কবিতা বিভাগের সব লেখা

অস্তিত্ব সংকটে মানব জাতি
অস্তিত্ব সংকটে মানব জাতি
একটি জীবনের গোড়াপত্তন অবাধ মেলামেশায়,
জন্মের প্রথম প্রহর ডাস্টবিন, ফুটপাতে
রাস্তায় পড়ে থাকা শিশুর অবয়ব,
বিবেকহীন নর-নারীর অপরিপক্ক নেশায়। ফেলে রেখে মা উধাও, বাপ লাপাত্তা জন্মের আগেই,
পরকীয়া, লিভ টুগেদার, কন্ট্রাক্ট ম্যারেজ, মেতে থাকা বারবনিতা পেশায়। সংসারে অশান্তির দাবানল, নিত্য কোলাহল
জীবন হয়ে উঠে উশৃঙ্খল। স্বপ্ন বোনা শুরু পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৬৬ বার দেখা | ১৮২ শব্দ ১টি ছবি
তপ্ত দুপুর, কেমন উদাস লাগে
তপ্ত দুপুর, কেমন উদাস লাগে
ঘুম পায় আমার ঘুম পায়, তপ্ত দুপুর বেলা,
ইচ্ছে করে ভাসাই ঘুমপুরীতে স্বপ্ন ভেলা,
অফিস কর্ম ভুলে, ঘুম এ যেন জেগে স্বপ্ন দেখা,
তার চেয়ে বরং চা খাই, চা ছাড়া সুখ ফিকা। চোখের পাতা ভারি,
ইচ্ছে হয় ঘুমের দেশে দেই পাড়ি
ইচ্ছেগুলো গুঁড়ে বালি,
চা কোথায় পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৫২ বার দেখা | ১৪৪ শব্দ ১টি ছবি
তালের শাঁস
তালের শাঁস
স্বাদের তাল,
তালের মৌসুম হলো বর্ষাকাল
রসে তাড়ি হচ্ছে বহুকাল
তাড়ি খেয়ে হয় মাতাল! স্বাদের তাল,
কেটে বেচে কচি তাল
সুস্বাদু শাঁস দামও আজকাল
শক্ত হলেই হয় তালবেতাল। তালের স্বাদ,
তাল গুলিয়ে খেতে স্বাদ
সাথে মুড়ি আরও স্বাদ
বেশি লবণে পুরোটাই বাদ! তালের স্বাদ,
তাল গুলিয়ে ভাজা বড়া
যার পড়ুন
কবিতা, জীবন | ৪ টি মন্তব্য | ৬৭ বার দেখা | ৫৫ শব্দ ১টি ছবি
বাবা
বাবা
তপ্ত রোদে মরুর বুকে
যেমন –বটের মায়া
মাথার উপর বাবা শুধু
হয়ে থাকেন ছাঁয়া।
এই ছায়াতে সুখে দুঃখে
যাদের জীবন যাপন
তারা জানে এই জগতে
বাবার’চে কে আপন! হাতটি ধরে বাবা যখন
হাঁটতে নিয়ে শেখান
দূর আকাশে তারার মতো
দূরের পথটি দেখান।
হোঁচট খেয়ে পড়লে কখন
ভীষণ পেতাম ভয়
বাবা পড়ুন
কবিতা, জীবন | ১টি মন্তব্য | ৩৯ বার দেখা | ৬৮ শব্দ ১টি ছবি
চল ... বৃষ্টি মোহন জোছনায় নামি
চল ... বৃষ্টি মোহন জোছনায় নামি
বৃষ্টি মোহন জোছনায় নামি চল …
চোখের অতলে টলকে উঠা নেশার মাদকতায় চলো ভিজি,
যৌবনের উচ্ছল সম্মোহনে চল দু’জনে মিলে বৃষ্টি চুমি ! দেখো শিউলি ঝরা উঠোনে বুদ বুদ নৃত্য
রতি মত্ত পতঙ্গের মত
মুঠো মুঠো জোছনা আর বৃষ্টির অদ্ভুত আলিঙ্গন! চল, ভিজিয়ে নিই আগুনের হল্লামাখা পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৪৯ বার দেখা | ১১২ শব্দ ১টি ছবি
শতাব্দীর ঘুম
আমার তন্দ্রাচ্ছন্ন শ্রান্ত দুটি আঁখি
বিরল জনপথ ছাড়িয়ে প্রান্ত সীমায়
এসে বিশ্রাম নেয় কোনো নদীর ধারে,
তবু তোমার দেখা পাওয়া যায় না ।
ঘুম আসে আবার ভাঙে, তোমায় খুঁজি
হয়ত একদিন দেখা পাব এই আশায় ।
আবার ঘুমিয়ে পড়ি, শতাব্দীর ঘুম
তোমার ভরসায় থেকে থেকে প্রদীপ
ম্লান হয়, নতুন প্রদীপ খুঁজে পাই পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৩০ বার দেখা | ৫০ শব্দ
জলস্তম্ভ ও জীবনেরা
আমরা নদীতীরে দাঁড়িয়ে যখন বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করছিলাম,
তখন আমাদের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল একটি শান্ত বাঘ,
তার হলুদ-কালো গায়ের চামড়ায় ডুবেছিল দুপুরের রোদ
কয়েকজন রাখাল, বাঘটিকে চরাতে চেয়েছিল ধূসর মাঠে। মাঝে মাঝে বন্যপ্রাণীরা তৃষ্ণার্ত হয়ে লোকালয়ে ছুটে আসে,
জীবনের জন্য নির্মিত জলস্তম্ভের ছায়ায় দাঁড়িয়ে ওরা চায়,
সবুজ নিঃশ্বাস। মানুষেরা পড়ুন
কবিতা | ১টি মন্তব্য | ৩৮ বার দেখা | ৫৩ শব্দ
বিলম্বিত রূপ
এই বৃষ্টির দিনে বারান্দা হাসছে খুব
শহরের ভেতরে; নির্ঘুম সন্ধ্যায়-
প্রতারণাহীন কর্পূর মেশানো
কী একটা ঠাণ্ডা সবুজ ট্রেন ধরে
মানুষের স্বভাবে ভিজছে শুঁকনো ডালে চাঁদ, বনের ওধারে
আদুরি অন্ধকার, স্নানে ওঠানামা
করে তেরো নদীর জল, মেঘাচ্ছন্ন-
পাহাড়ে দুরু কবিতার বিলম্বিত রূপ
এমন কিছু বুঁদ হয়ে যায়। ধমনীর-
নরকে-সুন্দরময়ী গোপন আনন্দ
কেবল তুমিহীন কাঠগড়া এখানে
ধেয়ে আসে পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ৪৩ বার দেখা | ৫০ শব্দ
অশোধিত ঋণ
অশোধিত ঋণ

অশোধিত ঋণ এবার হিসাব মুখী হয়ে উঠেছে জীবন
যেখান থেকে বোনা হয়েছিলো স্বপ্ন, জন্ম প্রহর
জন্ম-জন্মান্তরের আয়োজন,
যখন থেকে শুরু হয়েছিল চিরন্তন সাধন- অশোধিত ঋণে
জন্মের প্রয়োজনে;
এবার সংজ্ঞায়িত হবার পালা
জন্মের দায়ভার, রক্তের অধিকার আর পূর্ব পুরুষের ধর্মশালা!
একটি চিৎকার নিঃশ্বাসের গতিবেগ ছুঁইয়ে দুর্বার কান্না
সেই প্রথম বার পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৩৪০ বার দেখা | ৫৭ শব্দ ১টি ছবি
আষাঢ়ে খুঁজি শালিক
আষাঢ়ে খুঁজি শালিক
প্রখর রোদের দাপট গেলেই সিক্ত হয় এ আঁখি,
সেই যে তুমি চলে গেলে পত্র লিখে রাখি –
’যতোই ভাবো মোহের কাছে গেলাম আমি হেরে
আসবো কোন আষাঢ় মাসে হয়ে শালিক পাখি!’ কদম কেয়া উঠলে জেগে রয় কি আজও হেলা!
অবাক চোখে চেয়ে দেখি কিশোর পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৮৪ বার দেখা | ১০৪ শব্দ ১টি ছবি
সাহসী বানভাসি
সাহসী বানভাসি
সময় এখন পানির সাথে
যুদ্ধ হচ্ছে- আমরণ যুদ্ধ;
জীবন্ত লাশ পানির উপরে
ভাসছে- অনাহারী কষ্ট
পাতিলে অনল জ্বলে না;
মাদুর পারা খাবার বসে না
-আর্তনাদ সময়ের ঘড়ি-
অথচ বুকের নদে বালুচর
বর্ষা কে ভয় করি না- না!
যুদ্ধ করি প্রতি বছর- এমন কি
ক্ষণে- ক্ষণে, রাক্ষসী বানের
বন্দুকের নলে- রক্তাক্ত ঢেউ
ভেসে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৬৩ বার দেখা | ৫২ শব্দ ১টি ছবি
বাবার শূন্যস্থান মর্মে বাজে
বাবার শূন্যস্থান মর্মে বাজে
মা, কোথায় আছে বাবা? সেই যে কবে মাথায় হাত রেখে বলেছিল
ভাল থাকিস বাপ, মাকে কাঁদাস নে।
আমি কি একবারও তোমাকে কাঁদিয়েছি? বল মা। তুমিইতো দেখি গোপনে কাঁদ;
আমাকে দেখে লুকানোর চেষ্টা কর,
আমার কি দোষ বল? কত দিন হলো বাবা নেই, ঘরটা খালি,
এখনও আসে না কেন?
আমাদের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৮৫ বার দেখা | ১০৮ শব্দ ১টি ছবি
না, একটু ঘুমাই
মানুষ মরছে মরুক না,
কিসের এতো চিন্তা করা-
আমিতো আর মরছি না আজ,
এই দিব্যি বেঁচে থাকা। জলে ডুবছে ডুবুক না,
কেন এতো আহাজারি,
ব্যাটারা দেখ সাঁতার না জানা,
মরবেইতো মরুক না। উন্নয়নের জলস্রোতে গা ভাসিয়ে বেড়াক না,
কিসের এতো চিন্তা বলো,
শ’খানেক মরুক না-
সবাইতো আর মরছে না। তোমরা বাপু বেজায় রসহীন ,
একটু-আধটু পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৯৯ বার দেখা | ১৬৬ শব্দ
প্রেম পিয়াসা
ভালোবাসা মন রাঙা পুণ্য তীর্থ গড়া
প্রেম পুষ্পে গাঁথা মালা বুকে থাকে ধরা,
ছলে বলে অধিকারে যদি তাকে চাও
তাহলে চোখের জল শুধু ফেলে যাও। হৃদয় অপার মর্ম পরস্পর পাশে
বাঁধনে জড়িয়ে থাকে অগাধ বিশ্বাসে,
একে অপরের কাছে শুধু হাতে হাত
এগিয়ে চলার পথে থাকে সাথে সাথ। অন্তরে চির সবুজ বন পাখি পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৩৭ বার দেখা | ৯৯ শব্দ
যত্নে থেকো
যত্নে থেকো
তুমি ভালো থেকো
ভালো থাকার সমস্ত উপকরণ থাকুক তোমার,
আমার সারি বদ্ধ কষ্ট গুলো স্পর্শ না করুক
তুমি নিজেকে স্বযত্নে আগলে রেখো; তুমি তৃপ্ত হও
তৃপ্তির যাবতীয় আয়োজন সু সম্পন্ন হোক।
আমার ক্ষত বিক্ষত-
বুকের দগদগে গা তোমাকে মর্মাহত না করুক;
তুমি মুখ ফিরিয়ে রাখো! অসূয়া চোখে দেখিনি তোমাকে
অশুচ পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | ১১৫ বার দেখা | ৭৭ শব্দ ১টি ছবি