ছড়া ও পদ্য বিভাগের সব লেখা

করুণ দৃশ্য, বৃষ্টির শব্দ গান
করুন দৃশ্য
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
অক্ষর বৃত্ত ছন্দ ৮৬ মহামারী অনাহারী বসে কাঁদে লোক
কথা যত ব্যথা শত মনে শুধু শোক।
পেটে ঋণে বেশি দিনে যায় নারে চলা
এত কথা যথাতথা যাবে কিরে বলা। কোথা সুখ শুধু দুখ বেশি মনে পড়ে
কবে খাবো শান্তি পাবো পেটে খানা ভরে।
বন্দী দশা প্রাণ চষা পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১ বার দেখা | ১৯০ শব্দ
ধোঁকা, প্রেমের আগুন
ধোঁকা
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ স্বরবৃত্ত ছন্দ চলে গেলো সেই পাখিটা
দিয়ে আমায় ধোঁকা,
আমায় সেযে ভেবে ছিলো
ভীষণ ভীষণ বোকা। ভালোবাসা ছিলো আমার
এই না হৃদয় ভরা,
সেই কথাতে অঝোর চোখে
বৃষ্টিবিহীন খরা। কি দোষ ছিলো প্রিয়া আমার
বলে যাবে তুমি,
দিবানিশি সদা প্রিয়া
তোমায় আমি চুমি। হৃদয় পুরে ঘোরাঘুরি
তোমার পায়ের শব্দ,
সেই শব্দটা শুনে শুনে
কেটে যাবে অব্দ। হবে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫ বার দেখা | ১১১ শব্দ
গয়ন্ত জাঙ্গুলি
যত সব সোকাবোকা ছেলে নিয়ে জেরবার
স্যার বলতেন
জয়ন্ত গাঙ্গুলি, হায়মন্ড ডারবার
ফা হিয়েন লেন স্বামী-স্ত্রী দুইজন আর এক বোন ঘরে
অবিবাহিতা
বেথুন কলেজে পড়ে, পাঠ করে অবসরে
কেষের শবিতা সেই মেয়ে হায় হায় ফেল হ’ল বাংলায়
অঘটন কী এ!
স্যার কান্নায় ভিজে — বোনটির শুখটি যে
গিয়েছে মুকিয়ে স্টুডেন্ট ভালোই, যত বোকাসোকা টাসমার
স্যার বললেন
গয়ন্ত জাঙ্গুলি, পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৩ বার দেখা | ৫১ শব্দ
বিলাসিতা, মানব তুমি
বিলাসিতা
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ অর্থের তরে জীবন যাদের
বিলাসিতার স্বভাব,
অর্থ কড়ি মাঝে তাহার
বিবেক বোধের অভাব। বিলাসিতার নামান্তরে
জীবন করে পারি,
নানা পাপে পাপে তরে
আখের হবে ভারি। মিতব্যয়ী হলে পরে
ভালো হবে তবে,
সুখ উল্লাসে দুঃখ কাহন
আসবে তোমার যবে। বিবেক জাগাও বোঝে তবে
ভালো মন্দের তরে
কুক্ষিগত করে না আর
অন্যের সম্পদ ঘরে। মনুষ্যত্ব বৃদ্ধির জন্য
মেশো ভালোর পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৯ বার দেখা | ১০৮ শব্দ
বেকার জীবন, রঙ্গভঙ্গ
বেকার জীবন
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
মাত্রা বৃত্ত ছন্দ ৬৬/৬২ শিখে লেখাপড়া খেয়েছি যে ধরা
বেকার জীবন আজ,
ঘুরি পথে পথে জীবনের রথে
নাহি মেলে কোনো কাজ। বেকার যে প্রাণ কষ্টের
সতত করতে হায়,
পরিজন নিয়ে কাঁদে মোর হিয়ে
খাবার নাহি যে পায়। শিক্ষিত হয়ে সকলের তয়ে
হয়ে গেছি তবে বোঝা,
যুগল বন্দী জীবনে ফন্দি
চলা নাহি ভাই পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২৭ বার দেখা | ১৪৭ শব্দ
মেঘ জমেছে, মোটা বউ
মেঘ জমেছে
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪৪/৪২ স্বরবৃত্ত ছন্দ জমেছে মেঘ আকাশ প্রাণে
ঘ্যাঙরঘ্যাঙর ব্যাঙের গানে
মনে লাগে ভালো,
দেয়া ডাকে হঠাৎ করে
থেকে থেকে বৃষ্টি পড়ে
নীল আকাশে কালো। বাবুইপাখির বাসা দোলে
কৃষক ছেলে পথটি ভোলে
পায়না বাড়ি খুঁজে,
জুই চামেলি ফুল যে ফোটে
মধুর জন্য অলি ছোটে
আঁখি দু’টি বুঁজে। আউশের ক্ষেত জলের তলে
কৃষকের চোখ ওই ছলছলে
বিষাদগ্রস্ত পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯১ বার দেখা | ২০১ শব্দ
শ্রেষ্ঠ জাতি, শিক্ষিত হও
শ্রেষ্ঠ জাতি
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪৪/৪২ শ্রেষ্ঠ জাতি মানব মোরা
হিংসা দ্বেষে মনটা ভোরা
তাতে হয় কি ভালো,
পাপে পাপে ধরার বুকে
মনে করে আছে সুখে
তাদের জীবন কালো। হিংসা দ্বেষে মানব কূলে
জীর্ণ শীর্ণ পাপের ভূলে
অনুতাপে তেজে,
কারো কভু পাপের কথা
মন জাগে কি যথাতথা
অশ্রু গঙ্গায় ভেজে। হিংসা দ্বেষ ভাই নাহি করো
সত্যের পথটি আঁকড়ে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২ বার দেখা | ১১০ শব্দ
জীবনের একটি সময়, গানের পাখি
জীবনের একটি সময়
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪২ শৈশবকালে অনেক মজা
নানা রকম খেলা,
দেখে সবার দিন ফুরাতো
প্রজাপতির মেলা। ইচ্ছে মতো দৌড়ে চলে
সোনালী সেই দিনে,
স্মৃতির পাতায় নেমন্তন্ন
শুধু মনের ঋণে। ঘাস ফড়িংয়ের পিছু ছুটে
গেছে কত বেলা,
পড়ার সময় করেছি যে
কত শত হেলা। লুকিয়ে ওই পাখি ছানা
ধরেছি যে কতো,
সবার মাঝে আমি হলাম
বড় নেতার মতো। ইচ্ছে খুশি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৯ বার দেখা | ১০৮ শব্দ
জাগো নবীন, বিদায়কালে
জাগো নবীন
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
মাত্রাবৃত্ত ছন্দঃ ৬৬/৬২ বিবেক জাগাও নবীন সমাজ
মুক্তির পথ ধরো,
মনের আবেগ কলুষতা সব
দূর করো দূর করো। তোমরা জাগলে পৃথিবীর পথে
হানা দেবে না তো কেউ,
তোমাদের শ্রম তোমাদের বল
রূখে দেবে সব ঢেউ। তোমাদের কথা তোমাদের কাজে
পৃথিবীর হবে জয়,
তোমরা সবাই বসে থাকলে গো
হবে যেন সব ক্ষয়। তোমাদের শ্রম পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫ বার দেখা | ১১৫ শব্দ
স্বার্থপর ভুবন, আপন ঘর
স্বার্থপর ভুবন
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৫৫/৫২ ধরার বুকে স্বার্থছাড়া
কাজ করে না কেউ,
নিজ স্বার্থ কুক্ষিগত
করতে তোলে ঢেউ। নিজ স্বার্থ হাসিল করে
সকল জ্ঞান ভুলে,
ধরার বুকে চলেন তিনি
বুকটি তার ফুলে। স্বার্থ নিজে করার তরে
ভোলে আপন পর,
তখন তিনি রাজার হালে
বাঁধেন বড় ঘর। স্বার্থপর এ দুনিয়াতে
সুখে মেলে না ভাই,
সুখের পথে খুঁজে যে মরি
আমি অধম পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫ বার দেখা | ১০৯ শব্দ
অবিরাম বারিধারা, তরাতে তরী
অবিরাম বারিধারা
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪/৪৪/৪২ স্বরবৃত্ত ছন্দ ত্রিপদী গগনজুড়ে মেঘের ভেলা
সারাবেলা করে খেলা
হঠাৎ কভু ঝরছে,
চাষা ভূষার পেটটি ফাঁকা
আয়ের উৎস নাহি থাকা
পেটের ঋণে মরছে। বর্ষাকালে নদের জলে
জলের শব্দ ওই কলকলে
শুনে লাগে ভালো,
কদম কেয়া ফুলে ফুলে
জলে থৈথৈ দু দু কূলে
মেঘটা ভীষণ কালো। গানে ভরা সবার মনে
ময়ূর নাচে ক্ষণে ক্ষণে
কচুরি পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫ বার দেখা | ১২৮ শব্দ
আমার দেশ, কর্মের জন্য
আমার দেশ
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
অক্ষরবৃত্ত ছন্দ ৮৬ প্রজাপতি ধেয়ে চলে পারিজাত ফুলে
পরাগায়ন করাবে সব আশা ভুলে,
সবুজ শ্যামল ছায়া মনে বহু মায়া
নদীর জলে ভাসতে দেখি মাছে কায়া। কি সুন্দর যে আমার জন্মভূমি দেশ
যার রূপের শোভার কভু নেই শেষ,
গাছে গাছে ফুলে ফলে পাখি গায় কত
নদী জলে টলমল পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬ বার দেখা | ১৮৫ শব্দ
ভালোবাসা, ডাকপিয়ন ও চিঠি
ভালোবাসা
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৪৪৪২
৪৪
৪৪৪২ স্বরবৃত্ত ছন্দ জীবন বাঁচে ভালোবাসা ভালো লাগা তরে
ভালোবাসা বিহীন জীবন ধুঁকে ধুঁকে মরে।
ভালোবাসা পরম নদী
নিঃস্বার্থ হয় গো তা যদি।
ভালোবাসা দিলে মেলে ভালোবাসা তবে
ভালোবেসে সৃষ্টিকর্তা বানিয়েছে সবে। ধরার বুকে জীবে সেবা জীবে দয়া দিলে
ধরার বুকে থেকে প্রভুর দেখা তবে মিলে।
ভালোবাসা দিলে আপন
তাদের সাথে পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৬ বার দেখা | ১৪০ শব্দ
নতুন দিবস, কন্যা সন্তান
নতুন দিবস
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
অরিত্রিক কবিতা ৮৬ নব সাজে নব রূপে চেয়ে আছে আমি
বিকেলে আরতি চুপে জানে অন্তর্যামী।
বসন্তের আগমনে অলি ছোটে ফুলে
প্রেমের ব্যথা ফাগুনে মনে দু দু কূলে।
ফুলের সৌরভ মনে দীর্ঘ পথে চলা
নাহি আসে সাথে ক্ষণে কি জানি কি বলা।
প্রেমের পরশ পেয়ে উড়ুউড়ু মন
সদা যায় পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪৪ বার দেখা | ১৩১ শব্দ
জীবন নদীর ছন্দ, খুলে দাও বিদ্যাপীঠ
জীবন নদীর ছন্দ
– জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
৫৫/৫২ মাত্রা বৃত্ত ছন্দ নিবে বললো নদী
দারুণ কলতান,
ছুটে চলার গতিই পাই
মনের সুখে গান। নদীর মতো জীবন গতি
যাদের আছে ভাই,
সুখের সাথে দুখের কোনো
সতত জুড়ি নাই। নদী ছন্দে মন খুশিতে
ভীষণ লাগে ভালো,
স্থির জীবনগুলোয় হলো
তিমির মতো কালো। জীবনপথে আলোর দিশে
পাই নদীর কাছে,
সুখীজনের সাথেই নদী
ছায়ার মতো আছে। দারুণ পড়ুন
কবিতা, ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮৬ বার দেখা | ১১৫ শব্দ