ইন্দ্রাণী সরকার-এর ব্লগ
স্বর্গীয়
পাখিদের গান দূরে মিলিয়ে যায়
সন্ধ্যার গাঢ় আঁধার ছেয়ে আসে
নদীর জলে ভেসে যায় ডিঙি নৌকা
জলে ছলাৎ ছলাৎ শব্দ শোনা যায়
তিরতির করে বয়ে চলা নদীর জলে
মৃদুমন্দ ঢেউ, বাতাস এসে ছুঁয়ে যায়
রাতের আকাশে তারার শয্যা পাতা
চোখে মায়াকাজল এঁকে ঘুমন্ত চাঁদ
বাইরে অলৌকিক অপার নিস্তব্ধতা
নির্জনতা উপচে পড়ে স্বর্গের শান্তি। পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২২ বার দেখা | ৪৪ শব্দ
আমি বিবর্ণ ফুলই ভালোবাসি ... রবার্ট ব্রিজেস
অনুবাদ – ইন্দ্রানী সরকার। আমি বিবর্ণ ফুলগুলিকেই ভালবেসেছি
সেইসব ফুল যাদের জাদুকরী তাঁবুতে
সুমিষ্ট গন্ধের স্মৃতি এখনো বিদ্যমান ।
সেইসব ফুল যা দেখা মাত্রই
মধুচন্দ্রিমা আনন্দে ভরে ওঠে,
ভালোবাসার খুশি উচ্ছ্বল হয়ে ওঠে ।
কিন্তু কিছুক্ষণেই সেইসব ফুল
বিবর্ণ হয় যেমন আমার গান হয়ে যায় । সেইসব বাতাস যারা আকাশে বৃষ্টির ফোঁটা
হবার আগেই পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ২০০ বার দেখা | ১১১ শব্দ
অভিযান
অভিযান
রাতের তারারা জ্বলজ্বল করে আকাশে
চাঁদের আলো মেঘের ফাঁক দিয়ে উঁকি মারে।
পাইন গাছের মাথায় বাতাসের কারচুপি
গাছের ছায়া পড়ে বাড়ির চালে আর আশেপাশে। তিরতির বয়ে চলা নদীর জলে মৃদুমন্দ ঢেউ
পার্শ্ববর্তী শহরের আলোয় চিকচিক করে।
এমনি একটি রাতে তোমার হাত ধরে হেঁটে গেছি
অনেক দূর দেবদারু পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৩৪ বার দেখা | ৫৬ শব্দ ১টি ছবি
সুরের লহমায়
সুরের লহমায়
রূপক রাগে যে মীড়ের অলংকার ছিল
তা কোনো পাখির পালকে আঁকা রং,
সুরের লহমার মত আবেশে জড়ায়। পাখির গান মিলিয়ে যায়
সন্ধ্যার আঁধার ছেয়ে আসে
নদীর জলে ভেসে যায় ডিঙিনৌকা। ছায়ার মত অনুসরণ করে ভালোবাসা
অগণিত তারার ভিড়ে মিলিয়ে যাওয়া মুহূর্ত। পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | ১২২ বার দেখা | ৩৪ শব্দ ১টি ছবি
মরসুমি
মরসুমি ফুলের বাগান দিয়ে
মেয়েটির যাওয়া আসা।
দূরে সাতকাহনের পাড়া,
চত্ত্বর ভরা ঝুমকোলতার টিপ্,
বালুকাবেলায় পড়ন্ত আলো। রাস্তার দু’ধারে মোরগফুলের ঝাঁক
আলো নিভু নিভু হয়ে আসে,
মেয়েটির ত্র্যস্ত পায়ে নূপুরের নিক্কণ।
ভেসে আসে শঙ্খের আওয়াজ
সে বাড়ির পথে ক্রমশ মিলিয়ে যায়। পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫২ বার দেখা | ৩২ শব্দ
অবহেলে
সব প্রাপ্য পাওনা মাথায় তুলে নিয়েছি প্রিয়
তুমি আছ কি নেই আমার জীবনে আর ভাবি না
তবু তোমার না থাকা জুড়ে কিছু স্মৃতি রয়ে গেছে। তোমার নতুন আগার সুখ শান্তিতে ভরে থাকুক
তুমি খুব দ্রুত আমায় ভুলে যাও তাই আমি চাই
কি করে একটা মানুষ আর একটা মানুষকে
ভালোবেসে অবহেলে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৬ বার দেখা | ৫৩ শব্দ
করোনা দূষণ
গ্রাম্ভারি হয়ে সর্বজ্ঞের মত দিনরাত বসে থাকি
পাতাল খুঁড়ে বের করে আনব কবিতার রসদ
ফুলে ফলে শস্যে ভরে যাবে আমার কবিতার ময়দান
বন্ধুকে এই মাঠে কবেই পিঠ দেখিয়েছি আমার অমলিন জীবন ইতিহাস
বন্ধুর ছোঁয়ায় পাছে দূষিত হয় তাই ছয় ফুট দূরত্ব রাখি। পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬ বার দেখা | ৪১ শব্দ
নীল সামিয়ানা
নীল সামিয়ানা
আকাশের নীচে নীল সামিয়ানা
নীল আকাশের রং হয়ে তুমি আসো আমার ঘরে
পায়ে লেগে থাকে কচি ঘাসের সবুজ
অনেক গাঢ় করে যখন কাজল পড়িয়ে দাও
দুচোখের জল টলমল আরশির মত শুকতারা হয়। তুমি কি জানো কত সুগন্ধি লেগে থাকে
তোমার ওই মোহময় মৃদু স্পর্শে? কত রহস্য থাকে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩ বার দেখা | ৬০ শব্দ ১টি ছবি
এক বিকেলের দেখা
মরসুমি ফুলের বাগান দিয়ে
মেয়েটির যাওয়া আসা।
দূরে সাতকাহনের পাড়া,
চত্ব্বর ভরা ঝুমকোলতার টিপ,
বালুকাবেলায় পড়ন্ত আলো। রাস্তার দু’ধারে মোরগফুলের ঝাঁক
আলো নিভু নিভু হয়ে আসে,
মেয়েটির ত্রস্ত পায়ে নূপুরের নিক্কণ।
ভেসে আসে শঙ্খের আওয়াজ
সে বাড়ির পথে ক্রমশ মিলিয়ে যায়। পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৮ বার দেখা | ৩৩ শব্দ
খুঁজে পেলাম
খুঁজে পেলাম তোমায় দেবদারু বনে
বাঁশি নিয়ে মেঠো সুরে তান তোলো।
সুরের মূর্চ্ছনায় ভরে যায় চারিপাশ
পাশে দাঁড়ালে মৃদু হাসি খেলে যায়
তোমার চোখে, মুখে, সারা শরীরে। হাওয়ার তালে চুল হয় এলোমেলো
আমার হাত দুটি ধরে পাশে বসিয়ে,
ফের মেঠো সুরে ভরাও আমার মন
ধানের শীষে পড়ুন
কবিতা | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১ বার দেখা | ৫৩ শব্দ
আচ্ছাদন
আচ্ছাদন
গায়েতে জড়িয়ে গেছে উলের মত মায়া
চাদরের মত ভালোবাসা সান্ত্বনায় ঢেকে রাখে,
কোনোদিনো তাকে পাবেনা জেনেও। মুখের কথা আর সরে না
আঘাত পেয়ে পেয়ে ভয়ে শুধু জড়োসড়ো।
কোনোদিন ধানসিঁড়ি নদীতে হয়তঃ চিল উড়েছিল
এখনো তার কান্নার রেশ বাতাসে জড়িয়ে আছে। রাখালিয়া সুর দূরের মাঠ থেকে ভেসে আসে
সে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৪ বার দেখা | ৭৬ শব্দ ১টি ছবি
প্রত্যয়ী মন
অলীক ভাবনায় আচ্ছন্ন মনের কোণে
হঠাৎ নতুন আশার বিজলি হেনে যায়।
মন মৃদু হেসে বলে, জানো না, তোমায়
গান শোনাব তাই আমার সকল নিয়ে
বসে থাকা তোমার তরে আমার তুমি। চমকে তাকাই বাইরে, যেন তোমার
অঙ্গের আভাস, কিন্তু না, কান্না হাসির
দোলায় বুঝি সব দারিদ্র্য ঢেকে যায়
তোমায় পাওয়ার অপরূপ ঝর্ণাধারায়
পুনরায় সজীব পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯ বার দেখা | ৪৮ শব্দ
আহা বৃষ্টি
আহা বৃষ্টি
বৃষ্টি এল এই অরণ্যে
উঁচু উঁচুপাইনের মাথা
হাওয়ায় দুলতে থাকে ঘাসে ঘাসে চিকচিকে
জলের অজস্র ফোঁটা
এক হয়ে মাটি ভেজায় কতদিনের শুকনো মাটি
চাতকের মত চেয়ে থাকে
ভিজে সতেজ প্রাণস্পর্শ দোয়েল শ্যামা সুর ধরেছে
রাস্তাঘাট জলে ডুবু ডুবু
উষ্ণতা থেকে শীতলতা পাহাড়ের ঢালু পথ চিরে
নেমে এসে জলের ধারা
পদ্ম শালুক হাসি ছড়ায় পানকৌড়ি আর পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৮ বার দেখা | ৪৯ শব্দ ১টি ছবি
নীলকণ্ঠ
নীলকণ্ঠ
রাত্রির নির্জনতায় বাঁশপাতা কেঁপে কেঁপে ওঠে
শিরশিরে হাওয়ায় কিছু শব্দের হালকা প্রতিধ্বনি
রাতপাখিদের ডানায় ডানায় একরাশ ঘরে ফেরা
নদীর পাড়ে হু হু বাতাস কপাল ছুঁইয়ে ভালবাসে
তখনি কি তুমি আসো ধীর পায়ে অতি নির্জনে ? চেনা পথটার ধার দিয়ে চুপিসারে পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৮ বার দেখা | ৬৮ শব্দ ১টি ছবি
দিনান্ত শেষে মেঘমালা
দিনান্ত শেষে মেঘমালা
হেমন্তের বিকেলের ডিম রাঙা সূর্য্য
পাইন বনের ওপারে দীর্ঘ ছায়া ফেলে
সমুদ্রের জলের আয়নায় মুখ দেখে।
তখন নিঃ স্তব্ধতা, কচি পাতার ঘ্রাণ,
কালপুরুষের দীর্ঘ ছায়া আকাশ পারে
ম্লান হয়ে আসে ধূসর বিকেল পেরিয়ে। দূরে বৃহৎ গাংচিলের ডানার শব্দ
পতঙ্গদের কান্নার মত ক্রমশঃ বিস্তৃত হয়।
জলপাই রঙের মেঘ আকাশে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪ বার দেখা | ৫৭ শব্দ ১টি ছবি