জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব-এর ব্লগ

জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার নলছিয়া নামক গ্রামে ১০ ই জুন ২০০১ সালে জন্ম গ্রহণ করেন।
তার লেখা গুলো বাস্তব ধর্মীয়। লেখা তার নেশা।
সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে কবিতা লিখতে।

* চরম মুর্খ সেই যে শিক্ষা অর্জন করে নিজের মাতৃভাষা শুদ্ধ ভাবে বলতে পারে না ।
* আমার কাছে আনুষ্ঠানিক শিক্ষা পদ্ধতি থেকে অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা পদ্ধতি শ্রেষ্ঠ।

বাদলা দিন, রাজাধিরাজ
বাদলা দিন
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ বাদলধারা করছে তাড়া
এলো আষাঢ় বলে,
খেলবো খেলা গানের মেলা
আয় রে দলে দলে। বৃষ্টি ভেজা ভীষণ মজা
লাফালাফি জলে,
তরী নিয়ে ভাসতে গিয়ে
নানা খেলার ছলে। কৃষকের ধান সহর্ষে গান
মনটা ভীষণ বলে,
বাদলা দিনে পেটের ঋণে
থাকলে বসে চলে। কদম কেয়া ডাকে দেয়া
ব্যাঙের বাদ্য দলে,
দলে দলে তারা চলে
ডোবা নদের জলে। মেঘের পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২২ বার দেখা | ১০৬ শব্দ
কবির প্রেম, কবি
কবি প্রেম
স্বরবৃত্ত ছন্দ ৪৪/৪২ কলম খাতা হাতে নিয়ে
কবি ভেবে সারা,
ভালোবাসা বইয়ের সাথে
জাতির দর্পণ তারা। কবির প্রেমটা বইয়ের সাথে
লেখেন কাব্য কত
তাহা পড়ে ভালো লাগে
সবার শত শত। কবি ছাড়া কবিতা তো
নয়তো কারো সৃষ্টি,
কবির লেখা কবিতা টা
জাতির শুভ কৃষ্টি। স্মৃতির পাতায় নেমন্তন্ন
কবির মনের কথা,
তাহা লিখতে জাগে কবির
হৃদয় ঘোরে ব্যথা। কবির সৃষ্টি অমর পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৬ বার দেখা | ২১৭ শব্দ
কেমন সময় মাগে, মা পরম ধন
কেমন সময় মাগো
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৫৫/৫২ মাগো তুমি কি বলতে পারো
করোনা যাবে কবে
মুক্ত ভাবে মানুষ দেশে
নানান বেশে রবে। শহর খানি ফাঁকা জায়গা
নেই কোথায় কেউ
মাগো আবার আসবে বলে
করোনা দুই ঢেউ। নেইতো কারো মা মুখে হাসি
সদা মলিন মুখ,
সবার ঘরে নেই অন্ন
পাবে কি তারা সুখ। হতাশা নিয়ে জীবন চলা
যায় কিরে মা পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৪ বার দেখা | ১১৪ শব্দ
সেই মেয়েটি ও কবি কাব্য
সেই মেয়েটি
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
কৃত্তিকাছন্দ ৩৩
৪ শব্দ আজি আমি জানি – প্রাণ সাথী মানি
সদা হাতে রেখে হাত,
প্রাণ পাখি তুমি -সদা আমি চুমি
কেটে যাবে শত রাত। এক সাথে থাকি – চোখে চোখ রাখি
সদা ভাবি তোমা পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৬ বার দেখা | ১৯৮ শব্দ
প্রতীক্ষিত পাখি ও অহংকার
প্রতীক্ষিত পাখি
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ আমি যাকে ভালোবাসি
তার আশাতে থাকি,
কাতর স্বরে বিজন ঘরে
তারে আমি ডাকি। যার আশাতে প্রতি প্রহর
দুয়ার খুলে রাখি,
যার ফোনের ওই কলের জন্য
রাত জাগা ওই পাখি। বিজন ঘরে একলা বসে
ভাবি পাখির কথা,
কথা ছিলো আসবে বোলে
দিলো প্রাণে ব্যথা। প্রতীক্ষিত পাখির কথা
পড়ে শুধু মনে,
কেন সে যে এমন করে
ভাবছি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪ বার দেখা | ১০৯ শব্দ
শরৎকাল ১ও২
শরৎকাল
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ নীল আকাশে মেঘের ভেলা
আপন মনে করছে খেলা
থাকতো যদি ডানা,
যেতাম উড়ে মেঘের বুকে
ঘুরতাম সেথায় মনের সুখে
থাকতো নারে মানা। শিউলে ফুলে গন্ধ ভরা
মনে ভীষণ খুশির ছড়া
বলে বলে চলি
রোজ প্রভাতের হিমেল হাওয়া
বসে আছি বাড়ির দাওয়া
নানা গল্প বলি। শিশির কণা ঘাসের বুকে
পড়ে আছে মহাসুখে
তেমনি যদি পড়তাম
ইচ্ছে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯ বার দেখা | ১০৪ শব্দ
বীর ও জীবনমুখী
বীর
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪১ বীরত্ব যার যুদ্ধে ক্ষেত্রে
নয়তো আসল বীর,
রাগের সময় রাগ দমিয়ে
উচু রাখে শির। অতি রাগে ক্ষতি আসে
বিজ্ঞজনে কয়,
অতি রাগলে সেইজনই তো
গভীর জ্ঞানী নয়। রাগের ফলটা বড় কঠিন
জানে সবাই ভাই,
রাগের মতো বড় পাষাণ
আর তো কিছু নাই। যুদ্ধে ক্ষেত্রের বীরত্বের তো
অতি সহজ কাজ,
রাগ দমাতে গেলে মাথায়
ভেঙে পড়ে বাজ। আগুন পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৪ বার দেখা | ১০৫ শব্দ
শ্রাবণের বৃষ্টির দিন ও সোনালী রবি
শ্রাবণের বৃষ্টির দিন ও সোনালী রবি
শ্রাবণের বৃষ্টির দিন
৪৪৪২ স্বরবৃত্ত ছন্দ শ্রাবণের ওই সন্ধ্যা বেলা ফুলের সৌরভ মনে
গৃহবধূ প্রদীপ হাতে যায় রে ক্ষণে ক্ষণে।
সন্ধ্যা বেলায় নানা খেলা সাথে পাখি ডাকে
গভীর রাতে জোনাক জ্বলে শেয়ালেরা হাঁকে। সন্ধ্যা বেলায় ঝিঁঝির ডাকে মনটা ভীষণ ভালো
আঁধার পথে চলে বধু সাথে জোনাক আলো।
ফুলের পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৮ বার দেখা | ১৫৭ শব্দ ১টি ছবি
জীবন তরী ও সত্যের পথে
জীবন তরী
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ সুখের দুখের জীবন তরায়
একই সঙ্গে থাকে,
লোকের মুখের একটা বুলি
দুঃখ পুষে রাখে। জীবন নদে নৌকা বয়ে
সতত তারা চলে,
নানা জনের নানা বুলি
কিছুই না’রে বলে। দীর্ঘদিনে একসঙ্গে
থাকে দু’জন তারা,
একে অন্যের মনের কথা
বলে হয় যে সারা। কখন গেছে কেমন দিবস
জানেন যে দুজনে,
সেই সব কথা বলে বলে
ভাবে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭৫ বার দেখা | ১২৫ শব্দ
কলমের আত্মকাহন ও শুধুই প্রিয়ার জন্য
কলমের আত্মকাহন
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৬৬৬২ মাত্রা বৃত্ত আমি তো কলম লিখি মানবের সব বিরহের কথা
যাহা লিখিতে যে আমার হৃদয় কোণে লাগে শুধু ব্যথা।
আমার জন্ম ইতিহাস হেন গরবের নয় ভাই,
আমাকে মানুষ প্রয়োজন ছাড়া ব্যবহার করে নাই। আমি তো সবার কথাই লিখেছি স্ব কিছুই লিখি নাই
ভেবেছি লিখবো নিজের পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৭ বার দেখা | ২০১ শব্দ
স্বার্থপর ও পরচর্চা
স্বার্থপর
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ মানুষ ছুটছে স্বার্থে পিছু
এই না ধরার বুকে,
পাপের টাকায় সবি করে
থাকতে চাই যে সুখে। পাপের ফলে নষ্ট ধরা
লোভী হলে পাপী,
স্বার্থের পিছু হাটে তারা
চায় না’তো ভাই মাফি। আপন স্বার্থের জন্য মানুষ
খুন সংঘাতে মাতে,
মৃত্যু হলে যেতে হবে
শুধুই খালি হাতে। কিসের জন্য স্বার্থের পিছু
পাগল হয়ে ঘোরো,
ভালো পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১ বার দেখা | ১২৩ শব্দ
শুধুই আশা ভালোবাসা ও মৃদুস্বরে হাসি
শুধুই আশা ভালোবাসা ও মৃদুস্বরে হাসি
শুধুই আশা ভালোবাসা
৬৬/৬২ হৃদয়ের কোণে – প্রতি ওই ক্ষণে
ফাগুন কাঁদিছে ওই
নিরালয়ে বসে -মন খুশি হাসে
প্রাণ চাই সদা সই। মনের আগুন -আগত ফাগুন
ফোটে ওই নানা ফুুল,
শুধু ভালোবাসা – মনে বেশি আশা
সহে না’তো কোনো ভুুল। পাখিদের সাথে – ভালো তবিয়তে
মন গাহে কত গান,
পাশে পাশে থাকি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯১ বার দেখা | ১৩৫ শব্দ ১টি ছবি
ইচ্ছে খুশি ও বাংলার নারী
৫৫/৫৪ ছোটন সোনা বায়না ধরে
ইস্কুলে সে যাবে তাই
করোনারই দরুন ভাই
ইস্কুল তো খোলা নাই। ছোটন সোনা চাঁদের কোণা
শিখবে ভাই লেখাপড়া,
ইচ্ছে তার জানবে সে যে
জানা অজানা পুরো ধরা। মহামারি ও দরুন দেশে
লকডাউন নেই শেষ,
ছোটন সোনা বলে সতত
ইস্কুলে যে যাবো বেশ। শিক্ষা থেকে ছিটকে গেছে
ধরার সব ভাই শিশু,
বায়না বড় ছোটন সোনা
ঘোরে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৭ বার দেখা | ১১৯ শব্দ
ধনী ও দরিদ্র, দূষিত পৃথিবী
৪৪/৪২ দরিদ্র কয় ও ধনী ভাই
আছিস সুখে তোরা,
খাদ্য বিহীন উপোস থাকি
দরিদ্র যে মোরা। সুখের সাথে তোদের কাটে
দিন যে কত ভালো,
দুখের সাথে জীবন কাটে’
কষ্ট ভীষণ কালো। একটু খাদ্যের জন্য মোরা
কষ্ট করি কত,
মন খুশিতে নষ্ট করে
খাদ্য শত শত। অট্টালিকার উপর বসে
মন খুশিতে হাসি,
নিত্য দিনে মোদের জন্য
খাদ্য পঁচা বাসি। এভাবেই তো জীবন পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩ বার দেখা | ১৭২ শব্দ
শ্রেষ্ঠ নেতা ও রক্তাক্ত আগস্ট
৪৪/৪২ মুজিব হলো শ্রেষ্ঠ নেতা
বাঙালির ওই জন্য,
মুজিবকে যে পেয়ে জাতি
জীবন তবে ধন্য। মুজিব হলো বাঙালির ওই
স্বাধীনতার জনক,
তার ইতিহাস ওই জগৎ জুড়ে
করছে মাইল ফলক। মুজিবের ওই নেতৃত্ব ভাই
মুক্ত হলো ভূমি,
মুজিব হলো নক্ষত্র তুল
তোমায় সবাই চুমি। তোমার জন্য দেশের মানুষ
স্বাধীন ভাবে চ’লে,
মুজিব হলো জাতির পিতা
সারা বিশ্ব ব’লে। হাজার বর্ষের শ্রেষ্ঠ তুমি
তুমি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬ বার দেখা | ১১৬ শব্দ