সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২ বিভাগের সব লেখা

দেবী মণিকা
দেবী মণিকা
দেবী মণিকা তোমায় ভাবি প্রতি ক্ষণে ক্ষণে
তুমি বাস করছো কেন আমার মনে?
দেবী মণিকা তোমার রূপের আলোয়
ঝলসে যাচ্ছে চোখ
মনে সৃষ্টি হয়েছে ভালবাসার রোগ? দেবী মণিকা তোমার সঙ্গে হারিয়ে
যাওয়ার ইচ্ছে ছিল খুব!
ধর্ম আর কাঁটা তার মনে দিল দুঃখ।
তোমার লম্বা কেশের সুঘ্রাণ নিতাম
তোমার গোলাপী পড়ুন
কবিতা | | ১টি মন্তব্য | ২৯ বার দেখা | ৮৯ শব্দ ১টি ছবি
প্রিয়
প্রিয়
আলিঙ্গনের আকাশ ছুঁইয়ে
হয়তো চেয়ে দেখা
এখন আমার বৃষ্টি ভেজা দিন
বই হাতে সে দিনের পরে
মুখ ডুবিয়ে থাকা স্বপ্ন গুলো বৃষ্টি নিয়ে
ঝরিয়ে যাবার মতো
নোনতা জলে ভিজিয়ে তোলা মুখের ছবি আঁকা
হৃদয় টা ওই দূর আকাশের প্রেমের উপত্যকা। আসতে চাইলে আসতে পারো
জমে যাবে নুনের জলে
হয়তো হবে খুব পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ৩৯ বার দেখা | ৫০ শব্দ ১টি ছবি
তুমি কি কেবলই ছবি?
তুমি কি কেবলই ছবি?
এ লেখাটা আমার পছন্দের লেখার একটা। যে রাস্তাটার কাহিনী নিয়ে লেখা তা এখন ফুলে ফেপে একাকার হয়ে গেছে চাইলে এই একটা ছবি নিয়েই লেখা যাবে বিশাল ক্যানভাসের গল্প। অনেকে বলবেন রাজনীতির গল্প, কারণ রাজনীতি বাদে আমি অন্যকিছু লিখতে জানি না। আপনারা পড়ুন
জীবন | ১টি মন্তব্য | ৭৪ বার দেখা | ৬৫১ শব্দ ১টি ছবি
বাইসাইকেল
সাবধান হতে হতে এক মধ্যবিত্ত শরীরে
পাহারা বসিয়েছি। ত্বকের ঘ্রাণমাখানো
ঘামটুকু বিসর্জনের ছবি না হয়ে যায়
এই ভেবে ভেতরে আলাদা হচ্ছে নিয়ম- বরষার রোদ, তার তলে প্রচুর-প্রচুর সুখ
হালনাগাদে সমানবয়েসী বাইসাইকেল
আক্রান্ত হতে থাকে সরল নিমগ্ন সুর
যেন মৌসুমপাখির গান, রোজ নিজের
গায়কী গলা কেটে নাচায়- গোলকয়েনের মতো; ধানফুলের শীষ-
বাতাস ফেরানো শহরে অধিকার পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২২ বার দেখা | ৫৭ শব্দ
অন্তর্ধান
অন্তর্ধান
সৌমিক একজন পুরনো চিলেকোঠার মানুষ
সে বলল, জানো সৌরভ দা
কষ্টের পরতে পরতে জীবনের দুঃখগুলো
খুব জোরে সোরেই আঘাত দিয়ে যায়
তারপর, তারপর ঠিক যেখান থেকে এসেছিলাম
সেখানেই প্রত্যাবর্তন। তুমি কি জানোনা এখানে যে বৃষ্টি হয়
শহরেও সেই একই বৃষ্টি, তবে শহরের বৃষ্টির সাথে মিথেন গ্যাসের সংখ্যাটা পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৭০ বার দেখা | ৩২৭ শব্দ ১টি ছবি
নৈবেদ্য বিলাস
নৈবেদ্য বিলাস
ভুলে যাই
দমের পরতে পরতে তলিয়ে দিই উদ্বেগ
হারিয়ে যেতে দিই স্বপ্ন, বিপুলা আবেগ
দূরে বহুদূরে
সীমানা ছাড়ায়ে উড়িয়ে দিই দৃষ্টি
নামিয়ে আনি
মেঘের গভীরে লুকানো বৃষ্টি! প্রাণের উদ্যানে সবুজ মখমল
পুস্পিতার শিথান
নিঝুম মস্তকে
এঁকেবেকে বয়ে চলে নদী
কলকল ধ্বনি…
শুনি
পরিযায়ীর গান, নৃত্য মুখর ধ্যানী মুনি
তলাচ্ছি
ঝড়াচ্ছি
সুরের লহরে
ছন্দের জঠরে…
বিমোহিত ঘূর্ণিপাক রূপোলী হাতছানি! আহ… পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৫০ বার দেখা | ৮৯ শব্দ ১টি ছবি
রিস্কি
সবাই নিজের স্বার্থ দ্যাখে
মানছে মনে মনে
স্বীকার করতে বলো – ওদের
কিল-ঘুষি কে গোনে!
নিজের সুখের ব্যস্ত খোঁজে
তোমার ভালো দেখছে না
চোট-ধাক্কা দিনের মেনু
হও গে’ যতই মুখচেনা
লোকাল ট্রেনের চতুর্থ সিট
হিসেব- বহির্ভূত
তেমনি সবাই সবার কাছে
রুক্ষ হওয়ার ছুতো এই জনতাই ব্রহ্ম, জান-এ
সাপটে নিতে হবে
নিলেই চোরা ছুরি বুকের
বাইপাস-উৎসবে
কিশোর, তবু হোক না তোমার
গঠিত পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৬ বার দেখা | ৪৯ শব্দ
নগদ জলের বৃত্তান্ত
জীবন থেকে হররোজ যতটা জল খসে খসে পড়ে
কে জানে না? চন্দ্রবিন্দু, খন্ড ত, অনুস্বার
সে জল আর কোনোদিন ফিরে না আপন নীড়ে!
তবুও নিয়ত বায়ুর মতোন নিয়ত বন্দনা করি
পড়ি, মরি করে আবারও সে জলকেই স্মরি
বিষাদ থেকে আলাদা হয় কয়েকটি মাত্র বিন্দু
যে ডুবুরি সেও কি জানে কতটা পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৭৬ বার দেখা | ৮৩ শব্দ