রাজনীতি ও তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) ৩য় পর্ব

হিজড়াদের জন্মগত ভাবেই কপাল মন্দ, আরো কপাল মন্দের ব্যাপার হল সামাজিক অবস্থান। উন্নত দেশের হিজড়ারা জনসাধারণের সাথে মিশে জনগণের মুল স্রোতের অন্তর্ভুক্ত হলেও আমাদের দেশে হিজড়াদের ভিন্ন চোখে দেখা হয়। হিজড়া শব্দটি এসেছে আরবী হিজরত বা হিজরী শব্দ হতে যার আভিধানিক অর্থ পরিবর্তন আর ইংরেজিতে হিজড়ার প্রতি শব্দ হচ্ছে ইউনাক যার অর্থ নপুংসক বা খোজা। আমরা জানি ক্রোমোজোমের ত্রুটির কারনে হিজড়ার জন্ম,জন্মের পর লিঙ্গ নির্ধারণে যাদের জটিলতা দেখা দেয় তারাই হিজড়া। বৈশিষ্ট্যগত ভাবে হিজড়া তিন প্রকার হয়, শারিরীকভাবে পুরুষ কিন্তু মানসিকভাবে নারী তাদের অকুয়া বলে। শারিরীকভাবে নারী কিন্তু মানসিকভাবে পুরুষ তাদের বলে জেনানা,আর মানুষের হাতে সৃষ্টি যারা (ক্যাসট্রেড) তাদের বলে চিন্নি। অকুয়া এবং জেননা মিলে ভয়ংকর ভাবে কখনো কখনো সৃষ্টি করে চিন্নি।

সাহিত্যের ভাষায় হিজড়ার নাম বৃহন্নলা, হিন্দি ভাষায় (KINNER) কৃন্নার, উর্দু ভাষায় (Khawaja) খাওয়াজা। এরা মানুষ হলে এদের দায়িত্ব রাষ্ট্র নিতে পিছু পা হয়। কিন্তু ইতিহাস বলে মুঘল শাসন আমলে সম্রাটদের কাছে বিশ্বস্ত ভৃত্য হিসাবে পরিচিত ছিল হিজড়ারা। ছেলে আর মেয়ে উভয়ের মাঝামাঝি হওয়ার কারণে নারী পুরুষ সবার মাঝে অবাধ চলাফেরা ছিল তাদের, এই কারণে মুঘল সম্রাটদের নারীদের পাহারা এবং বাচ্চাদের দেখাশুনা করতো হিজড়ারা। আর সেই অতীত ইতিহাস হতে বের হয়ে এসে আমাদের দেশে বর্তমানে হিজড়ারা সাধারণ মানুষের মাঝে ত্রসন করে অর্থ উপার্জন করে। করে রাজনীতি,করে জবর দখল আর এসবের মূলে আরমানেরা থাকে ছায়া হয়ে।

এদের নচ্ছার চলাফেরা মানুষকে রাখে ভয়ের ভিতর। আবার কেউ কেউ পড়া লেখা শিখে ভদ্র জীবনযাপনও করে। এম.কম পাশ করা রুবেল আস্তে আস্তে বদলে রুপালী হয়ে যায়, এখন সে মডেল। সমাজসেবা অধিদপ্তরের মতে ষাট হাজার হিজড়া আছে দেশে আর ঢাকাতে আছে পনর শত, এবং প্রায় পাঁচ হাজার পরিবারের সাথে থাকে এখনো। তবে আমাদের সংবিধানে নারী পুরুষ এই দুয়ের স্বীকৃতি দেওয়া থাকলেও তৃতীয় জেন্ডারের কোন উল্লেখ নাই। ভোটার হতে মেয়ে বা পুরুষ লিখতে তাদের থাকে আপত্তি। কেউ যদি হিজড়া দলে ভিড়ে তাহলে গুরুমা নানা নিয়ম-কানুন ও হাতের তালির প্রশিক্ষণ দেন, দেন নানা রকম বিধিনিষেধ।

তারপরও পরিবার হতে বিছিন্ন হওয়া অসহায় নতুন হিজড়ার কাছে গুরুমাই সব। পরিবার হতে ছিঁটকে পড়া সব হিজড়ার গল্প একই রকম, হিজড়ার প্রতি পদে পদে ঘৃণা আর তিরস্কার। তাই তারা হয়ে উঠে ভয়ংকর। আর গুরুমা হয়ে উঠে গর্ভধারিনী মায়ের মত, গুরুমা হিজড়াদের এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তাদের দিয়ে নানা অপকর্ম করিয়ে টাকা রোজগার করে আরামের জীবন যাপন করে এবং নতুন হিজড়াদের করে বঞ্চিত। অথচ বাস্তবতা বলে চিন্তা ভাবনায় একটু দৈবজ্ঞ হলেই এমন সমস্যা প্রথমেই সমাধান করা যায়। নদী তার পরিবারের সাথেই থাকে এবং হাটে বাজারে টাকা তোলে। বহমান নদী আবার মা বাবার বুকেই রাত যাপন করে। নদীর বাবা বলে সন্তান যে নাড়ীর ধন জন্মতো আমিই দিয়েছি তাকে কি করে দূর করি।

দিনমজুর বাবা হিজড়া সন্তানকে বুকে আগলে রাখলেও অনেক পিতা মাতাই দূর দূর করে। এই নদীর সাথে আছে আরো ত্রিশজন হিজড়া, তারা বছরে একবার সমাবেশও করে। কারণ তারা থাকে ঐক্যবদ্ধ। জোটবদ্ধ হয়ে তারা কতটা ভয়ংকর ত্রাস সৃষ্টি করে যাদের বাসায় বিয়ের দিন হিজড়া গিয়েছে কিংবা কারো বাসায় বাচ্চা জন্ম হয়ছে শুনেছে তাদের বাসার মানুষ জানে কতটা দুরূহ হিজড়া হতে নিষ্কৃতি পাওয়া, ভোক্তভুগীমাত্রই জানে যন্ত্রণাটা।

(চলবে)

VN:R_U [1.9.22_1171]
রেটিং করুন:
Rating: 5.0/5 (1 vote cast)
VN:R_U [1.9.22_1171]
Rating: 0 (from 0 votes)
রাজনীতি ও তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) ৩য় পর্ব, 5.0 out of 5 based on 1 rating

ফেসবুক ইউজার মন্তব্য

মন্তব্য (ফেসবুক )

এই পোস্টের বিষয়বস্তু ও বক্তব্য একান্তই পোস্ট লেখকের নিজের,লেখার যে কোন নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব লেখকের। অনুরূপভাবে যে কোন মন্তব্যের নৈতিক ও আইনগত দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট মন্তব্যকারীর।
▽ এই পোস্টের ব্যাপারে আপনার কোন আপত্তি আছে?

৬ টি মন্তব্য (লেখকের ৩টি) | ৩ জন মন্তব্যকারী

  1. মুরুব্বী : ১৩-০৯-২০২০ | ১৩:৪২ |

    একদম স্বতন্ত্র ঘরানার এই নিবন্ধটি যথেষ্ট তথ্যবহুল। মন দিয়ে পড়ে চলেছি মি. ফয়জুল মহী। শেয়ার করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_good.gif

    তবে পোস্ট সংশ্লিষ্টতার সাথে প্রচ্ছদের আওয়ামী কন্যার সম্পর্ক খুঁজে পেলাম না। Smile

    VN:R_U [1.9.22_1171]
    Rating: 0 (from 0 votes)
  2. আলমগীর সরকার লিটন : ১৩-০৯-২০২০ | ১৪:১১ |

    ছবিটা মাশাল্লাহ চমৎকার হিজরার সাতে মিল আছে——-

    VN:R_U [1.9.22_1171]
    Rating: 0 (from 0 votes)
  3. নিতাই বাবু : ১৩-০৯-২০২০ | ১৮:৫০ |

    হিজড়া সম্পর্কিত তথ্যবহুল পোস্টখানা সত্যি প্রশংসার দাবি রাখে। হিজরা সম্পর্কে অনেককিছু জানা হলো। আর পোস্টে আপলোড করা ছবিটি হিজরাদের সাথে হুবহু মিল। মনে হয় এ এক আজব ধরনের হিজরাদের সরদার। 

    পরের পর্বের আশায় আছি।     

    VN:R_U [1.9.22_1171]
    Rating: 0 (from 0 votes)
  4. ফয়জুল মহী : ১৩-০৯-২০২০ | ২০:৩৯ |

    উনার কাজকর্মের  অনেক মিল হিজড়ার সাথে। ভালোবাসা ও শুভেচ্ছা প্রিয়জন। 

    VN:R_U [1.9.22_1171]
    Rating: 0 (from 0 votes)

মন্তব্য করুন