নভেম্বর ২০১৭ বিভাগের সব লেখা

নিশিকাব্য
অথচ সল্প আয়ু, এতো গল্প
কেন বুনতে চাও শব্দনীড়,
ক্লান্ত লোচন খুঁজে ফেরে ঘুম
স্বপ্ন দেখে নতুন পৃথিবীর;
নতুন মানেই জামা বদল
কিছু লতার অবাধ বিস্তার
মুরুব্বী, নামটাও পেকে যাচ্ছে
ঝরে পড়ছে পাতার সংসার! এবার শব্দতরী ভেসে গেলে
শামুক খুলেছে অবাধ্য মুখ
বাতাসে ঢেউয়ের মাতলামি
ভালো লাগছে নদীর অসুখ!
তবু ভালো থাকা অদ্ভুত জ্বালা
ঔষুধ পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৯৮ বার দেখা | ৫৩ শব্দ
চলো লজ্জাবতী হও
চলো লজ্জাবতী হও

তোমায় যখন বলি শুভসকাল
ঝলমলে হয়ে যায় দিন আমার
তুমিময় সারাবেলা!
তুমি কবিতার সেই স্তবকের মত
ছন্দবিহীন হয়ে ও ছান্দসিক
হেলাফেলায় মায়ার খেলা। তোমায় না ভাবলে
নি:শ্বাসগুলো নেতিয়ে পড়া পুঁই লতা
লজ্জাবতীদের নেতিয়ে পড়তে দেখেছ কখনো?
আপাদমস্তক লজ্জার ঘোমটায় ঢাকা
এক নির্লজ্জ ঢঙয়ের লাজুক প্রতিচ্ছবি যেন!
তোমায় পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৬৬ বার দেখা | ১০৪ শব্দ ১টি ছবি
জেদ চাপে
জেদ চেপে বসলে
অনলে, উত্তাপে কাঁপে দেহ
মূর্ত চোখে- কটমট রাগ
ঝড়ো তাণ্ডব বয়ে যায় বুকে!
ব্যাস
শুধু শেষ দেখতে চাই- অশেষ বাক্যের, অশ্লেষার, অশ্লীলতার, অসভ্যতার
তরবারিতে শাণ দিই
বালিতে,
অশ্রুর রেখায় রোদ্দুর ঝিলিক,
ব্যাঙ্গ ভঙ্গিমা
রোজ রোজ ভেল্কি ছাপে খবরের কাগজে, বড় বড় কলামে;
নিখোঁজ ব্যক্তির পাশে পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৩৭ বার দেখা | ১১৫ শব্দ ১টি ছবি
সার্কেল
সার্কেল
সার্কেল বিবর্ণ দিনের শেষে পথ গুলো আর খুঁজে পাইনা,
অনন্তকাল ধরে পথ হাঁটবো বলে যে পথে নেমেছিলাম,
সেই পথে চলতে গিয়ে দেখি পথের সরল রেখা বিলুপ্ত হয়ে শূন্যপথ। পথ হারাবো জন্য আজ পথের খোঁজ মেলে না।
বসে থাকাই অবধারিত, পড়ুন
জীবন | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪৬ বার দেখা | ২৭৩ শব্দ ১টি ছবি
ছুঁয়ে দেখো শূন্য
ছুঁয়ে দেখো শূন্য ফিসফিস করে কথা বলছিলাম
ওর সাথে একা একা; ও একটা বনপরী
যদিও কেউ দেখেনি ওকে
ওর জীবনে প্রেম, গান, শিশুমুখ
কতটুকু মানে রাখে জানতে চাইলে
ও বলেছিল, ‘তোমার মতন
আমিও একটা বার্বি
আমিও একটা মিথ
তুমি প্রকৃতির উপহার
আমি তোমার তৈরী’
ওর বাকচাতুর্য আমাকে বিভ্রান্ত করল
আমি শব্দের পর শব্দ পেরিয়ে
পৌঁছে গেলাম বিপন্ন পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২০৬ বার দেখা | ৮৮ শব্দ
পার্থক্যের কতকিছু
পার্থক্যের কতকিছু [] জগতে কতকিছুই প্রথম প্রকাশিত হয়, কতকিছু-
সান্নিধ্যের সাগর ছুঁতে না পেরে, মিশে যায় ঢেউয়ের
সাথে। কত শামুক-ঝিনুক, আত্মস্মৃতি খুঁজে
বদলায় নিবাস। নিমিষে ভালোবাসার ছায়াতলে
ডুব দেয় মানুষের প্রিয় পরাণ পাখিরা।
কত পার্থক্যের বেলা, নিয়ন্ত্রণ করে ঝড়ের ভাগ্য
এখন শ্রাবণ নয়, তবু তাণ্ডবের লালরেখা
দাগ রেখে যায় সময়ের বুকের উপর, পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২০৫ বার দেখা | ৭৭ শব্দ
দুঃখ
দুঃখ যেদিকে দুঃখ যায়
সেদিকে হাট বসে – দেবদারুর মাথায়
দ থেকে দুঃখের উৎপত্তি
মোমের আগায় জ্বলে থাকা টিমটিম আলো
নদী – দুঃখের আর এক নাম
সুখ – তারও ডাক নাম নদী। যেদিকে দুঃখ যায়
সুখ তার পিছু পিছু হাটে। পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩৬ বার দেখা | ৩২ শব্দ
প্রতিদ্বন্দ্বী
প্রতিদ্বন্দ্বী তুমি আমার প্রতিদ্বন্দ্বী তুমি আমার প্রতিদ্বন্দ্বী
প্রতিযোগীও ছিলে বটে; কি সে তা বুঝতে সময় গেল টেনে?
অবশেষ তা অভিমানে মিটে গেল। অভিমানেই যদি চুপসে যাবে
বিড়ালের গলায় ঘন্টা বাজে লাজে; শুধু শুধু বাহানা এমনি
এমন দ্বন্দ্ব দাঁড় করালে প্রতিযোগীর বেশে। তুমি না কি ছিলে প্রেমের প্রতিযোগী?
প্রেম দ্বন্দ্বে ভালোবাসার প্রতিদ্বন্দ্বী বনে গেলে; পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬০৩ বার দেখা | ১৫০ শব্দ
আসল অভিপ্রায়
আসল অভিপ্রায় অনেকটা সময় লেগেছে ওই বোবাকে বুঝতে
আসল কথা চুপ করে থেকে মানুষকে খুঁচোনো
এটাই উদ্দেশ্য, হাজারটা দোষ ঢাকবে কি সে?
তার ওপর আবার জমজমাট সহোদরের নীরব প্রেম
এখন তার ডিজিটাল অক্সিজেন না পেয়ে জীবন মরণ
নিজের অহংকারে নিজেই হয়েছে পতন —-
তাই রোজ তারিখে খুঁচিয়ে মরণ কামড় দিয়ে যায়
ওসব পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৪০ বার দেখা | ৫৭ শব্দ
শীতের দ্বিতীয় শীত
শীতের দ্বিতীয় শীত ট্রেনের হর্নের গায়ে মাকড়সা-ঝুল লেগে আছে
পঞ্চায়েতে দু’মাসের কাজ পেল আকাশি মেয়েরা:
পায়ে-চলা জ্যোৎস্না দেবে বিলের মাটিতে, বিষধর —
ঝাঁপির পার্বণী পেয়ে হবে গোল সুখিত বেড়াল বৃদ্ধ দাঁতাল পাখি — ধান কাটতে গিয়ে ক্ষেতওলা
কোলে নেয়, মরাইতে রাখে। ঝরা পোকা, ঝরা ভিড়,
হিমের মশারি। এই যে দাঁতনফল, আমার পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯৯ বার দেখা | ৮৭ শব্দ
ঘ্রাণ
ঘ্রাণ যদি স্পর্শের অনুভূতি নাই জাগ্রত হয়, তবে
একবার তাঁর কাঁচা স্নানের ঘ্রাণ শুকে দ্যাখো
শিউলি, বেলি, গোলাপ, গাঁদা মৃত ছাড়া আর
কিছুই নয়। অবিশ্বাস হলে একবার জলের কাছে প্রশ্ন করো
তাঁর চুলের সাথে কি সম্পর্ক তোমার? জবাবে
একটুও বিব্রত না হয়েই বলবে, একবার শুকে দ্যাখো;
তুমিও বলবে, ভালোবাসা কারে বলে। এরপরও যদি পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২২১ বার দেখা | ৫৮ শব্দ
হেমন্ত এলো
হেমন্ত এলো কার্ত্তিকে ভর করে হেমন্ত এলো
দোল খেতে খেতে হিমেল বাতাসে;
শরতের মেঘগুলো নেমে এলো
ভূমে,যেন কুয়াশা কন্যার বেশে।
খাল বিলে ফুটেছে শাপলা ফুল
ধান ক্ষেত সেজেছে সোনালী রঙে;
ঘরে ঘরে আনন্দ উচ্ছ্বাস প্রতুল
হিমে ভেজা ফড়িং নাচে কত ঢঙে। শরত সহোদরা সেজেছে নব বধু
শীত শীত আমেজে করবে উৎসব;
চারিদিকে পাই সে নবান্ন পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫৩ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
জীবন মানেই কি নিয়ম?
জীবন মানেই কি নিয়ম? জীবনকে জিজ্ঞাসা করলাম
ত্রিশতো পার হয়ে এলে
আর কত দিন বোঝা নিয়ে বেড়াবে? জীবন বলল অপেক্ষা কর
না হয় আরো ত্রিশ বছর বাঁচবে!
আমি বললাম, আরো ত্রিশ বছর!
কত দীর্ঘ সময়! কত দিন লাগবে পার হতে!
জীবন বলল তাড়াতাড়ি কিসের!
এভাবেই চলে যাবে
যে ভাবে যাচ্ছে আমি বুঝিনা মানুষ অনেক দিন পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৩৯ বার দেখা | ১২১ শব্দ
জলের শরীর
তুমি এসেছিলে জলের শরীর
তৃষ্ণা বাড়িয়ে দিলে পৃথিবীর
ভয়ে ভয়ে মেলেছি চোখের পাতা
খুলে দিলে তুমি বুকের খাতা
কবিতা লিখেছি নূতন ভাষায়
তুমি অনুবাদ করো আমায়! ফুলের মতো ছড়াও মিষ্টি ঘ্রাণ
ঘাসে ঘাসে জাগাও শিহরণ
ভালো লাগে রোদের আলতো ঘুম
তুমি হাসো যখন নিঝঝুম; চাঁদের মতো তোমার উঁকিঝুঁকি
ডানা ঝাঁপটে রাতজাগা পাখি
রূপকথা রাজ্যে করেছি ভ্রমণ
পাই পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৬৮ বার দেখা | ৭৪ শব্দ
কালের উচ্চারণ
আমি তো
অতটা বিদ্বান নই
নেই গোলামীর যোগ্য সনদ!
অথবা, উপভোগ্য কোন জোকার নই
সার্কাসের বামুন নই-
আমি কালের উচ্চারণ! এক মহা যুদ্ধ শেষে
মাঘের শীত জড়ানো গোধূলি রঙ মেখে জন্মেছিলাম, সেদ্ধ ধানের গন্ধে, ক্ষণ জয়ে
মোহন সান্দ্রে মামুলি উল্কা পতনে, অমোঘ উচ্চারণে
কিন্তু- আমি ধ্বনি পড়ুন
কবিতা | | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩১ বার দেখা | ৯৫ শব্দ ১টি ছবি