রমণ:: কবি আবু মকসুদ

প্রকাশিত হলো বহুল আকাঙ্খিত মৃত্তিকার মেঘলা ভ্রমণ
লিখেছেন আমাদের সকলের প্রিয় কবি প্রিয় মুখ কবি আবু মকসুদ। কাব্যগ্রন্থের প্রায় প্রত্যেক কবিতা সিরিজ আকারে আমাদের এই শব্দনীড়েই প্রকাশিত হয়েছে। যার কারণে লিখাগুলোর উপর কবি’র যেমন মায়া রয়েছে তেমনি নিষ্ঠ পাঠক হিসেবে আমাদেরও রয়েছে ভিন্নমাত্রিক এক ভালোবাসা। আমরা অপেক্ষা করেছি অপূর্ব এই সৃজনী কাগজে কালো অক্ষরে প্রকাশিত হোক।

প্রবাসে যিনি খুঁজে ফিরেন দেশ এবং দেশের মাটি। শব্দনীড় এ তাঁর প্রোফাইলে আমরা পাই তারই স্বগোক্তি … কবিতার দিকে তাকিয়ে একদিন দেখেছিলাম সবটুকু টেমস নদীর জল। মনে হয়েছিল, এই জল মনু-খোয়াই-কুশিয়ারা-সুরমা বয়ে এসে যুক্ত হয়েছে এই অববাহিকায়। ঢেউগুলো বাঁক বদল করে। বদলে যায় কবিতাও। আমি আমার কবিতাগুলোতে চলমান সময়ের বিবর্তনকে পরখ করতে চেয়েছি, নিজের মতো করে। বলতে পারি তাতে কোন কার্পণ্য ছিল না।

অক্ষর সমুদ্রে ভেসে যেতে যেতে যে ভালোবাসা তৈরি হয়, সে ভালোবাসা মাটির প্রতি- মানুষের প্রতি। তা নতুন করে বলার কিছুই নাই। যে কথাটি বলতে পারি, পৌষ-মাঘে নদী চরে যে ঘাস জন্মায়, কিংবা দুফসলা জমিতে হয় যে ধানের আবাদ- দুই উত্থানই আনন্দ দেয় কৃষকের প্রাণে। আমার কবিতায় আমি কৃষক হয়েই জোয়াল কাঁধে নিতে চেয়েছি। থেকে যেতে চেয়েছি সময়ের সন্তান হয়েই।

নব্বই দশকের একজন উল্লেখযোগ্য প্রকৃতি কবি আবু মকসুদ। তিনি ‘মৃত্তিকার মেঘলা ভ্রমণ’ কাব্যগ্রন্থে এ রহস্যময় জগৎ নির্মাণ করেছেন খাঁটি আধুনিক কবির দৃষ্টিতে। কবিতা নির্মাণের যে গোপন সূত্র তিনি প্রয়োগ করেছেন তা আপাতদৃষ্টিতে অলঙ্কার বিহীন- উপমা-উৎপ্রেক্ষার ভারে আক্রান্ত নয়। মুক্ত গদ্যে রচিত এসব কবিতার মূল অবলম্বন অতি পরিচিতি শব্দরাশি আর কবির টুকরো টুকরো ভাবনা ও ভাবের চেয়ে ভাবনা প্রধান এসব কবিতা। পাঠ করলে বুঝা যায় যে ভাবনাও একজন কবির হাতে অনায়াসে একটা রহস্যময় জগতে পাঠককে নিয়ে যেতে পারে। পাঠককে অন্যরকম এক মুগ্ধতায় খামচে ধরে।

একজন কবি বলতে যা বুঝায় আবু মকসুদ তারই প্রকৃষ্ট উদাহরণ। তার এ গ্রন্থের কবিতাসমূহে আমি বা তুমির উপস্থিতি নেই বললেই চলে। ব্যক্তি কবিকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না। রুচি ও ভাবনায় একজন পূর্ণাঙ্গ সচেতন আন্তর্জাতিক মানুষ বলেই এভাবে আমিত্বকে অনায়াসে দূরে রাখতে পেরেছেন মকসুদ। সন্দেহ নেই : এটি একজন কবির বড় সাফল্য, যা মকসুদ অর্জন করেছেন প্রজ্ঞাদীপ্ত মননশীলতার নিরলস চর্চার মধ্য দিয়ে। ফলে কবিতাগুলো হয়ে উঠেছে সব বোদ্ধাপাঠকের কবিতা। ভাবনার সঙ্গে ভাবনাকে নিপুন দর্জির মতো সেলাই দিয়ে মকসুদ চমৎকার এক শব্দের নকশীকাঁথা তৈরি করেছেন ‘মৃত্তিকার মেঘলা ভ্রমণ’ গ্রন্থে – যে গ্রন্থ চিরকালীন এক রহস্যের জাল বিস্তার করে যাবে প্রকৃত কাব্য পাঠকের মনে। – আসাদ মান্নান।

মৃত্তিকার মেঘলা ভ্রমণ :: আবু মকসুদ। প্রকাশক : কোরাস পাবলিশার্স
মূল্য : ৮০ টাকা। প্রাপ্তিস্থান : বহেরাতলায় চর্যাপদ এবং উতঙ্ক স্টল।

শব্দতরী, ব্লগারস ফোরাম, লিটলম্যাগ চত্ব্বর
স্টল নং ৩২ অমর একুশে বইমেলা ২০১৪।
ব্লগারস ফোরাম প্রকাশনা’র শব্দতরী ষ্টলে আপনারা সবান্ধবে আমন্ত্রিত। ধন্যবাদ।

GD Star Rating
loading...
GD Star Rating
loading...
এই পোস্টের বিষয়বস্তু ও বক্তব্য একান্তই পোস্ট লেখকের নিজের,লেখার যে কোন নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব লেখকের। অনুরূপভাবে যে কোন মন্তব্যের নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট মন্তব্যকারীর।
▽ এই পোস্টের ব্যাপারে আপনার কোন আপত্তি আছে?

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য বন্ধ আছে।