স্মৃতিকথা বিভাগের সব লেখা

সময়ের বৃত্তে বন্দি জীবন
সময় প্রতিটি মানুষের জীবনের সাথে নিবির ভাবে জড়িত। সময়ের ধারাবাহিকতায় জীবন একেক সময় একেক ভাবে তার গতি পাল্টায়। ব্যক্তি জীবনে প্রতিটি মানুষই বিপুল সাহস ও অটল ধৈর্য নিয়ে বাস্তব জীবনের ঘাত-প্রতিঘাত, আশা-নিরাশা এবং আনন্দ-বেদনায় উত্তাল জীবন-সমুদ্র পাড়ি দেন সময়কে আশ্রয় করে। সময় প্রবাহিত হয় পড়ুন
স্মৃতিকথা | | ৩ টি মন্তব্য | ২১ বার দেখা | ৭০৯ শব্দ
স্মৃতিগুলো মনে পড়ে
স্কুল জীবন শেষ করে আজ কলেজে পা রাখলাম। যাদের সাথে দশটি বছর লেখাপড়া করলাম, তাদেরকে ছেড়ে আসতে খুবই কষ্ট হয়েছে। তবুও আসলাম। তারা কতইনা আপন ছিল আমার। কত জায়গায় ঘুরেছি তাদের সাথে। স্কুলের বন্ধুদের মধ্যে কাশেম, নজরুল, আরাফাত ও জয়নাল খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিল পড়ুন
গল্প, স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | ২৯ বার দেখা | ৪৩৯ শব্দ
শাপলা-শালুক
শাপলা-শালুক

বর্ষা মানেই বৃষ্টি। আর বৃষ্টি মানেই ঘরে বন্দি হয়ে থাকা। বলা নেই, কওয়া নেই, হুট-হাট করে বৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। কোথাও বের হওয়া যায় না। রাস্তায় হাটুঁ পানি জমে যায়। কাদায় রাস্তা একাকার হয়ে যায়। ক্লাশে পড়ুন
গল্প, স্মৃতিকথা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৮ বার দেখা | ১১৯৫ শব্দ ১টি ছবি
জল কড়চা
জল কড়চা
রাজধানী শহর ঢাকাতে বসবাস করেন অথচ আজিকে সন্ধ্যার পরে নিজ নীড় হইতে বাহির হইলেন না, তাহারা ঘরকুনো তো বটেই আমি তো বলিব কাপুরুষও বটে! এমন আনাড়ী বৃষ্টির তুমুল পতনের পরে গুপ্ত প্রকৃতি যে কতটা উন্মুক্ত পড়ুন
স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬৩ বার দেখা | ৪১৩ শব্দ ১টি ছবি
মিনি বিলাই
আমার বালক বয়সে আমাদের বাসায় বিড়াল ছিল। জন্মের পর থেকেই আমি দেইখা আসছি এইগুলাকে। আমরা ‘বিড়াল’ বলতাম না, আমরা বলতাম ‘বিলাই’। আমার আম্মা ডাকত মিনি। বস্তুত আম্মার লাইতেই মিনি বিলাই আমাদের বাসায় থাকত আর বছর বছর তিন চাইরটা কইরা বাচ্চা দিত। তারপর বাচ্চাগুলা বড় পড়ুন
স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৪ বার দেখা | ১০৭৩ শব্দ
দাদাকে মনে পড়ে
দাদাকে মনে পড়ে

১৯৯৮ সাল। আজ থেকে ১৯ বছর আগের কথা। তখন আমি ডায়েরি লিখতাম। প্রতিদিনের ঘটনাগুলো প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ডায়েরিতে লিপিবদ্ধ করে রাখতাম। এখন আর ডায়েরি লেখা হয় না। দীর্ঘদিন পর ব্যক্তিগত বুকসেলফ পড়ুন
স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৭ বার দেখা | ২১৯৯ শব্দ ১টি ছবি
আমার_শৈশব_ফেলে_আসা_দিনের_স্মৃতি
আমাদের সবার একটা আনন্দময় শৈশব আছে। আমারও রয়েছে। নিচের দীর্ঘ লেখাটি পড়লে, আমার এবং আমার সমবয়সীদের শৈশব কেমন ছিলো, জানা যাবে। বেশ দীর্ঘ লেখাটি। তাই পড়তে গিয়ে বিরক্ত হতে পারেন।
________________________________
” ছায়া ফেলে যায় তবুও নি:সময়
তারই মাঝখানে লহমার এই দেখা
একার সঙ্গে মুখোমুখি হল একা।” ১ সবার মাঝে পড়ুন
স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫০ বার দেখা | ৩৪১৬ শব্দ
প্রথম বাবা হওয়ার আনন্দ
প্রথম বাবা হওয়ার আনন্দ

গত দীর্ঘ ৯ মাস ২ দিন আমার স্ত্রীর গর্ভের ভেতর বেড়ে উঠছিল একটি প্রাণের অস্তিত্ব। যা আমাকে বাবা হওয়ার স্বপ্ন দেখাচ্ছিল। আমি একটা নতুন জগতের সাথে পরিচিত হচ্ছিলাম। দিন দিন আমি আমার স্ত্রীর পরিবর্তন কাছ থেকে পড়ুন
স্মৃতিকথা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১২ বার দেখা | ৩৩৬ শব্দ ১টি ছবি
ছেলেবেলার ঈদ আনন্দ
ছেলেবেলার ঈদ আনন্দ

আমার ছেলেবেলা একটি অভাবী পরিবারে কেটেছে। পরিবারে অভাব থাকলেও ঈদের দিনে আনন্দের কোন কমতি ছিল না আমার মাঝে। আর সেই ছেলেবেলাটা ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার নবীনগর থানাধীন ধরাভাঙ্গা গ্রামে কাটিয়েছি। এখানেই আমার জন্ম; তাই ছেলেবেলার ঈদ কেটেছে মা-মাটি পড়ুন
স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬১ বার দেখা | ৮৯০ শব্দ ১টি ছবি
দুখু মিয়া
দরিরাম পুরের দুখু মিয়া পারেনি দমিতে।
দুঃখিদের নিপীড়ন পারেনি সহিতে।
সামাজিক বিভেদের সংগ্রামী সৈনিক।
জা‍তীয় চেতনায় নির্ভয় নির্ভিক।
ক্ষুরধার ‍লেখনি তার শানিত অস্ত্র।
সাবলিল ভাষা তার ঐন্দ্রজালিক মন্ত্র।
কাব্যের ঝংকারে দূর্বিনীতদের করেছেন শত কষাঘাত।
শ্রাদ্ধ্ করেছেন রূপকের ছলে করেছেন পদাঘাত।
গেয়েছেন সাম্যের গান হয়ে মহিয়ান।
জাতি ধর্ম নি‍র্বিশেষে হয়ে বলিয়ান।
গানে গানে উ‍জ্জীবিত করেছেন পড়ুন
স্মৃতিকথা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮১ বার দেখা | ৬৯ শব্দ
আহ্বান
অভিমান যে আমারও হয়না তা নয়!
যখন দেখি অনেকগুলো প্রিয় মুখ সাথে আছেন অথচ সহব্লগারের লেখায় চোখ বুলিয়ে নেয়ার তাগিদও বোধ করেন না! আবার মন্তব্যের উত্তর দেয়ার ক্ষেত্রেও কুন্ঠিত। চুপচাপ সয়ে যাই, হারিয়ে যাই নীরবে!! একদা মন্তব্য দেয়ার প্রতিযোগিতা হত। কে আগে মন্তব্য দিতে পেরেছি! কিছু পড়ুন
আড্ডা, স্মৃতিকথা | ১৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪৪ বার দেখা | ১২০ শব্দ
স্মৃতি স্মরণে
শতাব্দীর শ্রেষ্ট সন্তান ডাঃ সৈয়দা ফিরোজা বেগম নারী জাতির আর এক গৌরব ।
চান্দিনার গোলাপ বিশ্বের দিকে দিকে ছড়িয়ে দিয়েছেন সৌরভ।
কুসংস্কারাছন্ন অনেক পথ পেরুতে হয়েছে তাকে।
চড়াই উৎরাই বহু পথ পেরিয়ে প্রতিষ্ঠিত করেন নিজেকে।
মানব কল্যানের স্বপ্ন দেখেছিলেন যিনি।
সেবার মাধ্যমে তা বাস্তবায়িত করেছেন তিনি।
দুঃখি দুঃস্হদের প্রতি প্রসারিত পড়ুন
স্মৃতিকথা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮০ বার দেখা | ১২৫ শব্দ
শুধু ভালোবেসে তোমায়
আমি সেই সুতো হবো, যে তোমায়
আলোকিত করে নিজে জ্বলে যাবে
” আমি সেই নৌকো হবো, যে তোমায় পাড় করে ‘নিজে ডুবে যাবে
“হবো সেই চোখ যে তোমায় দেখেই বুজে যাবো
“হবো সেই সুর যে তোমায় মাতিয়ে করুণ হবো,
“হবো সেই চাঁদ,যে হয়ে গেলে আধার
“তোমাকে পড়ুন
জীবন, স্মৃতিকথা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৫ বার দেখা | ৫৫ শব্দ
অপেক্ষায় কাটে প্রহর
অনেকটা পথ।সময় টুকু বেঁধে দেয়া। বেঁধে যাওয়া সময়ে অনেক কাজ,বহু স্বপ্ন ঝুলে থাকে।লেপটে থাকে বেশীটা দেয়ালে,দেয়ালে।
সেঁটে থাকা কিছু উঠে আসে না।মলিন হয় শুধু!
ঘষা’মাজা হলে পুরোনো গাড়ী রঙ করার মত।বোঝা যায়।রঙ করা যায় কখনও নতুনের মত মনে এলেও,
মত কথাটা জটিল শোনায়।
আমি কারও মত হতে পড়ুন
স্মৃতিকথা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৬ বার দেখা | ৬১ শব্দ
প্রিয়তমা
প্রিয়তমা
যদি আমায় ভুলে যাও তুমি
ভুলো না আমার এ গান
ঘুম ভাঙ্গা রাতে এ গান গেয়ে
জুড়িয়ো তোমার প্রাণ।। যদি নিশীথে জাগে মনে
শিয়রে দীপ জ্বেলে বাতায়নে
খুঁজো আমায় তারার মিছিলে
রাত জাগা পাখি হয়তোবা
শোনাবে আমারই গান।। বিকেলে মিষ্টি রোদে বসে
দৃষ্টি মেলে দিও দূর পড়ুন
স্মৃতিকথা | | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৮ বার দেখা | ৪৬ শব্দ ১টি ছবি