সাহিত্য বিভাগের সব লেখা

সময়ের বৃত্তে বন্দি জীবন
সময় প্রতিটি মানুষের জীবনের সাথে নিবির ভাবে জড়িত। সময়ের ধারাবাহিকতায় জীবন একেক সময় একেক ভাবে তার গতি পাল্টায়। ব্যক্তি জীবনে প্রতিটি মানুষই বিপুল সাহস ও অটল ধৈর্য নিয়ে বাস্তব জীবনের ঘাত-প্রতিঘাত, আশা-নিরাশা এবং আনন্দ-বেদনায় উত্তাল জীবন-সমুদ্র পাড়ি দেন সময়কে আশ্রয় করে। সময় প্রবাহিত হয় পড়ুন
স্মৃতিকথা | | ১টি মন্তব্য | ১৫ বার দেখা | ৭০৯ শব্দ
আমাদের সব কিছু
আমাদের সব কিছু
আমাদের সব কিছু আমাদের সব সম্ভাবনায় অসম্ভবের ভার
চেনা জানা সরল পথে জমে আছে ক্ষার।
আমাদের সব নগ্ন ছবি চার দেয়ালের কাছে
আটকে থাকে কাঠের ফ্রেমে যুক্তি বিহীন ছাঁচে। আমাদের সব দুঃখ গুলো তাঁতীর তাতে বোনা
দিন রাত্রি ঘটাং ঘটাং শব্দ যাবে শোনা।
আমাদের সব ভাবনা গুলো পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ২০ বার দেখা | ১০৮ শব্দ ১টি ছবি
অস্তিত্বের পলায়ন ২
অস্তিত্বের পলায়ন ২
এক উজ্জ্বল অপরাহ্ণের কথা মনে পড়ে যায়। তখন তিনি সবে পোর্টফলিও পেয়েছেন। অবশ্য এই গোপন তথ্যটুকু আর লুকনো থাকে না। অনেকদিনের লালিত চর্চিত আস্থার দল ত্যাগ করে ক্ষমতাসীন দলে ভিড়েছেন। কোনো একবার প্রচণ্ড ক্ষমতা হাতে ধরে পড়ুন
গল্প | ৪ টি মন্তব্য | ৩০ বার দেখা | ৯৪৩ শব্দ ১টি ছবি
সর্প শাপ
সর্প শাপ গাছগুলো ভিজে শেষ।
এমনদিনে সে যেন একলা থাকে
এই আকাশের সারিমেঘ
শীত শীত ব্যাকুল বাতাস আর
ভেজা মন নিয়ে
সেও যেন কাঁদে আরো কয়েকবার যে হারায় সে হারায়
যে জানে সত্যিকারের ভাসান দিতে
সে আর ডাকে না কাউকে
ফিরে ফিরে আসে হাহাকার
বুক ভরা অভিমান
দিকছাড়া ক্ষ্যাপাটে শোক যাকে সে দিয়েছে শোক তারই মতন
সেও অবিশ্বাসী পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ১৫ বার দেখা | ৬৭ শব্দ
তুষারপাতের আগে
তুষারপাতের আগে [] জমে যাচ্ছি, প্রগাঢ় শ্বাসকষ্টের ভেতর। পাতাহীন বৃক্ষের
প্রতিবেশে পাখিরা যেমন মুখ লুকিয়ে রাখে প্রেমিকার
বুকের বা’পাশে। কাঁপছি – পালকে বুনা ভারী কোট
গায়ে দিয়ে, একাকী সড়কে। আমাকে ফেলে রেখেই
চলে যাচ্ছে যাত্রী ভরা বাস। কাজল বরণ রঙ ধারণ করে মাথার উপর,
দাঁড়িয়ে আছে উইকেন্ডের আকাশ।
পৃথিবীর অন্যপ্রান্তে, বিজয়ের পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১১ বার দেখা | ৭৭ শব্দ
অপূরণীয় আলো
অপূরণীয় আলো রোদ মুখের ওপর পড়ে জ্যোৎস্না হয়ে গেছে
আমার হাতের আঙুলেও লেগে প্রতিমানির্মাণ।
ভাবছি, যদি কোনোদিন তোমাকে রাজি করাতে পারি মহাপীঠ পর্যন্ত
দুজনকে মুখোমুখি বসিয়ে দেখবো — আসলে কে নীলোৎপল, মণিকর্ণিকা বাইরে অপূরণীয় আলো
গাছের টেবিলে পাখিদের কফিহাউজ ভোরবেলা
দেখে মনে হবে দুঃখ কোথাও একজিস্ট করে না সব ছেড়ে দিলে যে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১৫ বার দেখা | ৯৫ শব্দ
Facebook Profile photo
বিব্রত অস্তিত্ব
বিব্রত অস্তিত্ব টবে লাগানো সেদিনের বেলী, আজ
স্বাদে, ঘ্রাণে বাস্তবতায় স্পর্শকাতর
অতিথি পাখিরা ঋতুর নিয়মেই আসে,
আবার ভাটার টানে চলেও যায়। সেদিন পেয়েও পেলাম না স্পর্শ
হলুদ কলঙ্ক,
প্রসন্ন গ্রীবা, স্তন, চূড়ান্ত সান্ত্বনা
ভোরের শিশির দানায় লুকোচুরি খেলা
কালো কলঙ্ক, আর বিষণ্নতায় খুলে দেয়া
স্বেচ্ছাসেবী ধর্ষণ দরজা। অতঃপর আলোর নিচে আছি বিকল্প সুখে পড়ুন
কবিতা | ৭ টি মন্তব্য | ১৯ বার দেখা | ৪২ শব্দ
সমাধি ঘরে
সমাধি ঘরে শেষে শুধু ছাই সব কিছু জ্বলে পুড়ে
থাকে না তফাৎ মানুষ আর বস্তুতে;
ভেসে বেড়ায় হৃদয় চিক ঐ ইথারে
মিশে রয় দুঃখ আর যন্ত্রণা তাতে।
বাহির থেকে কেউ বুঝে না সে আগুন
কেউ করে না অনুভব, রয় অদৃশ্য;
আর বেড়ে হয় যখন তা বহুগুণ
মানুষ হয় এত উন্মাদ, অবিশ্বাস্য। হৃদয়ের সে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ১১ বার দেখা | ৭৫ শব্দ
সাধ ও স্বাদের সমীকরণ
চৌরাস্তার মোড়ে গুণ্ডি দোকানে ভিড় বাড়ে
পোড় তেলে পাকোড়া ভাজে সস্তায়
ছানা মুড়ির নাস্তায় চায়ের ঝড়ে, খাস্তায়।
রসের অংক কষে,
গরম কাপের উত্তাপ জুড়ায় ফু তে –
চুমুর ভঙ্গিমায়, শ্রু’তে উলুর ধ্বনি
ছোঁয়ার ধর্ম মেনে যশে চিনি, দুধের স্বাদ!
এভাবে সাধ বাড়ে
রোজ রোজ পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | ১৬ বার দেখা | ১০৭ শব্দ ১টি ছবি
বেকার
বেকার

এক
– মা, মা তুমি কোথায়? ভাত দাওতো। এই কথা বলতে বলতে আদর খাবার রুমে ঢুকল।
আদরের মা চড়া গলায় বললো, কি হয়েছে? এত চিল্লাছিস কেন? নবাবজাদা সারাদিনতো টইটই করে ঘুরে বেড়াস আর ঘুম থেকে উঠস দিনের বারটায়। পড়ুন
গল্প | | ৪ টি মন্তব্য | ২১ বার দেখা | ২০৭৯ শব্দ ১টি ছবি
ঘুমঘরের হাহাকার
পাটওয়ারী,
তুমি কি ঘুমিয়ে গেছো?
চারদিকে এখন কাঁচা অন্ধকার
আমি দাঁড়িয়ে আছি পৃথিবীর মধ্যিখানে
উত্তুরে তারার মতো শিহরণ বুকে নিয়ে পাটওয়ারী,
এখন ঘুমানোর সময়
বুকের ভেতর তোমার রক্তিম রোগ
ইচ্ছে স্রোত বইছে সেথায়
কে শোনে সর্বনাশা পৃথিবীর বুকফাটা যন্ত্রনা এখন চন্দ্রাহত সময় ব্যথিত অহরাত্রি
পাটওয়ারী,
ঘুমিয়ে গেছো বুঝি?
তোমার নিঃশ্বাস থেকে খসে পড়ছে
নীলক্ষেত শাহবাগের হাহাকার। পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ১৭ বার দেখা | ৪৪ শব্দ
যৌবনের কবিতা
এ যৌবন মোমের মতো গলে
কাম রূপের তীক্ষ্ণ অনলে
এ যৌবন মিশে যায় জলে
নদীর নাম সর্বনাশী বলে; টানছে কাছে দারুণ ছল
ধরতে চাই মেঘের আঁচল
যদি বৃষ্টি নামে অনর্গল
ভিজে যাবে ঘাসের দল
খুলে রেখেছি করতল
বেজে ওঠে পায়ের মল; ঢেউয়ের ওপর রেখে ডানা
ভেসে যেতে নেই তো মানা
জলপরীরা দিচ্ছে হানা
ঠোঁটে আছে মধুর ফেনা
চাঁদ পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৩১ বার দেখা | ১৫১ শব্দ
সাদা কাগজে জল রং
বর কনের মেলা ঘাস ফুলে শিশির দানা
মুক্তার স্ফটিক হাসে
ভোরের আলো যেই ছুঁয়েছে
ঝিকিমিকি রঙ খেলে। শিউলী ঝরে শিউলী তলায়
শিশিরে ভেজা ঘাস
ফুল কুড়াতে ভুতু সোনার
শীতে কাঁপে ঠোঁট। ফুলের ডালা শিউলী ফুলে
বাহারি রং ধরে
শিউলী ফুলে পুতুল বিয়ে
বরকনের মেলা বসে। বাঘা ফড়িং ডোবার ধারে শালিক জটলা
কিচির মিচির ডাকে
হাসের ছানা ডুব সাঁতারে
শীতল জলে পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | ৪৬ বার দেখা | ১৪৭ শব্দ
মাত্র একটি শব্দ-উচ্চারণের হেরফের
মাত্র একটি শব্দ-উচ্চারণের হেরফের তেমন করে যাওয়া হয়না।
কোন সীমাহীনেই তো হারিয়ে যেতে চেয়েছিলাম————-
গন্তব্যবিহীন এক ট্রেনের হুইসেল যখন বেজে ওঠে,
বলি–একটু থামো।ভেবে দেখি আর আমার নেবার মতো কিছু বাকী আছে কিনা। নিতান্ত প্রকৃতির খেয়ালে বেড়ে ওঠা অশ্বত্থ–কতদূর তার শিকড় ছড়ায়
কেমন রাশি রাশি নেমে আসা ঝুরি-জটাগুলো ঘিরে রাখে তার পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | ১৬ বার দেখা | ৯৪ শব্দ
স্তব্ধ হোক এ হত্যাউল্লাস
স্তব্ধ হোক এ হত্যাউল্লাস এই বীভৎস মৃত্যুই কি প্রাপ্য ছিলো!
নপুংসক বীর্যের লেলিহান শিখায়
ঝলসে গেলো ফুলের জলসা,
এই শেষ নয়, অসংখ্য রক্ত নদীর বন্যায়
মাতৃ জঠর শব্দহীন, প্রাণহীন।
প্রাগৈতিহাসিক গুহায় –
সময় মুখ লুকিয়েছে, লজ্জায়। তবে জানি আসবেই সেই সূর্যসকাল –
যেদিন পৃথিবীর সব জহ্লাদ,
ভালোবাসার শিলালিপিগুলো
সমুদ্রের গভীরে গিয়ে তুলে আনবে,
পৃথিবীর সব মারণাস্ত্র পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | ১৮ বার দেখা | ৫৬ শব্দ