দ্বিতীয় পৃথিবী

মানুষ ভাবে এক, হয় দুই, তিন, চার পাঁচ, ছয়, সাত কেউ আর অপেক্ষা করে না আটকোরা প্রভাত কেবল ভোলা পাগলা একাই ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে চেঁচায়…. জয় দ্বিতীয় পৃথিবীর জয়! একদা কনিষ্ঠা আঙ্গুলি থেকে জন্ম হয়েছে যে রাত সে এখন দিব্যি তর্জনী, মধ্যমা থেকে শাহাদাৎ! গাড়োয়ান জানে না, কোথায় তার সাধের পঙ্খিরাজ ধুমা তালে কেবল টাক মাথায় … Continue reading “দ্বিতীয় পৃথিবী”

_____একদিন আপনি আপন

_____একদিন আপনি আপন একদিন আপনি আপন মৃদু হরষে, পথে যেতে যেতে আনমনা পথিক স্বজন ফিরে দ্যাখা তারই আপনজন। হয়নি কথা! তার সাথে কি জানি কি অভিমানে? ফিরে দ্যাখেনি সেও তো আর চোখের নিশানা মিলিয়ে যায়; ক্ষণ কালেই। সময় ঢলে পড়ে আচমকা যেন সাঁঝ নামে, পথিক তার পথে পথে সেই পিছন ফিরে দ্যাখার আত্মমগ্নে নিমজ্জিত পায়ের … Continue reading “_____একদিন আপনি আপন”

তোমার জন্য (পর্ব -১)

তুমি চাইলে আমি বিহগের মতো গগন পথে উড়তে পারি, বাঁধা আসলে তা উপেক্ষা করব। তুমি চাইলে আমি জোনাকির মতো আলো দিব যেখানে আলো নেই সেখানে। তুমি চাইলে আমি আজীবন তোমার কাছে পরাধীন থাকব, কোনো দিন স্বাধীন হতে চাইবো না, শুধু তোমাকে স্বাধীনতা দেওয়ার জন্য। তুমি চাইলে আমি বৃষ্টি হয়ে ঝরব অবিরাম, কোনো অবস্থায় থামবো না। … Continue reading “তোমার জন্য (পর্ব -১)”

ফুলফুল খেলা

কোনো তর্কে আমার আর মন নেই। নিজের রক্তের লালে ফুলকারির আত্মঘাতী শখও এই সেদিন জুড়ালো। কতোখানি শৌখিন আর সুন্দরের চ্যালা বুঝে দ্যাখো! একহাতে তালি দিতে মহাযুদ্ধী সেমিনার ফুলের আড়াল দিয়ে নির্লজ্জ টেবিল সাজায়। বুক তো পোড়ে প্রদীপেরই, একা- তাই, ফুল নয় পাখি নয়, বয়ে যাওয়া অগ্নিস্রোতে আতান্তরে ভবিষ্য সাজাই।

ঊর্ধ্বগতি

এই যে ছাপিয়ে যাচ্ছেন, এই যে পিছে পড়ে রয়েছি, কষ্ট হচ্ছে! মোটেও না! আপনার অতিক্রমে মোটেও ব্যথিত নই। আপনার সামনে প্রশস্ত সিঁড়ি ফলবান বৃক্ষ আপনার সহোদর। অভিজাত পাড়ার ললনারা আপনার সঙ্গ পিয়াসী। উড়ছেন, আকাশ প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছেন। উড়ুন, উড়তে থাকুন, আপনার ঊর্ধ্বগতি আমাকে আহত করে না। শুধু খেয়াল রাখবেন, ধপাস, পড়ে যাবেন না। পড়ে গেলে … Continue reading “ঊর্ধ্বগতি”

স্বাধীনতার স্বাদ প্রত্যাশা

স্বাধীনতার স্বাদ প্রত্যাশা

স্বাধীনতা খুঁজি আমি পাখির মাঝে স্বাধীনতার স্বাদ প্রত্যাশা করি মনুষ্য কপালে। কী পেলাম সবাই হিসাব করে মনোযোগ দিয়ে, কিন্তু কী দিলাম দেশকে হিসাব করে ক’জনে। স্বাধীনতা আলমারিতে সাজিয়ে রাখা মধুর স্মৃতি, বিবর্ণ কালো ধুসর হলে বছরে একবার দেখি। এই দিনে ভেবে না পাই স্বাধীনতা কোথায় রাখি তাইতো সবাই মিলে ফুল আর কথার বাহার মেলি। মধু … Continue reading “স্বাধীনতার স্বাদ প্রত্যাশা”

এখন আমার যাবার ঘণ্টা বাজে

হয়ত হাটছ নগর রাজপথে, হয়ত তুমি পেরুতে একটা দারুন গানের সুর বাজে, তোমার হৃদ সৈকতে থমকে দাঁড়িয়ে পিছনে ফিরে চাও, তোমার পরান ছুটে নিজেকে খোঁজে ঘুরে দেখতে কি পাও বাংলার ফসল মাঠে! হয়ত তাহারা সুদূর হনলুলু, হয়ত উত্তাল মস্কো তাদের চারজন রঙিন সিডনি দুজন কাঠমুন্ডু। যখন মায়াবী গানটি তালে গাও অনিন্দ্য আয়োজনে তাহারা বাইতে কি … Continue reading “এখন আমার যাবার ঘণ্টা বাজে”

ভোটের দামামা

ভোটের দামামা

ভোটের দামামা বেজেছে এবার চারিদিকে রাজনীতির গল্প, জেতা হারা নিয়ে হচ্ছে যুক্তিতর্ক ভোট দেওয়ার সংকল্প। চোখ ঝলসানো দেওয়াল লিখনে – সব নেতাদের গুণকীর্তন, জনগণ চিন্তিত ভোট দেবে কাকে প্রার্থী হয়েছে নতুন প্রাক্তন। জনসভা জুড়ে প্রতিশ্রুতির বয়ানে – কর্মীরা খুশিতে আপ্লুত, প্রতিশ্রুতি নয় সব আসলে জুমলা তবুও ভোট, বড়ই অদ্ভুত। পাড়ায় পাড়ায় নেতাদের আগমন অসহায়দের করছে … Continue reading “ভোটের দামামা”

পলাশী থেকে মুক্তিযুদ্ধ

সূচনা পর্ব -১ আমি আলিবর্দি খাঁর বিচক্ষণতা ও দূরদর্শিতার কথা বলছি, আমি রত্নগর্ভা মা আমেনার কথা বলছি, আমি আরও স্বচ্ছ করে বলি, আমি বাংলার শেষ নবাব সিরাজুদ্দৌলার কথা বলছি, আমি প্রাসাদ ষড়যন্ত্র ও গোপন বৈঠকের কথা বলছি, আমি ক্ষমতালোভী পরশ্রীকাতর ঘষেটি বেগমের কথা বলছি, আমি আলিনগর সন্ধি কথা বলছি, আমি উমিচাঁদ আর মিরনের কথা বলছি, … Continue reading “পলাশী থেকে মুক্তিযুদ্ধ”

বাংলাদেশ

বাংলাদেশ

১. বাংলাদেশ তুমি দ্বিজাতি ভাঙন বাংলাদেশ তুমি ৫২’র ভাষা আন্দোলন বাংলাদেশ তুমি ৫৩’র শহীদ মিনার গঠন বাংলাদেশ তুমি ৫৪’র যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন বাংলাদেশ তুমি ৫৮’র সামরিক শাসন বাংলাদেশ তুমি ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন বাংলাদেশ তুমি ৬৬’র ছয়দফা অনশন বাংলাদেশ তুমি ৬৯’র গণঅভ্যুত্থান বাংলাদেশ তুমি ৭১’র পাক-হানাদের নির্যাতন বাংলাদেশ তুমি ৭ই মার্চের জ্বালাময়ী ভাষণ বাংলাদেশ তুমি ২৫ই মার্চের … Continue reading “বাংলাদেশ”