কবিতা বিভাগের সব লেখা

জলনৌকা
বিসর্গ বেলায় শুকিয়ে নিচ্ছ শরীর
সোনা সোনা রোদ – ভাদ্রের দুপুর
অনেকগুলো মুখের কোরাস
পাখির ডানায় লেখা ভ্রমন সূচী
নিভছে অন্ধের দিনলিপি যজ্ঞ শেষ
সবার চোখে পলল ঘুম
উছলে ওঠার সময় এখন
চৈতন্যের দিন আর নেই বাকি
না হয় চোখে ভাসুক
একটা জলনৌকার প্রতিচ্ছবি। পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৩৮ বার দেখা | ৩৪ শব্দ
ব্যর্থতার সুখে
ব্যর্থতার সুখে
দেহ জুড়ে ব্যর্থতার তারা
মিটমিট করে জ্বলছে- এতকিছু
জানা সত্ত্বেও চাঁদের এখনও
অহংকারময় পূর্ণিমা রাত-
ঝলসে যাই অজস্র বেদনায়;
তবু ঘুট ঘুটে অমাবস্যার মনে প্রত্যাশিত
ফুলের গন্ধ ছুঁয়ে যায় যুগান্তর।
তারপরেও মৃত্তিকার যত হট্টগোল
সোনালি মাঠে ফিরে তাকায় না-
ইঁদুর খেয়েছে পাকা ধানের পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৩৭ বার দেখা | ৫৫ শব্দ ১টি ছবি
আমাদের এ জীবনটা
আমাদের এ জীবনটা
আসলে যেন আমাদের এ জীবনটা
পথিকের সে বিরাম স্থল
যেন ভূতল অসমতল;
যেন মানুষের কৌতূহল
যেন এ কচু পাতার জল
যেন সস্তা সে এক খেলনা সাদামাটা। আসলে জীবনটা অকূল সে সমুদ্র
গল্প কাহিনীর চিত্র ছায়া
কখনো এ অন্ধ স্নেহ মায়া;
কখনো মেলে না মায়া দয়া
কখনো নেই মানুষে হায়া
কখনো অশান্ত পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৪০ বার দেখা | ১৩১ শব্দ ১টি ছবি
বিশ্বকাপ ক্রিকেট
বিশ্বকাপ ক্রিকেট
বিশ্বটা যে কাঁপছে এবার
কাঁপছে ক্রিকেট জ্বরে
ব্যাটার আর বোলার এরা
যাচ্ছে সবাই লড়ে। চার হাঁকছে ছক্কা হাঁকছে
হাঁকছে গলার স্বরে
জান তুমি কাপটা এবার
উঠবে কাহার ঘরে? নানান দেশের নানা মানুষ
মাতছে সবাই খেলায়
ব্যাটে-বলে কাটছে সময়
সাজছে ক্রিকেট মেলায়। এই কাপটা বাংলাদেশের
কেউ নিও না ভাগ
টাইগাররা বোলিং ব্যাটিং এ
ভাঙ্গবে সবার দেমাগ! পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১৯ বার দেখা | ৪০ শব্দ ১টি ছবি
বিকল্পিক
আমার শেকলেরা বহুদিন নূপুরের নামাবলি
রেখেছিল গায়ে।
সিঁদুর যেমন ক্ষত, লোহা হ্যান্ডকাপ্,
চিরায়ত নারী ঢং – য়ে
অতর – সতর হয়ে
শতেক খোয়ারি পড়ে ফেলে
ধুন্ধুমার পড়ি – মড়ি জঙ্গুলে
হাওয়ায় সেই এয়ো চিহ্নেরা
দুদ্দাড় পিঠটান,
বেবাক উধাও এবার তোমারই নতুন পালা
নির্বিকল্প সন্ন্যাসীর সাজে
অতসীর বনে বনে
নূপুর বিকল্প খুঁজে ফেরা পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২২ বার দেখা | ৪০ শব্দ
দ্রোহ নেই,শুধুই পাথর
নিক্ষেপ করার জন্য যে জল আমার হাতে
তুলে দিয়েছিলে, তা হয়ে গিয়েছিল শিলা।
দ্রোহের ধানে ধানে সাজাতে চেয়েছিলে যে হেমন্ত,
তা হয়ে গিয়েছিল ধূসর কার্তিকের সূর্য। আমি সেই সূর্যের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে একটি পলাতক
দোয়েলের চোখের দিকে তাকিয়েছিলাম। আমার
অনটন, আমাকে দূরে সরিয়ে রেখেছিল
সকল উৎসব থেকে। একদিন নদীর বুকেও অসংখ্য পাথর পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৮ বার দেখা | ৬২ শব্দ
কিছু মনোহারি ক্ষণ আমার হয়ে আসে
কিছু মনোহারি ক্ষণ আমার হয়ে আসে
বুনোফুলের ঘ্রাণে মাতাল
পথে যখন হাঁটি,
পায়ে তলায় থাকে আহা
ভেজা দূর্বার পাটি। কিছু ছিঁড়ে হাতে রাখি
কিছু আঁচল ভরি,
কী আনন্দে ভাসাই রোজই
আমার জীবন তরী। লাল পিঁপড়ে’রা বাঁধলো বাসা
ঐ না সবুজ পাতায়
তাদের তুলে রাখি আমি
নীল কবিতার খাতায়। পাতার উপর জলের বিন্দু
ছুঁয়ে দিয়ে হাসি,
এই প্রকৃতি ফুল আর পাতা
কত পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৫ বার দেখা | ৬৯ শব্দ ১টি ছবি
নিষিদ্ধ উপমা
শীতের প্রথম দিনে মেঘ উড়ে নামছে
এক সাঁওতাল কিশোরীর শরীর বেয়ে
শাদা হাঁসের মতো; নিকট হয়ে দেখছি
কমলালেবুর প্রবাহ রোদ খোলস ছড়ায়
জলের মুকুরে-এই গাঢ় পৃথিবীর মিথে
পাখির গান আর মেয়েটির নোলকে
ফলন ফলিতেছে নৈকট্য বাতাসের ফ্লেভার কার্পাসের মতো ওড়ে, ইজেল শৈশব-ঝাঁক
এখানে ভিড়ঠাসা লজ্জার বোতাম চেপে
দুঃসময় লেখা হয় যেমন সাতটা আনন্দ
এক পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১৮ বার দেখা | ৫৯ শব্দ
হেমন্তের গান গেয়ে ... চাষী সব ধান কাটে হেমন্তের হিমেল কবিতা (দশম পর্ব)
হেমন্তের গান গেয়ে ... চাষী সব ধান কাটে হেমন্তের হিমেল কবিতা (দশম পর্ব)
হেমন্তের গান গেয়ে চাষী সব ধান কাটে
হেমন্তের হিমেল কবিতা (দশম পর্ব)
কলমে- কবি লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী হেমন্তের রং লাগে মাঠে পাকা ধান,
ধান কাটে গেয়ে সবে হেমন্তের গান।
ধানকাটা হলে শেষ নিয়ে আসে বাড়ি,
ধানের বোঝাই নিয়ে চলে গরু-গাড়ি। জল নিতে আসে বধূ অজয়ের ঘাটে,
নদীপারে মাঠে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ১৭ বার দেখা | ৯০ শব্দ ১টি ছবি
তুমি আসবে
তোমার আশায় বুক বেঁধে আছি
আমি জানি তুমি আসবে,
সকল বাধা পিছে পড়ে রবে
বিজয়ের হাসি হাসবে।
চলার পথে বাধা জানি আছে
আছে হারাবার মত ভয়,
যার মনে আছে সাহস অসীম
করবে সে বিশ্ব জয়।
বিপদ যখন আসে নিজ পানে
কেউ নাহি থাকে পাশে,
সুখের সময় যে ছিল আপন
দুরে তখন সে হাসে।
সম্মুখে তোমার যে পড়ুন
কবিতা | | ১টি মন্তব্য | ৪৮ বার দেখা | ৯৬ শব্দ
দিনে দিনে দিনগুলো মুছে দিক ঋণ ... শুভ জন্মদিন
দিনে দিনে দিনগুলো মুছে দিক ঋণ ... শুভ জন্মদিন
তোমার জীবনের
একটি অপরিহার্য এবং অপরিবর্তনীয়
অংশ বলেই এইদিনটি
কখনো ভুলে যেতে পারবোনা। তাই নিজেকে
আবিষ্কার করা এই আমি,
হয়তো কোনদিন বলতে পারবোনা
সুদূরের ওই কিংবদন্তী পথে
আমাকেই সাথে নিও, হয়তো জোরকরে
করবোনা কোন আবদার
বলবোনা চলো ঘুরে আসি
ওই গোলাপের বন। হয়তো বিশেষ এই দিনটি
এসেছে বলেই আজ অভিব্যক্তিতে
দিলাম তোমায় অভিবাদন এই দিনের
সত্যিকারের আশীর্বাদ পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৩ বার দেখা | ৯৯ শব্দ ১টি ছবি
শব্দ পোড়া গন্ধ
তবুও থেমে নেই চাল-চুলোহীন নিপাতন জলের পতন
যদিও আমার দুরবিন চোখ একলা হাঁটে নিস্তেজ প্রান্তর
মাঝে মাঝে কেবল শব্দ পোড়া গন্ধে আকুল হয় অন্তর
তবুও ডানাভাঙা পাখিরা কেউ থেমে থাকে না
দেদার চলছে কেনাবেচা
অশুদ্ধ হাতের শিরা কেটে ভালোবাসার উল্কি আঁকা;
পার্কের ব্যস্ত টুলে টোলপড়া গালে বাদমের পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৪৪ বার দেখা | ১৫৩ শব্দ
সাদা ক্যানভাস
যে যাকে ভালবাসে, সে- ই তার ভয়।
আছে, তবু নেই হয়ে কৃচ্ছতায় ভাসা,
পেতে রাখা ফাঁদে দেবে ইচ্ছাব্রতী – পা,
সন্ধ্যারতি খেয়ে যাবে আখড়া – আশ্রয়। মৃত্যু নিশ্চিত্ জেনেও যুদ্ধ নেবে মাথা,
কারো কারো এমনই জন্মরোগ থাকে।
যত কেন ভেতর- বার ছতিচ্ছন্ন হোক
স্বকীয় স্বভাব তবু হাঁটে না অন্যথা। ভুল পাহাড়ের কোলে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৪ বার দেখা | ৭৯ শব্দ
মন কথনিকা-৪৪৪৩
দুর্নীতির পায় বাঁধবো বেড়ি, ক্ষমতাটা পেলে,
শুদ্ধতারই স্বপ্নগুলো ধরবো শূন্যে মেলে,
সুশাসন যে তুলবো গড়ে, ক্ষমতা পাই যদি,
মানবিকতার গন্ধ ছুঁবে সুশাসনের গদি। মন কথনিকা-৪৪৪৪
মনে ভেজাল রেখে যদি কথা বলো সুন্দর,
বাইরে তুমি সুন্দর বাপু মন্দ ভরা অন্দর,
বুকের মাঝে দূর্নীতি খুব, মুখে বলো ভালো,
নূরের আলো নেইকো মনে, ভিতরবাড়ী কালো। পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৭ বার দেখা | ৪৪ শব্দ
যন্ত্রস্থ যমুনার মুখ
স্বকালকে সাজিয়ে রেখেছি বিদ্যুতপাথরে। চাইলেই ছুঁড়ে
দিতে পারি। আর পারি স্বীকার করে যেতে শান দেয়া চাঁদের
জনম। নিদ্রার নিমগাছ জড়িয়ে জেগে থাকা ভাদ্রের বিবরণ।
পারি আরো অনেক কিছুই। শোকের সংযোগ খুঁজে যে নদী
বয়ে যায় উজান, তার গতিপথ আটকে দিয়ে আমিও হতে
পারি ঝড়ের সমান। তাবৎ তীক্ষ্ণতার তিমিরে পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ২৩ বার দেখা | ৬৮ শব্দ