জানুয়ারী ১৯, ২০১৭ বিভাগের সব লেখা

দ্য লস্ট আইডেন্টিটি: ধারাবাহিক গল্প- পর্ব: এক
দ্য লস্ট আইডেন্টিটি: ধারাবাহিক গল্প- পর্ব: এক
[ এই ধারাবাহিক গল্পটি প্রথম পুরুষে লিখলাম ]
বং উপত্যকার একটি নির্দিষ্ট শহরে, সেই স্কুল জীবনের শেষ ধাপ থেকে দীর্ঘদিন বসবাসের সুযোগ হয়েছিলো আমার। অনেক কিছুর মতো নিজের যতসামান্য শব্দভান্ডার ও সমৃদ্ধ হয়েছে এই শহরটিতে বসবাসের পড়ুন
গল্প | | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২৩ বার দেখা | ৭৭২ শব্দ ১টি ছবি
অল্প কল্প
আপনি লিখতেই পারেন। যা আপনার লেখা। কিন্তু সেই লেখা যখন অন্যকে পড়তে দেবেন তখন আপনাকে খেয়াল করতে হবে তাকে ঠিক বোঝাতে পারছেন তো। যে পড়ছে সে কি বুঝেছে সেটাই আসল ব্যাপার। সে যতটা বুঝতে পারবে অর্থাৎ আপনি তাকে যতটা বোঝাতে পারবেন সেটুকুই আপনার সার্থক পড়ুন
শিল্পসংস্কৃতি | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৩৯ বার দেখা | ৫৪১ শব্দ
জীবনের অনু পরমানু-
জীবনের অনু পরমানু-
আমিতো ভালই ছিলাম, উচু দেয়ালের পাশে দিয়ে হেটে যাবার সময় আশেপাশের ইট জড় করে তার ওপরে উঠে দেখার চেষ্টা করতা ওপাশে কি আছে দেখতে। সেই দিনগুলি কি নেহায়েত খারাপ ছিল? তারপর একদিন বাবা ইস্কুলে নিয়ে রেখে পড়ুন
জীবন | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৭৩ বার দেখা | ৮০ শব্দ ১টি ছবি
আমরা এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে
প্রতিটি মানুষের শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলি ঠিক যেন আদর্শ একটি পরিবারের মতোই। মাথা, হাত, পা, চোখ, কান, নাক, পেট ইত্যাদি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলি ঐ পরিবারের সদস্য। এই সদস্যগুলির মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সুদৃঢ় ঐক্য বিদ্যমান। একটি অঙ্গ অসুস্থ হলে অন্যসকল অঙ্গ কষ্ট পায় এবং তার সহযোগিতায় এগিয়ে আসে, পড়ুন
সমকালীন | ১১ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫৮ বার দেখা | ৩৫৪ শব্দ
বাদামী বেবুন
ভাঁজ করা রাতে, হেঁটে যাই পথে
পকেটে বাজে মুদ্রার ধুন
চুপি চুপি এসে মানুষের বেশে
বন্ধু হয় শত বাদামী বেবুন। পাশাপাশি হাঁটে স্বর্গের ঘাটে
সুর তুলে আনকোরা,
দিন কিছু গড়ালে, শেষ মুদ্রা ফুরালে
ভালবেসে গুঁজে দেয় বিষের ছোরা। পড়ুন
কবিতা | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩১ বার দেখা | ৩১ শব্দ
ব্লগবুক অণুলিখন ৪
আশ্রয়হীনে মেলে দাও নির্জন অন্ধকারের আলোকিত শিখা
পাশে নাও; আধো করোটিতে জ্বালো ভরসার বুনো গন্ধের বিভা। ________________________
___ রেটিং চর্চা অব্যাহত রাখি আসুন। পড়ুন
জীবন | | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৫০ বার দেখা | ২২ শব্দ ১টি ছবি
নূপুর, ঘুঙুর ইত্যাদি
আমার মা আর বোন এখনো বিশ্বাস করে
আমার চাচা আসলে মারা যাননি
যেমন যুদ্ধ থেকে না ফেরা বাবার লাশটাও
আদতে তার লাশ ছিল না। প্রতিবার বলতে বাধ্য হয়েছি, এরা নাবালক
প্রতিবারই আমাদের শিঙ্গারদানীর নীচে
একটা দাড়িওয়ালা ছাগল হেসে উঠতো খুকখুক করে
আর আয়নায় তখন দেখতাম দু’টো লাশের অবয়ব। আমার মা আর পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪১৪ বার দেখা | ১০৮ শব্দ
পর্দার অন্তরালে সুপ্ত ছিল যাহা
পর্দার অন্তরালে সুপ্ত ছিল যাহা
(সুন্দরী সিরিজের কবিতা) হৃদয় গোরস্থানে ওঠলো বেজে ইস্রাফিল এর ফুকধ্বনি
পর্দার অন্তরালে সুপ্ত ছিল যাহা অনুভব হয়ে
শব্দের রূপ নিয়ে খিল খিল করে ওঠলো হেসে-
তাড়িয়ে দিতে চেয়েছি, দূর দূর করে দুরে রাখতে চেয়েছি যতবার
ওরা আমার সমস্ত কোল জুড়ে, বুক জুড়ে, কাদ বেয়ে মাথার
ভিতরে পড়ুন
কবিতা | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৬ বার দেখা | ২৬৬ শব্দ
নিশ্বাস এর শব্দ
এখানে কোন শব্দ নেই; শুধু নিশ্বাস এর শব্দ আছে। আর নিশ্বাস আছে বলেই পাখিদের ঠোঁট এতো গাঢ়ো! যার ছায়ায় বৃক্ষগুলো দাঁড়িয়ে থাকে শিশুর মতো রাত-দিন। তারপর নিশ্বাস এর গল্প-ই; শুধুমাত্র নিশ্বাসের শব্দেই ভেঙে যায় প্রাচীন ঘুম। শ্মশানে হেঁটে যায় কচি কচি মেয়ে, তাদের দোল পড়ুন
কবিতা | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯৬ বার দেখা | ১১৭ শব্দ
আকাশপত্রিকা
আকাশ ভরে পংক্তিগুলো লিখি
জীবনের এই প্রথম আকাশ, লম্বা শোভন পাখিদাগ দেওয়া
আমি আজ ছুটি থেকে ফিরেছি — যেখানটায়
আকাশের সাদা সোমবার সবুজ ঝাঁক বেঁধে সাঁতার কাটছে একতলা ছোট ছোট ঘর আকাশের, হালকা-য় সময়ভর্তি করা।
আমি ঘুমিয়ে পড়লে এমন আকাশ মাথার বালিশ হয়ে দেখা দিয়েছিল এক এক দিন হয় পড়ুন
কবিতা | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৬২ বার দেখা | ১১০ শব্দ
৬ পঙক্তির "শামেরিক"
ছড়ার একমাত্র ছন্দ স্বরবৃত্তচালের নতুন এক পদ্যরীতি হচ্ছে ‘শামেরিক।’ এর চরিত্রগত কাঠামো হবে স্রেফ ছড়ারই আদলে। শামেরিক মূলত ব্যঙ্গাত্মক, রসাত্মক, ঘৃণাত্মক, প্রতিবাদী ও অর্থবোধক ছড়া যা ককখখকক চালের। এর ১ম দু’পঙক্তি ও শেষ দু’পঙক্তির মাত্রাসংখ্যা হয় মোট ১৪ বা ১৫টি করে। কক পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১১ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৩৩ বার দেখা | ২৬০ শব্দ
মুখোমুখি
প্রতিদিন আয়নার সামনে দাঁড়ালে
আমি দেখতে পাই অন্য এক আমার অস্তিত্ব,
যেখানে আমার গোপন ক্ষতগুলো
দগদগে ঘা হয়ে ফুটে ওঠে
আমার চারপাশে অসংখ্য আয়না
বার বার আমার ক্ষতগুলোকে
চিনিয়ে দিতে চায়, আমি ক্রমশ
নিজের থেকে সরে যাই নিরাপদ দূরত্বে
সঠিক আয়নার সামনে দাঁড়ানো হয়ে ওঠে না আর। পড়ুন
কবিতা | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮৯ বার দেখা | ৩৯ শব্দ
সেই পৌষে
সেই পৌষে সেই পৌষে,
খড়ের পালায় আগুন জ্বলছিল
পিঠা পোড়ানোর আগুন, কুয়াশার শীতে
ওম নেয়া দু’হাতের তালু পিষে।
তাবর ভোর জুড়ে,
সে কি উল্লাস! কিশোর, বুড়ো, ছোটদের
চালের আটায় ঝাল মরিচ মিশিয়ে
এক ধরনের ঝালের পিঠা।
কুয়াশায় ঢাকা চারিদিক
সূর্য ওঠার ঢেড় বাঁকি, পোলই, পড়ুন
কবিতা | | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১০ বার দেখা | ৭৭ শব্দ
পলোনিয়ামের রসায়ন
নিঃশ্বাসের আলো ফেলতেই তুমি চমকে উঠলে
আর আমি জ্বলজ্বলে নীল চোখজোড়া দেখলাম
স্যাঁতস্যাঁতে রাতের আংটায় ঝুলছে একবিন্দু ঘাম
বিচ্ছেদ এর বিপরীত শব্দ জানা আছে আমাদের
আমরা তো কেউ নই নিয়মের আজ্ঞাবহ দাস। মাটির তলপেট থেকে উঠে দুঃখবাদের ঝড়
কিছু প্রিয় আততায়ীদের নাম মনে পড়ে যায়
ভাড়া করা রাতটা হয়ে যায় কলমের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮০ বার দেখা | ৫৬ শব্দ
শেষ কবিতা শিশু
শেষ কবিতা শিশু
ছোট্ট একটি খাকি কাগজের শপিং ব্যাগ
আর হেডবিহীন একটি বল পয়েন্ট পেন
একদিন দীর্ঘক্ষণ পাশাপাশি-
গল্পকারের আসার অপেক্ষায় ছিল তারা। গল্পকার আসবেন
শপিং ব্যাগটির বুক চিরবেন
বল পেনের তীক্ষ্ণ অগ্রভাগ অক্ষরে অক্ষরে ছেয়ে দেবে নীরব আকাশটিকে!
এমনই ভাবছিলো ওরা গল্পকার তখন অন্য ভুবনে একা পড়ুন
কবিতা | | ১২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৯৮ বার দেখা | ১৪২ শব্দ ১টি ছবি