ইন্দ্রাণী সরকার-এর ব্লগ
বলে দাও আমি কি নিয়ে কথা বলব?
বলে দাও আমি কি নিয়ে কথা বলব ?
বলে দাও আমি কি নিয়ে কথা বলব ?
উর্দু কবিটি যখন জানলার সামনে দাঁড়ায়
তখন তার অনুচ্চারিত স্নেহ আর তার প্রতি
আমার তৎসহ অন্য কবিদের দুর্ব্যবহারের
কথা মনে হয়, ছেলেটিও একটু অদ্ভূত।
চিরকাল তার প্রেমিকা দুটি ছোবল মেরে গেছে,
কি কষ্ট দিয়েছে কি বলি, পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ৪০ বার দেখা | ৭০ শব্দ ১টি ছবি
সংক্ষিপ্ত পরিচয়
সংক্ষিপ্ত পরিচয়ের মানুষ, কদিনের
আগে পরিচয় বুঝি নি।
একা পাশে থেকে একাঙ্ক নাটক করেছে
জানি না তাতে কে কতটা পর্যুদস্ত হয়েছে।
স্বল্পভাষী মানুষ বহুদিন পর ধরা দিল।
মায়ায় ভরা শরীর, এককালীন দস্যি
ভাইকে স্নেহের চোখে দ্যাখে, অহিংসা ধর্ম।
যে টুকু বলে কয় তার ভালোর জন্যই বলে।
নিজের মানুষটি সরে পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৬৭ বার দেখা | ৬২ শব্দ
বসতি
বসতি
পাহাড়ের স্নেহ আঁকতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলি
দিগন্ত বিস্তৃত ক্ষেত, মাঝে মাঝে জলে ডোবা ধানজমি
আর পানের বরজ, আলের পথ পেরিয়ে দেখি পাহাড়।
কোনো ভাষা নেই, চলন নেই, কখনো সখনো ধস নামে।
কিছু বিলাসী বা ঘরহারা মানুষদের পাহাড়ের কোলে বসতি।
দূরে বৃক্ষের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৪৪ বার দেখা | ৫৪ শব্দ ১টি ছবি
অভিধান
অভিধান বিচিত্র মানসিকতায় থাকি
একটা শকুন, একটা পেঁচা
আর একটা চিল —
অনুশোচনা শব্দটি অভিধানে
রাখি নি বা প্রকাশ করি না। কাউকে ছুঁতে না পারার বিষ
সবার মনে ঢেলে দিই,
সংক্রামক রোগের মত সেগুলো
এক মানুষ থেকে অন্য মানুষে ছড়িয়ে পড়ে,
শেষমেষ সবাই চুপ করে যায়
আমরা করি না। একটা কানা ছেলে,
তিন চারটে অভিনেতা, কিছু গায়ক,
যাকে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪৫ বার দেখা | ৫৬ শব্দ
আগমনী
আগমনী
পূজোর মরশুমে নাচে ঢাক ঢোল ঘন্টা
তাই দেখে বেজে ওঠে নিদারুণ মনটা।
জগজ্জননী মাতার সবেতেই লক্ষ্য
জানা নেই কবে তিনি কার নেন পক্ষ।
প্রণাম মাত: তব চরণে রাখি পুষ্পাঞ্জলি
তুমি না রক্ষিলে সন্তানের আকুলি বিকুলি।
পদ্মিনী শঙ্খিনী তুমি, নও কভু হস্তিনী
তব নামে চরাচরে ছুটে আসে আগমনী। পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬০ বার দেখা | ৪০ শব্দ ১টি ছবি
নই মায়াবিনী
নই মায়াবিনী
রেশমী জরীতে জড়ানো বেনী চোখেতে টানা সুরমারেখা
কপালের মাঝে উজ্জ্বল তারা
ছলছল মেঘ চুপিসারে বলে,
কে তুমি মায়াবিনী মেয়ে ? চপল আঁখি দুটি বড় উজ্জ্বল ত্র্যস্ত চাহনিতে একরাশ কথা;
ময়ুরকণ্ঠী রাঙা শাড়ি পরিধানে,
জোছনা আকাশে সপ্তর্ষি শুধায়,
কে তুমি মায়াবিনী মেয়ে ? ভেজা বাতাসে কাঠচাঁপা সুবাস
জুঁই চামেলীতে ভরা পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১৬ বার দেখা | ৭৩ শব্দ ১টি ছবি
চাঁদের অপেক্ষায়
চাঁদের অপেক্ষায়
মেয়েটা নদীর ধারে বসে
অপেক্ষা করছিলো চাঁদের
আজ শুক্লপক্ষ তবুও
চাঁদটা ঘুমিয়ে রয়েছে। আকাশের আলো আঁধারি
ক্যানভাসটায় আঁকিবুকি কেটে
কিছু পাখি উড়ে চলে গেল।
চাঁদের তবু খবর নেই। ফুলের সুরভিতে বাতাস মম
মাতাল হওয়ার ফিসফিসানি
নদীর জলে মেঘের ছায়া
চাঁদ কি আর উঠবে না ? হঠাতই আকাশে চাঁদ দিল উঁকি
লজ্জাবতী মেয়ের মত
গাড় পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২০৩ বার দেখা | ৭৩ শব্দ ১টি ছবি
মৃত্তিকানদী
মৃত্তিকানদী
মৃত্তিকানদী অন্তিম শয্যায় যেন শায়িত
একমাত্র সন্তান ফেলে যেতে হবে
তবুও শেষ কামড় বসিয়ে দেয় হলুদ চন্দনে
সন্তানের জন্মদিনে চন্দন এঁকে দিতে পারে নি
দেবাংশীর অন্ধকার বলে কিছু নেই, কোনো লালসা নেই
তবু কর্কটে আক্রান্ত সন্দিগ্দ্ধ মন
ফেলে যাওয়া মানুষদের শুভবিচার না করে
শেষ ছোবল দিয়ে যায় পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩৬ বার দেখা | ৯১ শব্দ ১টি ছবি
পরশপাথর
পরশপাথর
মায়ামুকুরে প্রতিফলিত প্রতিবিম্বে অহরহ কাকে দেখি ?
যেন দুর্বোধ্য কোনো যন্ত্রণা সহস্র বছরের
মহেঞ্জোদরো সভ্যতার নীচে ঢাকা !
এবার ম্লান মুখগুলিতে হাসি ফোটানোর সময় এসে গেছে
জ্যেষ্ঠদের আশীর্বাদ মাথায় ঝরে ঝরে পড়ে।
পরশপাথর চাই কোথায় পাব ?
নিজেকে নিজে বার বার শব্দজগতে ফিরিয়ে আনি।
রূপ কথা বল, পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪০ বার দেখা | ৫৮ শব্দ ১টি ছবি
পরিচয়
পরিচয়
মোমের কোনো ভঙ্গি নেই
তাই স্তব্ধতারও নিজস্ব কোনো আকার নেই
পরস্মৈপদীতে বেঁচে থাকা
পিতৃমাতৃপরিচয়ও ভুলে থাকা
পিলসুজের ঘি ফুরিয়ে যায় অন্যত্র পাবার সংস্থান করি
আসলে পরিচয় নামক অলংকার
বহুদিন আগে থেকেই জলাঞ্জলি দিয়েছি
শ্বাদন্ত বার করে বা লুকিয়ে
ধারালো চোখে একলা তরবারির খোঁজে নিম গাছ হয়ে যাই
তেমনি তেঁতো পড়ুন
কবিতা | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮৮ বার দেখা | ৪২ শব্দ ১টি ছবি
ঋণ
চালসে পরে আছে চোখে
কাজলটাও তেমন যত্ন করে
পরাতে পারি না, হাত কাঁপে
শোনো তুমি এত কেঁদ না
তোমাকে আমি চিনি না
চেনা দিয়ে যাও কখন সখন
নয়ত আমার হাত এগোয় না
আজানুলম্বিত আমার হাত
বিবর্তনবাদ ঠিক মত মানতে
পারি নি হয়ত, তাই পরিবর্তনশীল
জগতে আজও বেমানান
ভয় কি এসো, না হয় সুরমাই
এঁকে দেব, কাজলের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২২ বার দেখা | ৫১ শব্দ
যখন তুমি আসো
যখন তুমি আসো
ভেজা শিশিরের টুপটাপ ছন্দ নিয়ে
যখন তুমি আসো
তোমার পায়ে জড়িয়ে ধরে কুয়াশার
কাজল কালো ঋণ
তোমার গা থেকে খসে খসে পড়ে
এক একটা মাণিক
তোমার হাসির ঝিলিকে বেজে ওঠে
নূপুরের সুরেলা বীণ
হাতের মুঠোয় একরাশ জোনাকির
আলো জ্বেলে নিয়ে
রোজ সকালে যখন আমার জানলা
ছুঁয়ে দিয়ে যাও
তখনো তোমার দুচোখের পাতায় পড়ুন
কবিতা | ১০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮৭ বার দেখা | ৫০ শব্দ ১টি ছবি
নিষ্ঠুর বকরাক্ষস
চেনা ছেলে মেয়ে পেলেই
টোপা কুলের মত আমার হাত থেকে কেড়ে নিয়ে
নিজের পকেটে পুরে রাখে।
তাদের এতটুকু আমার কাছে পাঠায় না। অথচ ওরা সব আমারি লোক
লোভ দেখিয়ে কেড়ে নিয়েছে। সমস্তটা দিন রাত ধরে ভেস বদলে বদলে
এক একটা লোক পকেট থেকে বার করে
তার মুখোশ নিয়ে এখানে বসে বসে মজা পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৭ বার দেখা | ৫১ শব্দ
ঈশ্বরপর্ব
ঈশ্বরপর্ব ঈশ্বর গঙ্গাস্নানে হরিদ্বারে যান
ধূলি পায়ে একাকী পথে পথে ঘুরে বেড়ান
ঈশ্বর চিঠি লিখে পোস্টারবোর্ডে টাঙিয়ে বলেন,
আর কতদিন এমন একা একা থাকব,
এইবার তুমি আমার হয়ে যাও গো ! এই বলে তিনি ধ্যানস্থ হয়ে লোটা কম্বল নিয়ে
মাদুরে শয়ন করেন, লোকে ভাবে,
উরিব্বাস ! কত কিছু হচ্ছে গো তাঁর ওনার পড়ুন
কবিতা | ১১ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৮১ বার দেখা | ৫৯ শব্দ
মাত্র অনুলিপি
মাত্র অনুলিপি পূর্ণিমার আলোয় ঋষি তাকিয়ে থাকেন সুদূর আকাশে
সেই দৃষ্টিতে ত্যাগ আর বৈরাগ্য পরিস্ফুট
পাশেই স্বাতী, অনুরাধা, পুষ্যা, রোহিনী আদি
বৈরাগ্যময় ঋষি একটি ঠিকানা দেওয়া পাখির চিন্তায় মগ্ন
পাশে তার শুষ্ক ইউক্যালিপটাস
সে রাতের শিকারী পাখিটির আশ্রয়স্থল
সামনে তার যেন একটি আয়না
সেই আয়নায় চোখ রেখে তিনি দেখেন
ঠিকানা না দেওয়া একটি পড়ুন
কবিতা | ১০ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৭২ বার দেখা | ৫৯ শব্দ