গোলাম কিবরিয়া সৌখিন-এর ব্লগ

গোলাম কিবরিয়া সৌখিন। চট্টগ্রামে ২০০৩ সালের ১০-ই অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। তবে তিনি বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার, কসবা উপজেলায় সপরিবারে নিজ গ্রামে অবস্থান করছেন এবং পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন। উনি শৈশব থেকেই ভাবুক ও দার্শনিক চিন্তা করতে পছন্দ করেন।আর সেই ভাবনার প্রতিফলন হিসেবে কবিতার হাতেখড়ি শুরু। কবি শুধু লিখে যেতেই চান না, তিনি চান সবার সাথে উনার ভাবনা গুলোকে ছড়িয়ে দিতে এবং সেই ভিত্তিতে কবি বাংলাদেশে এবং ভারতের বিভিন্ন কবিতার অনলাইন মিডিয়ায় কবিতা লিখে চলেছেন। এবং অন্যান ভাবনা গুলি একত্র করে সমসাময়ীক লিখা লিখে থাকেন। সকলের ভালোবাসা এবং উৎসাহ নিয়ে প্রতিনিয়ত লিখে যাচ্ছেন। কবি ভবিষ্যতে কর্ম জীবনে উনার কবিতার কিছু বই প্রকাশ করার ইচ্ছে পোষণ করেন। সকলের কাছে দোয়ার দরখাস্ত নিয়ে আবেদন এই ভাবনার কবি গোলাম কিবরিয়া সৌখিনের।

অপূর্ণ ভালোবাসা
আমি শুধু ভাবি সেই দিনটির কথা
যেই দিনে তোমার গায়ে লেগে যাবে লাল শাড়ির ছোঁয়া।
প্রিয় সেই, গ্রামটিতে জ্বলে উঠবে লক্ষ -হাজার আলোকসজ্জা।
তোমার বাড়ির আঙিনা মুখরিত হবে কত মন ভাঙা, হাসিখুশি মানুষের পায়ের ধুলাই।
হ্যা, সেই দিনটির কথা বলছি যেই দিন তুমি পড়ুন
কবিতা | , | ৩ টি মন্তব্য | ৮৪ বার দেখা | ১৯৯ শব্দ
জীবনের গতি কখনো থামবার নয়
(১)
জীবনের গতি কখনো থামবার নয়,
সে ছুটে, কাউকে রাঙিয়ে, কাউকে ভাঙিয়ে।
কে ক্ষুদার্ত তা সে দেখবার নই।
কে দুঃখী, তা সে খুঁজবার নই।
সময়ে পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৪ বার দেখা | ১০৯ শব্দ
একটি সিজদাহ্ হতে পারে জীবনের শ্রেষ্ঠ প্রশান্তি
আমরা কেনো এতো হতাশ? কেনো জীবনে এতো গতি চাই? আমাদের মন সর্বক্ষণ অকল্পনীয় গতিতে ছুটতে চায়।
যখনই গতিতে একটু ভাঁটা পরে তখনই আমরা হয়ে যায় হতাশ! আমরা, আমাদেরই প্রভু, আমাদের সৃষ্টি কর্তা, যিনি আমাদের রিজিক দেন আমরা খাই, বাঁচি এবং মরি। যখন আমাদের জীবনে পড়ুন
জীবন | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯৫ বার দেখা | ৪৮৯ শব্দ
জীবনের গতি
(১)
জীবনের গতি কখনো থামবার নয়,
সে ছুটে, কাউকে রাঙিয়ে, কাউকে ভাঙিয়ে।
কে ক্ষুধার্ত তা সে দেখবার নয়।
কে দুঃখী, তা সে খোঁজবার নয়।
সময়ে মাপকাঠি কার কখন দেহ কাঁঠি তা সে বুঝবার নয়। পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮০ বার দেখা | ৮৭ শব্দ
সমাজ গড়ার কারিগর
সমাজ গড়ার কারিগর হে প্রিয় শিক্ষক।
তোমাদের ঘরে নাই বাজার-সদাই!তা দেখে করবার নাই কোনো নিরীক্ষক।
যা মাইনে পাইতা অতীতে,
তাঁহাতে চলতো সংসার কোনো মতে।
তবে, আজিকা সেই মাইনে পাওয়ার রাস্তায় নেমে এসেছে কুয়াশা।
তাই তো মনে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা! ত্রানের লেশমাত্র অবলোকন করো নাই চক্ষে,
তোমার মনে ভয়, এই বুঝি মান পড়ুন
কবিতা | , | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২৫ বার দেখা | ১০৯ শব্দ
সময়ের র্কম সময়ে
পিপীলিকা হতে, যদি নাও শিক্ষা এক রত্তি,
তুমি আমি দেখাতাম না, দুর্বলের উপর শক্তি।
মানবতাকে করতাম সবে মিলে সত্যি, সত্যি ভক্তি।
ক্ষুদ্র পিপীলিকা হতে শুনেছিল বাদশাহ সুলেমান নানা রঙের যুক্তি,
কোরআনে আছে পিপীলিকার নামে কত গুণ কীর্তি। বুঝে না-ও, দেখে না-ও, তাদের থেকে শিখে না-ও কী পড়ুন
কবিতা | , | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০৮ বার দেখা | ৮৯ শব্দ ১টি ছবি
সংকটময় সময়
ঘরে নাই অন্ন,
ক্ষুধা নিবারনে জীবন প্রায় বিপন্ন!
কার কাছে চাহিব ভাত?
আমার যে করে লাজ। নাই চাকরি, নাই তো বাকরি।
টাকা নাই, পয়সা কই পাই?
চাল নাই, ডাল নাই, নাই মশলা পাতি।
খাদ্যের অভাবে মরবে এই জাতি। নাই, নাই, নাই।
আমার চাহিদার অন্ত নাই।
পূর্ণ করবার রাস্তা-বন্ধ।
খুলবার নাই, নাম-গন্ধ। আমার খাবার পড়ুন
কবিতা | , | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫৮ বার দেখা | ৮৬ শব্দ
ভাসমান মেঘমালা
দেখেছ নিশ্চয়ই, সুনীল আসমান
তাঁর মাঝে আর-ও দেখেছ ভাসমান মেঘেদের মেলা।
যাঁরা ছুটে চলে নিরলস, ভেসে বেড়ায় দেশ হতে দেশান্তর।
কত-শত নগর,শহর পেরিয়ে চলে ক্ষণেক্ষণে সময়ের আবডালে । যেখানেই ঝরবার নির্দেশ পায় তাঁরা,
বৃষ্টি হয়ে আছড়ে পরে, দেশ হতে দেশান্তরে, শত-শত নগর শহরে। তথাপি, পড়ুন
কবিতা | | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১১ বার দেখা | ১১৮ শব্দ
ভালোবাসায় ভেজানো রাত
কোনো এক নিশ্চুপ রাতে, নির্মল বাতাসে।
ধান ক্ষেতের মাঝেই দাঁড়িয়ে ছিলাম।
মাস টা ছিলো বৈশাখ।
সময় টা বৈশাখের দিন পনেরোর এক রবিবার রাতের কথা। মনে ছিলো বেশ প্রেমের ঝটকা।
হুটহাট মনে হয়ে যেতো প্রিয় তোমার কথা।
সেই রাতে ও, তুমি এসে আটকে গেলে মনে। তবে,তুমি পড়ুন
কবিতা | , | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৪ বার দেখা | ১৭৭ শব্দ
নিষিদ্ধ কর্ম
নিষিদ্ধ কর্ম
যুবক তোমাকেই বলছি, শুনো।
জগতের সকল পাপ করতে তোমার মন চাইবে, যৌবনের উষ্ণতায় তুমি শক্ত পাথর হয়ে রবে। যুবতী মেয়েদের বুকে তুমি চোখ রাখবে,
হাতে হাত ধরতে মন ছুটবে।
কিন্তু না, এ-তো ধর্মে নিষিদ্ধ!
চোখ নামাও, হাত ছাড়ো। মন তোমার উড়ুক্কু হবে, নষ্ট প্রায় হয়ে পড়ুন
কবিতা, জীবন | , | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩১ বার দেখা | ১৬৪ শব্দ ১টি ছবি
ভাবিলেই মন বলিবে শুকরিয়া তাঁহার
বর্ষার বৃষ্টি, অনন্য এ সৃষ্টি।
মাঠেঘাটে ফসলাদি, চিরসবুজের দৃষ্টি।
মধু মাসে মধু ফল, সবই তাহার সৃষ্টি, যিনি দিয়েছেন আমাদের দেখবার দৃষ্টি। অসম্ভব গরমে, পূবালী হাওয়া, দক্ষিণের দেওয়ানা বাতাস ছুটিয়ে, কে দেয় আমাদের প্রশান্তির ছুঁয়া? কনকনে ঠাণ্ডার সকালে, পূবের আকাশে রক্তিম সূর্য উদয় হয়ে কেনো পড়ুন
কবিতা | , , | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯৪ বার দেখা | ৯০ শব্দ
কবরস্থানে একদিন (অভিজ্ঞতা, ভাবনা)
আজকে বিকেলের কথা, মন টা কেমন অস্থির লাগছে, কতদিন কলেজ যায় না, যায়না কোথাও ঘুরতে। সবুজের উপর দু-চোখ ডেবডেব করে ফেলিনি তা-ও তো অনেক দিন হলো। এইসব ভাবছি, তখনই আসরে আজান হলো, সৃষ্টিকর্তা ডাকছে, কল্যানের দিকে। ডাকছে,নামাজের দিকে।
উনার সৃষ্ট এই মায়াবী পৃথিবীতে আছি অথচ পড়ুন
জীবন, সমকালীন | , , | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯৫ বার দেখা | ৩৩১ শব্দ