ছড়া ও পদ্য বিভাগের সব লেখা

Facebook Profile photo
মৃত্যুানন্দ
মৃত্যুানন্দ এদিক দ্যাখে ওদিক দ্যাখে
দ্যাখে আলো আঁধার,
ভয় যে লাগে মনের কাঁধে
ধরলো বুঝি এবার। এই বুঝি দেয় বড়শি টান
নাটাই ছাড়া সুতোয়,
কেমন করে চলবে এ প্রাণ
ঢাকনা ছাড়া সময়। এই যে মারে এক আবার
ঐ যে মারে আরেক,
একই সময় অসম মারে
ক খ গ ঘ অমুক। পায়ের ওপর পা দিয়ে ফের
আচ্ছা রকম হাঁটি,
সব পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৩ বার দেখা | ৯৯ শব্দ
Facebook Profile photo
বাজি
বাজি নীল খামেতে স্বপ্ন আমার
সাদা নীলে বাসা,
মনের ভেতর ঝিঁঝিঁ পোকা
তবুও জাগে আশা। দু’চোখেতে আকাশ আমার
বুক পকেটে ভালোবাসা,
স্বপ্নগুলো মনের ভেতর
সে খায়রে বাঘডাসা। মাথার ভেতর এটম আমার
ঠোঁটে-মুখে বাজি
হাতের উপর রাখলে হাত
মরতে আমি রাজি। পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৮ বার দেখা | ২৮ শব্দ
ফেইসবুক...
ফেইসবুক তোমাদের কালে তোমরা যখন
খেলেছ পুতুল খেলা
আমরা এখন সেই বয়সেই
ফেইসবুক করি মেলা কাটাই সময় লাইক মেরে মেরে
কমেন্টে দেই ঝাঁকি
ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট ঝুলিয়ে রেখে
ইনবক্সে রঙ মাখি স্ট্যাটাস পাল্টাই মিনিটে মিনিটে
প্রফাইল ছবিও পাল্টাই
ফটোশপের ম্যারপ্যাচ দিয়ে
ফেইসবুকে মারি ফালটাই চিনি না যাদের বন্ধু বানাই
তাদের চড়াই ঘাড়ে
আসল বন্ধু ফেইসবুকে নাই
তারে আর ডাকি নারে ডিজিটাল যুগে পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
পণ্ডিত!
পণ্ডিত! আপনি কখন গর্তে ঢুকেন
কখন যে বের হন
জানা আছে কোন সময়ে
ছাগলরে -শের কন! জানা আছে কোন সভাতে
পান্ডিত্যটা ঝারেন
কাদের থেকে কোন সময়ে
মাইকখানাও কাড়েন। আপনে না হয় ভুলে গেছেন
আপনার ইতিহাস
মৌসুমি সব ফলের মতো
করেন নীতি চাষ? শিং, নাই বিলে ফলো বাও
বাইতে থাকো আরো
আরো কিছু দিন দেখি তুমি
কতো বাড়তে পারো! পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৬ বার দেখা | ৪২ শব্দ
সৌমিত্তির মামদো ... ভুতভুতানি
ভুতভুতানি
সৌমিত্তির মামদো রাত ঝমঝম গা ছমছম
রাত্রি হলেই চিত্তির,
ভুতের ছানা ভুতের পোনা
দত্ত কিম্বা মিত্তির। ব্রিটিশ ভুত সুইস ভুত
জাপানি ও চায়না,
অস্ট্রেলিয়ান কলম্বিয়ান
হরেক ভুতের বায়না। ভুত বাজারে লাখ হাজারে
নীলাম করে সদবি,
বিক্রি যত কেনাও তত
নানান রকম পদবী। সিড়িঙ্গি ভুত ভিড়িঙ্গি ভুত
ক্যাওড়া শাকচুন্নী,
ঘোমটা টেনে খ্যামটা নাচে
রাজস্থানী মুন্নি। রাঁধুনি ভুত কাঁদুনি ভুত
সাহেব ভুতের জেল্লা,
মিশরী ভুত পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০ বার দেখা | ৭৮ শব্দ
পঞ্চাননের বিয়ে
পঞ্চাননের বিয়ে পঞ্চাননের স্বপ্ন অনেক
নিয়ে বিয়ে, শ্বশুরবাড়ি,
দেখে শুনে পাত্রী পেলেন
বংশে তারা কুলীন ভারী। দূরের গ্রামে থাকে তারা
চাষ মেঠোরাস্তা নিয়ে,
পাত্রী একটু কানে খাটো
তবুও পঞ্চু করলো বিয়ে। পঞ্চানন ভেবেছিলো
এইতো হল বেশ,
একটা মাত্র জামাই
আদর জুটবে অশেষ। চোখ জুড়ানো আলোয় সেজে
সানাই বাজলো বিয়ের রাতে
ঝকঝকে এক হাসি ছিলো
পঞ্চাননের ফোকলা দাঁতে। ঝুলির থেকে লাফালো বেড়াল
ঠিক পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৮ বার দেখা | ৮৩ শব্দ
অাজো মরেনি মু'মিন মুসলিম
অাজো মরেনি মু'মিন মুসলিম

দানবেরা লুটেপুটে খেল, মানবেরা পেল না কিছুই
সত্য অাজ ভু-লুষ্ঠিত হলো,মিথ্যেরা হাসলো শুধুই।।
বিধাতা কেবল দেখছিল খেলা, মনে হয় যেন ছেলেবেলা
খেলেছিলাম পুতুল খেলা। করলো না সে কিছুই।।
অাফসোস আর আহাজারি, আকাশ-পাতাল হলো ভারী
বিদ্রোহী এই মনটা আর্তনাদে কেঁদে উঠলো,
করলো না সে কিছুই।
ধিক্ শত পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭৯ বার দেখা | ৬২ শব্দ ১টি ছবি
ভাদ্রের দিনে
ভাদ্র-আশ্বিনে মেঘের ডাক
শরৎ ঋতু দু’মাস
ভর দুপুরে কালো মেঘ
বিজলী ভয়ে দিন শেষ। বজ্র কন্ঠে মেঘের ডাক
বিকম্পিত ঘর শিরে বাজ
বৃষ্টি যখন থেমে গেলো
চারদিক আঁধার হলো। পাখ-পাখালি নীড়ে ফিরে
জেলে ছুটে নদীর তীরে
টোপর মাথায় রাখাল ছুটে
গোঁধুলী বেলা আলো ফুটে। বিকট শব্দে ভয় ধরে
সতেরো ভাদ্র বিকাল পড়ে
মুষল ধারে বৃষ্টি পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯ বার দেখা | ৬৩ শব্দ
হেকিমনি
হেকিমনি কুম্ভকর্ণ ঘুমাচ্ছিল নাকে দিয়ে তৈল
সবাই বলে ও বাবা গো এ কি ভীষণ হইল
দিনের পর দিন কেটে যায় মাসের পর মাস
কুম্ভ তবু নড়ে না গো একই সব্বনাশ ! পাশ দিয়ে যাচ্ছিল ও পাড়ার হেকিম চাচা
রাবণ এসে বলল তারে, “চাচা আমায় বাঁচা।
ভাইটা বুঝি তুলবে পটল নিঃশ্বাসও বয় পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৯ বার দেখা | ১০৪ শব্দ
মুজিব অর্থ
মুজিব অর্থ
মুজিব অর্থ মুজিব মানে মুক্তি।
মুজিব মানে মুক্ত আকাশে
ডানা ভাঙার চুক্তি। মুজিব মানে জয়।
মুজিব মানে প্রাপ্য আদায়ের
সৈনিক অকুতোভয়। মুজিব মানে শক্তি।
মুজিব মানে মাও মাটিকে
স্বপ্রনোদিত ভক্তি। মুজিব মানে অর্জন।
মুজিব মানে দুঃখ ভুলে
৭ই মার্চের গর্জন। মুজিব মানে গড়া।
মুজিব মানে প্রতিবাদ মিছিলে
নতুন করে লড়া। মজিব মানে সুর্য্য।
“মম এক হাতে পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১৩ বার দেখা | ৪৬ শব্দ ১টি ছবি
বর্ষার দিনে
শ্রাবণে কালো মেঘ বৃষ্টি পড়ে রিমঝিম
অবিরাম বর্ষণে ঘরে বসে কাটে দিন
খানা দানা ভাল হলে সুখে আসে নিন
বর্ষার দিনগুলি অলস কর্মহীন। খাল-বিলে অথৈ জল ভরে টইটুম্বর
সোনা-কুনো ব্যাঙ ডাকে রাত-দুপুর
ডগসা কাঁধে জেলে ছুটে অথৈ মাঠে
আইলে ফাঁদ জুড়ে মাছ পড়ে ঝাঁকে। খলই ভরা মাছে পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ১টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০৩ বার দেখা | ১৩৩ শব্দ
তোর জন্য
তোর জন্য তোর জন্য বনপলাশী
আমার জন্য কাঁটা
তোর জন্য ইচ্ছে কুসুম
অনেকটা পথ হাঁটা। তোর জন্য চাঁদের রং
সুর্য্যি ডোবা আলো,
তোর জন্য মেঘলা মন
শব্দেরা জমকালো। তোর জন্য জ্যোৎস্না নদী
স্বপ্নবিলাস হাওয়া,
তোর জন্য লালরঙা টিপ
ভাটিওয়ালি গান গাওয়া। তোর জন্য পাখির ডাক
অনন্দময় ঢেউ,
তোর জন্য আমি আছি
আমার তো নেই কেউ। পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫১ বার দেখা | ৩৯ শব্দ
প্রকৃতি
প্রকৃতির বিরুপ প্রভাব পৃথিবী জুড়ে
বর্ষা ঋতুর খরা মাঠে ফসল পুড়ে।
কৃষক চিন্তিত মাঠে বীজতলা নিয়ে
আমন চাষীর নীড়ে বৃষ্টি নাই জিয়ে।
আবাহওয়ার বদলে দূর্যোগ ঋতু ভরে
প্রকৃতির নীলা-খেলা সব প্রভুর ঘরে।
কোন খানে খরা কোথাও জলে ভাসে
ত্রাণের জন্য বান ভাসিরা ছুটে আসে।
আইলা-সিডর দূর্যোগ দু’দশকে মিলে
জলবায়ুর বিরুপ চাপ পড়ুন
ছড়া ও পদ্য, সমকালীন | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫৭ বার দেখা | ১২৪ শব্দ
বন্দ ঘরে
দু’নয়ন জুড়ে ঘুম নাই চিন্তা ক্ষনে
চৌকিতে শুয়ে ভাবনা মুক্ত মনে।
বাদলের দিনে ঘন-ঘন মেঘ ডাকে
ঠাঁই নাই তিল ধারণ গগন ফাঁকে।
দিন-ক্ষন যায় প্রাণে থাকে ভার
সম্বলহীন হাত বুদ্ধি খায় মার।
স্বল্প হাতে সঞ্চয় যদি কাজ হয়
পথে চলার মনোবল প্রাণের খয়।
অস্থির প্রাণে স্বপ্ন ধরা গগণ জুড়ে
ইচ্ছে ডানা মেলে পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬১ বার দেখা | ১০১ শব্দ
মেঘ কুমারী
মেঘ কুমারী মেঘ গিয়েছে মেঘের বাড়ি
মেঘ গিয়েছে মেঘে
মেঘের মেয়ে মেঘ রাজ্যে
একলা থাকে জেগে ঘুম কেড়েছে দস্যি বাদল
দমকা হাওয়ায় উড়ে
মেঘ রাজ্যের রাজকুমারী
তার বিহনে পোড়ে দস্যি বাদল মন ছুঁয়েছে
কিন্তু গেছে ছেড়ে
একলাপনায় ডাকছে না সে
মেঘের কড়া নেড়ে মেঘ বালিকা ঘরের কোনে
বিষণ্ণ তার মন
দস্যি বাদল নেয় না খবর
করে না যতন মেঘ বালিকা একলা পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৬২ বার দেখা | ৬১ শব্দ