জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব-এর ব্লগ

জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার নলছিয়া নামক গ্রামে ১০ ই জুন ২০০১ সালে জন্ম গ্রহণ করেন।
তার লেখা গুলো বাস্তব ধর্মীয়। লেখা তার নেশা।
সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে কবিতা লিখতে।

* চরম মুর্খ সেই যে শিক্ষা অর্জন করে নিজের মাতৃভাষা শুদ্ধ ভাবে বলতে পারে না ।
* আমার কাছে আনুষ্ঠানিক শিক্ষা পদ্ধতি থেকে অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা পদ্ধতি শ্রেষ্ঠ।

কর্মের জন্য
থেকো না আর ঘরের কোণে
কাজে লাগাও মন,
কাজে করলে পাবে তুমি
গুপ্ত ওই না ধন। যত থাকবে তন্দ্রা ঘোরে
কেটে যাবে দিন,
বসে বসে বাড়বে তোমার
নিত্য দিনে ঋণ। আলসেমি না করে তবে
কাজের খোঁজে চল
যতই হোক সে কাজটা কঠিন
পাবে সুন্দর ফল। মুক্তা আনতে সাগর জলে
দিতে হবে ডুব,
তা ছাড়া কি মুক্তা পাবে
থাক না পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬৭ বার দেখা | ৫৯ শব্দ
ডাকপিয়ন ও চিঠি
ডাকপিয়ন ও চিঠি
মুঠোফোনের প্রেমে পড়ে
চিঠির চলন নাই,
বসে বসে ডাক পিয়নে
মাগনা হাওয়া খাই। আগের যুগে চিঠির চলন
নেই তুলনা তার,
ক্ষুদে বার্তার জন্য তবে
দেয় না চিঠি আর। সুন্দর ভাষা দিয়ে রে ওই
চিঠি লেখা হয়,
ডাক পিয়নই ডাক ঘরেতে
চিঠিবিহীন রয়। মুঠোফোনে কথা বলা
মুঠোফোনই সব,
বর্তমান ওই চিঠি খানা
রহম করো রব। আগের যুগে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪৫ বার দেখা | ৫২ শব্দ ১টি ছবি
কন্যা সন্তান
কন্যা সন্তান
বাপের বাড়ি যাবার কালে
খুশি কন্যার মন,
কত কিছু ভাবে সদা
শুধুই ক্ষণে ক্ষণ। বাপের গৃহে এলে কন্যার
দৃঢ় মনো’বল
স্বামীর গৃহে যাবার কালে
চোখে আসে জল। সুখে দুখে জীবন তরী
বাপের গৃহে টান,
ঘাত প্রতিঘাত জীবন মুখে
মান আর অভি’মান। বাপের গৃহে থেকে কন্যার
বেলা গেছে ওই,
স্বামীর গৃহে নেইতো কোথা
প্রাণের প্রিয় সই। বাপের পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪২ বার দেখা | ৬০ শব্দ ১টি ছবি
খুলে দাও বিদ্যাপীঠ
মাগো তুমি বলতে পারো
স্কুল কবে খুলবে
গুরুর সাথে সবাই মিলে
নানা ছড়া বলবে। কবে থেকে বন্ধ আছে
ওই না স্কুল কলেজ
তাতে কি মা বৃদ্ধি পাবো
সব শিশুদের নলেজ। ঘরে বসে সময় কাটে
যাই না কভু বেলা,
একা একা করি শুধু
আমি নিজে খেলা। কি যে করি ভেবে না পায়
বলো না মা কিছু,
জ্ঞানে গুণে রয়েছি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪২ বার দেখা | ৫৮ শব্দ
আমার মা
আমার মা ৩৩৩১ মাগো মোর মনে হয়
সাত রাজার ধন
তোমার ওই জন্য মোর
কাঁদে এই মন। ছোট কাল কত খেল
তোমার ওই সাথ,
কাছে মা থেকে ওই
গেছে তো রাত। সুখ দুখে মা তুমি
আলো তো মোর,
আসে ওই যত ঝড়
কাটবে যে ঘোর। বাপ ছাড়া মা সন্তান
মিল করে ভাই, পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮৮ বার দেখা | ৬৪ শব্দ
রাজাধিরাজ
রাজাধিরাজ
জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব ৪৪৪২ ধরা চলে প্রভুর কথায়
বুঝবে সবে কবে,
তার ইশারায় সূর্য ওঠে
মালিক তিনি ভবে। পাখির গানে মুগ্ধ সবাই
সৃষ্টিকর্তার লীলা
ধরার অপার সৌন্দর্য যে
প্রভু ক্যামনে দিলা। তুমি হলে রাজাধিরাজ
সকল কিছুর স্রষ্টা
তোমার দেওয়া বিধানে না
চললে সে পথ ভ্রষ্টা। নিয়ামতের শোকর পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮৩ বার দেখা | ৭১ শব্দ
কবি -২
কবি তোমরা জ্ঞানের প্রতীক ৪৪
তোমায় পেয়ে খুশি দেশ ৪৩
তোমাদের ওই জন্য পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৯ বার দেখা | ১৯০ শব্দ
মা পরম ধন
২৪৪৪ মাগো আমার জান্নাত
হলে তুমি সবার সেরা,
মায়া জালে তোমার
মনটা থাকে সদা ঘেরা। তোমার স্নেহের সাথে
নেই তুলনা কারো কভু
মাকে আমরা সবাই
বাসবো ভালো পণ যে তবু। তোমার পরশ পেয়ে
ধন্য আমি মাগো ভবে
তুমি খুশি থাকলে
সহজে স্বর্গ মিলবে তবে। সুখে দুখে সদা
থেকো মাগো পাশে পাশে,
বলো পৃথিবীতে
কারো দায়ে কে’যে আসে। জীবন সংগ্রামে যে
মাগো একলা পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৩ বার দেখা | ৫১ শব্দ
কবি কাব্য
কৃত্তিকা ছন্দ ৩৩ শব্দ
৪ শব্দ আছে কবি যত – গান লেখে শত
নদী গিরি রূপে শোভা,
নর নারী দেখে -নানা রঙ মেখে
নভে জ্বলে খুব নোভা। নদী বয়ে চলে -জল কল কলে
পাখি গায় কত গান,
ফুল ফুটে আছে – নানা গাছে গাছে
দেখে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৭ বার দেখা | ১১২ শব্দ
অহংকার
অহংকার ওই পতনের মূল
বিজ্ঞ জনে কয়,
অহংকারীর সঙ্গীসাথী
কখনো কেউ নয়। অহংকারের চূড়ায় উঠে
দেখায় কত বল
পরকালে পাবে তুমি
কৃতকর্মের ফল। প্রাচুর্যের ভাই মধ্যে থাকে
যতোই করো ছল,
মৃত্যুর দূতের কাছের তোমার
হবে সবি জল। কর্ম যেমন ফল তেমনি
শাস্ত্র বলে তাই,
ইতিহাস ভাই সাক্ষী আছে
রেহাই তো পায় নাই। সবি ভুলে একত্র হয়ে
গায় মানবের গান,
সকল অহং চুর্ণ পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৩ বার দেখা | ৫০ শব্দ
সোনালী রবি
পুবাকাশে প্রভাতকালে
উঠলো সোনা রবি
চারিদিকে আলো ছাড়ায়
কি অপরুপ ছবি। পাখির ডাকে হলুদ আভা
ভীষণ লাগে ভালো,
একদিন রবি না উঠিলে
ধরা হবে কালো। রবির আলো ঝিকিমিকি
জলের উপর পড়ে,
তাই না দেখে মাছরাঙা ভাই
প্রচুর মাছ ওই ধরে। ঘাসের বুকে শিশির কণা
প্রভাতকালের আলো,
কবির লেখা কাব্য খানি
ভীষণ লাগে ভালো। রচনাকালঃ
১৬/০৭/২০২১
৪৪/৪২ পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩৮ বার দেখা | ৩৮ শব্দ
সত্যের পথে
মিথ্যা ছাড়ো সত্য ধরো
নইলে মিথ্যায় পুড়ে মরো
আখের হবে ভার,
সত্যের পথটি ধরে রাখো
জনম জনম সুখে থাকো
তবেই হবে পার। সত্যের পথে শান্তি মিলে
মিথ্যার পথে ভয়’যে দিলে
মনটা কাঁপে আজ,
ধরার বুকে সত্য হলো
মিথ্যার চেয়ে ভীষণ ভালো
নেই বলতে আর লাজ। ধরার যত সাধু লোকে
সত্যের পথে তারা থাকে
করে না তো ভুল,
ধরার বুকে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৬ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
শুধুই প্রিয়ার জন্য
শুধুই প্রিয়ার জন্য
হৃদয় কোণে আমার আশা
শুধু প্রিয়ার জন্য
প্রিয়াকে যে কাছে পেলে
জীবন হবে ধন্য। হৃদয় কোণে প্রিয়ার জন্য
গভীর ভালো’বাসা,
জীবন আমার পূর্ণ হবে
মিটলে মনের আশা। তোমার কথা প্রিয়া আমার
খুবই পড়ে মনে,
সাঁঝ প্রভাতে সন্ধ্যা রাতে
ভাবি ক্ষণে ক্ষণে। হৃদয় জুড়ে প্রেম বিরহের
জ্বলছে সদা আগুন,
কেন সেকালে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২৭ বার দেখা | ৫২ শব্দ ১টি ছবি
পরচর্চা
নিন্দা করা নিন্দুকের কাজ
এমন করেই চলে ধরা,
নিন্দুকের ওই নিন্দার ফলে
শুদ্ধ হয় ভাই জীবন তরা। খুটিনাটি ভুল করলে ভাই
নিন্দুকের ওই চোখে পড়ে,
শুদ্ধিকরণ পুরো জীবন
থাকবে জনম জনম ভরে। বিনা মূল্যে ময়লা ধুয়ে
নিন্দুক করে পবিত্র ভাই
তাহার মতো আপন স্বজন
পৃথিবীতে কারো তো নাই। নিন্দা করবে নিন্দুক ভাই
এটাই রীতি জগৎ মাঝে,
তোমার আমার পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৭ বার দেখা | ৬৩ শব্দ
সাম্য
ভেদাভেদ যে চাই না আমরা
জীবনে চাই সুখ
মিলেমিশে থাকলে পারে
আসবে নাকো দুখ। জাত্যভিমান যুদ্ধের কারণ
পেটে নাইরে ভাত,
এমন করে যায় না তবু
কোনো দিবস রাত। মুচি কামার কুমার জেলে
সবাই মানুষ ভাই,
তাদের মতোন দেবতুল্য
ধরার বুকে নাই। মানুষ মানুষ নেইকো তফাৎ
কিসের দ্বন্দ্ব আজ,
বসে বসে জাতের আলাপ
নেইকো কোনো কাজ। ধর্মের বিশ্বাস সবার সমান
ফারাক নেই পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৪ বার দেখা | ৫০ শব্দ