কবিতা বিভাগের সব লেখা

যন্ত্রস্থ যমুনার মুখ
স্বকালকে সাজিয়ে রেখেছি বিদ্যুতপাথরে। চাইলেই ছুঁড়ে
দিতে পারি। আর পারি স্বীকার করে যেতে শান দেয়া চাঁদের
জনম। নিদ্রার নিমগাছ জড়িয়ে জেগে থাকা ভাদ্রের বিবরণ।
পারি আরো অনেক কিছুই। শোকের সংযোগ খুঁজে যে নদী
বয়ে যায় উজান, তার গতিপথ আটকে দিয়ে আমিও হতে
পারি ঝড়ের সমান। তাবৎ তীক্ষ্ণতার তিমিরে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৩ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
দ্বিধাহীন ভোর
বাতাস আর ঘাসের দাঙ্গায় ফুলগুলো অভ্যর্থনা
জানাচ্ছিল আর ফেঁপে উঠতে থাকল
অনেকগুলো নিস্তরঙ্গ পেশাজীবী জিকির, শিশুমুখ;
অন্যের ভেতরে পৌছে যাচ্ছিল দ্রুতগামী
বালকের মতো; সব পাখির পালকের নিচে সর্বশেষ
ঢেউ-সন্ধ্যা, জিহ্বায় কাটে নিঃশ্বাস,ন্যাড়া ডালের
মুকুলে ফুল, ঈগলের বিক্ষত চোখ- ঝুলিয়ে ডাকে নিশানা-দূর। এমন দ্বিধাহীন রূপালি
জ্যোৎস্নার সৌন্দর্য পানে উৎসব পাতিয়েছে
সেই যুবক, সেই পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২১ বার দেখা | ৬৬ শব্দ
শাণিত তরবারি
শাণিত তরবারি
বহুকাল পুরোনো তরবারি টি
শান দিচ্ছি নুনে জলে
ধারালো বুকটি চকচক করছে
ঝিলিকমারা চোখে
ব্যাক্ত করছে শাণ ধার
আসলে- এবার সে চলতে চাইছে
চলতে চাইছে রক্তের অববাহিকায়
প্রাণের প্রকোষ্ঠে
এবার ছড়েছে তার কতল কর্মক্ষুধা
শাণের সোপানে
খুনের কলা কৌশলে
বলি হোক জগত সংসার
বলি হোক রক্তবিষ
ঘৃণ্য পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৩ বার দেখা | ৪২ শব্দ ১টি ছবি
স্বপ্ন
আমি স্বপ্ন দেখি সংগোপনে
রাতের আলোয় ঘুরছি একা,
নীরবতা সেথায় শুধু
স্বপ্ন ছাড়া সবই ফাঁকা।
স্বপ্ন দেখি মানুষ হবার
অমানুষদের যত বাধা,
যতই আসুক দুঃখ ব্যাথা
জীবন হবে স্বপ্ন গাঁথা। আমি স্বপ্ন দেখি নতুন দিনে
উঠবে ফুটে নতুন আলো,
আঁধার নেবে মুখ লুকিয়ে
হোক না যত নিকষ কালো।
স্বপ্ন দেখি মানুষ নামে
আছে পড়ুন
কবিতা | | ৪ টি মন্তব্য | ৯২ বার দেখা | ৯৯ শব্দ
মাংসাশী শহর
এ এক অদ্ভুত হত্যাযজ্ঞ!
এ শহর যেন আজ এক মাংসাশী শহর!
প্রতিনিয়ত এখানে রক্ত, মাংস, হাড়, মাথার খুলি পড়ে থাকে।
বিকট বিস্ফোরণের সাথে সাথে এখানে শুরু হয় মৃত্যুর উম্মাদ নৃত্য,
অস্ত্রের বজ্রধ্বনিতে এখানে বেজে যায় বিস্ফোরণের গান। এ যুদ্ধে সবাই জয়ী হতে চায় এবং জয়ের পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ৬৮ বার দেখা | ৮৫ শব্দ
একাকীত্বের ঘোর
সারাদিন শেষে যখন আমি একা হয়ে যাই,
তখন পিছনে যেতে থাকি আমি; বর্তমান ছেড়ে-
অল্প অল্প করে চোখের সামনে স্পষ্ট হয় তোমার মুখ, হাসি এবং চিহ্ন,
মনে হয় যেন, তুমি দূরে যাওনি- এখানেই আছো আমার হাতে স্পর্শ হয়ে।
ফিরে যেতে যেতে আমি থেমে যাই একটা সময়ের মধ্যে, যার পড়ুন
কবিতা | , | ২ টি মন্তব্য | ৪৭ বার দেখা | ১২৩ শব্দ
টিম্বাকতু
টিম্বাকতু
বিস্তির্ণ প্রেইরি নয়-
ছুঁই ট্রপিক্যাল নিষ্পাদক প্রান্তর,
অলসভাবে বহমান নদ-নদী
ধরিত্রীর বুক ছিন্ন ভিন্ন করে বয়ে যায়। শ্রাবণের প্লাবনে পুষ্টিবর্ধক ভূমি
গুল্ম, ঝোপ, ক্বচিৎ ঘাসে পূর্ণ হয়;
গ্রস্ত উপত্যকা, পর্বত, মালভূমি পেরিয়ে
সতেরোটি নীল পদ্ম এনেছি, চন্দ্রমহিনী।
বহু দীর্ঘ, শীর্ণ, গভীর হ্রদের পদ্ম! অবিরাম রোদে পুড়ে দগ্ধ হয়েছি,
চির হরিৎ পড়ুন
ইতিহাস-ঐতিহ্য, কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ৩৯ বার দেখা | ৫৪ শব্দ ১টি ছবি
সময়গুলো কী করে চুরি হয়ে যায়
আমার শৈশব সময় করে নিয়েছে চুরি
আহা আমি ছিলাম সেই বেলার আকাশের রঙিন ঘুড়ি
নাটাইয়ের সুতোয় ছিলাম না বাঁধা;
আমার শৈশব কী মনোহারি দিন, আহা সেকি ধাঁধা! সময় নিয়ে গেল আমার গোল্লাছুট প্রহর
যেখানে বইতো শুধু দুরন্তপনার লহর;
আমার ডাংগুলি দিন,মারবেল খেলা
সব নিয়ে গেল একে একে, এখানে যে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৫ বার দেখা | ১৫২ শব্দ
দেহের দূরভাষ
সবশেষে গৃহীত থেকে যায় দেহের দূরভাষ
দূরত্ব পরখ করে পাখি দেখে– এই বিকেলের গায়ে
লেপ্টে আছে আমাদের দেহধর্ম, আর উষ্ণতার
আলো জমা হতে হতে যে অতীত হয়েছে বিগত,
সেও কাছে এসে দেখায় সম্মোহন, বলে —
হে জীবন চলিষ্ণু হও, পুনরায় আঁকো চুম্বনের গতিরেখা। এঁকে রাখো এমন কোনও গ্রহের নাম
যেখানে মৃত্যু পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৭ বার দেখা | ৬৭ শব্দ
প্রাণপাত
প্রাণপাত
বৃথা রক্তপাত,
বৃথা এই ঘাত প্রতিঘাত-বিষাদের জ্বালা
অশ্রুস্নাত
কাজলা চোখে চোখ পড়তেই
ভুলে যাই সব
সমস্ত বিবাদ!
স্বর্ণচাঁপা রোদ্দুর
মিষ্টি গন্ধে ভুলে যাই দহন জ্বালা
এলোমেলো চুলে
সনির্বন্ধ মশগুলে
অনায়াসে ডুবে যায় উষ্ণীষ রাত
চিত্ত উন্মাদ
নির্ঝর
কুয়াশার চাদরে অংকিত চিত্র
মত্তযৌবন
প্রাণপাত! পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৫ বার দেখা | ২৯ শব্দ ১টি ছবি
এজমালি সবুজ রং
কতগুলো গালিব সবুজ ঘাস বনানী আর মাঠ ছেড়ে
পুনরায় জেগে ওঠে পাহাড়ি ঘোড়ার শব্দে
সুগন্ধি সাবান-ফেনার মতো অক্সিজেন লেগে আছে
কেবল বদলে দেয় বার্শালো নার্সিসাসে নাড়িছেঁড়া
নবজাতকের প্রথম কান্নার ফলন, ওধারে সুস্বাস্থ্য-
মিরিণ্ডা রঙের গোধূলি নিয়ে ঘরে ফিরছে
এইমাত্র গাছের নতুন পাতায়-আশ্চর্য এক ব্রক্ষ্মাণ্ড; আমরা একদিন পশুদের উপেক্ষা রাক্ষস হিসেবে
ছিঁড়তে লাগলাম পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২১ বার দেখা | ৬৮ শব্দ
দেহ হাঁটি হাঁটি
দেহ হাঁটি হাঁটি
মধ্যরাত শ্যাম শালিকের চোখে
সময় বুঝি গড়ে- গড়ে যাচ্ছে-
ভয়ঙ্কর দেহ বুক ধর- ধর, বুকে;
নিশ্চিত গায়ের জোড়ে ইট ভাটা
জ্বালান যায় অথচ মনের গা দিয়ে
নিভান যায় না,আরও জ্বলতে হয়;
চোখের সাথে মনটা রাখ খোলাখুলি-
দেয়াল বেয়ে উঠে যাবে না তো শ্যাম
শালিকের ফাঁকি-গন্ধ নাকে শুধুই মাটি
আকাশ পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৬১ বার দেখা | ৫০ শব্দ ১টি ছবি
ঘুম ভাঙ্গিয়ে দিলে সহসা
ঘুম ভাঙ্গিয়ে দিলে সহসা
কার্তিকের সকাল, হিমাবেশ, ঘুমে বেঘোর
নিস্তব্ধ পরিবেশ, এই কাক ডাকা ভোর,
দখিন বারান্দার পর্দা দিলে সহসা খুলে,
দিলে তো বাপু ঘুম থেকে তুলে!
এবার চা করে দেখি! ছুটির আরাম চোখের পাতায়, আমি নিঝুম পুরীতে
ঘুমের বাজালে বারো, যেন এক থুড়িতে,
চা না করলে পান এবেলা,
চোখ তো আলোয় পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৬৪ বার দেখা | ১৫৫ শব্দ ১টি ছবি
এক চাঁদের কথা (সনেট)
এক চাঁদের কথা (সনেট)
এ আকাশে চাঁদ ছিলো থালার মতোন
ছড়াতো জ্যোৎস্না রোজ নির্দ্বিধায় হেসে,
দখিনা বাতাস তারে করতো যতন
চকোরের দৃঢ় ধ্যান খুব ভালোবেসে। রূপালী ধারার আশে তরুলতা দুলে
তেষ্টায় গুনতো জেগে অপেক্ষার শ্বাস,
ঊর্মির নাচন দেখে তটিনীর কূলে
শ্বাপদও খুশিতে হতো ডাহুকের দাস। হায় এ কি ভগ্ন দশা সেই পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ১১০ বার দেখা | ৬৬ শব্দ ১টি ছবি
পরিযায়ীর গল্প
পরিযায়ীর গল্প
সাইদুর রহমান অতিথি পাখি আসতে পারে
ষড়ঋতুর দেশে,
দেশের পাখি ‘স্বাগত’ বলে
বরাবরই হেসে। দূরের দেশে বাস করেও
প্রিয় বাংলা ভূমি,
আদর স্নেহ দেয় যে ঢেলে
কাছে টানে যে চুমি। শীতেরকালে মোদের দেশে
পায় আরাম খুর,
সাগর পাড়ে খেয়ে বেড়ায়
দেয় আমোদে ডুব। অতিথি সেবা বাংলাদেশে
বিশ্বে করেছে নাম,
ছাড়ে তাই যে সাইবেরিয়া
ছাড়ে তাদের ধাম। অনায়াসেই খাল-বিলেতে
পোকা-মাকড় পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৯০ বার দেখা | ৬৩ শব্দ