বোরহানুল ইসলাম লিটন-এর ব্লগ

কবির জন্ম নওগাঁ জেলাধীন আত্রাই থানার অন্তর্গত কয়েড়া গ্রামের সম্ভ্রন্ত এক মুসলিম পরিবারে। পিতা মরহুম বয়েন উদ্দিন প্রাং ছিলেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও মাতা লুৎফুন নেছা গৃহিণী। বর্তমানে কবি একই থানার অধিনস্থ পাঁচুপুর গ্রামে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। তিনি অনেকটা ‍নিভৃতচারী লেখিয়ে।

একটা খেলার মাঠ খুঁজি!
একটা খেলার মাঠ খুঁজি!
পড়ন্ত বৈকালে, একটা খেলার মাঠ খুঁজে
আমার মনোরথ,
যার একপাশ দিয়ে সর্পের মতো এঁকে-বেঁকে
বহুদূরে গেছে স্বপ্নিল মেঠো পথ। যেখানে নেই সেই কিশোরের দল,
হাতে হাতে মোবাইল নিয়ে আনত মস্তকে
গোপন কোন ছবি দর্শণে ব্যস্ততায় যারা অটল।
নেই হরেক খেলায় কোলাহলরত দুষ্টু মতির পরিবর্তে
বেপরোয়া এক ছাগ,
গড়লেও বাচ্ছারা পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৫১ বার দেখা | ৯৮ শব্দ ১টি ছবি
সন্ধ্যা বেলার তারা
সন্ধ্যা বেলার তারা
খুব ছোট তখন –
সন্ধ্যা হলেই কুপি জ্বালিয়ে বসতাম খোলা উঠোনে,
বাবাই পড়াতেন অতি যত্নে।
বুঝানোর ফাঁকে রোজ শুনাতেন ‍উপদেশ বাণী,
দিতেন স্নেহের পরশে গেঁথে
মানুষের প্রতি মানুষের কর্তব্য জ্ঞান।
আমাকে নিয়ে অনন্ত আশা পুষতেন তিনি মনে।
বুঝতাম না –
হয়তো বা তাই সুযোগে পেলেই উঠতাম দুষ্টুমীতে মেতে
আর পড়ুন
কবিতা, জীবন | ৬ টি মন্তব্য | ১০৬ বার দেখা | ১০৮ শব্দ ১টি ছবি
দু’টাকার আশা (সনেট)
দু’টাকার আশা (সনেট)
যৌবন অঙ্গার হলে বার্ধক্যের ধারে
বইবো বিধ্বস্ত দেহ বহ্নিমান শ্বাসে,
হারলে স্বপ্নিল প্রেম কলঙ্কের দ্বারে
বিক্ষত প্রত্যয়ে রবো অশনির পাশে। সজীব ব্যস্ততা গেলে মরুদ্যানে থেমে
ভঙ্গুর আস্থার বুকে বাঞ্ছা দিবো সঁপি,
কর্তব্যের তীব্র ঘাতে ক্লান্তি এলে নেমে
অতৃপ্তি যা চষে যাবো কুণ্ঠাহীনে জপি। দুরন্ত শৈশব তবু নিবো আমি পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮৩ বার দেখা | ৭৪ শব্দ ১টি ছবি
আমি বিশ্রাম চাই!
আমি বিশ্রাম চাই!
বিশ্রাম চাই গো আমি,
হে আমার অন্তর্যামী!
ক্লান্ত পরিশ্রান্ত এই ভগ্নসার কায়া,
অস্থির মননে খুঁজি চতুর্দিকে সুশীতল ছায়া।
দেবে কি পুষ্পিত বাগ,
বক্র চক্ষু নেই যেথা হিংসা দ্বেষ
দুর্জনের অনুরাগ? ’অন্ধের অস্ফুট আশা ক্ষুধিতের শ্বাস,
অবলার হৃদে তুমি সুদৃঢ় বিশ্বাস’
কেন জমবে তবে ব্যস্ত নাবিকের হার,
অকূল পাথারে যেবা ক্ষণে পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০৮ বার দেখা | ৭৬ শব্দ ১টি ছবি
ও সখী রে! (গীতিকাব্য)
ও সখী রে! (গীতিকাব্য)
নিশীথে দু’চোখে নামে ঢল!
ও সখী রে,
নিশীথে দু’চোখে নামে ঢল!
জ্বলন্ত শত স্মৃতি
সাজায় বিরহী গীতি
বুঝে তা জোনাকী করে ছল।
ও সখী রে,
নিশীথে দু’চোখে নামে ঢল! জ্যোৎস্নার ধারে যদি খুঁজি তোর মুখ,
কাতরে বিহগী ডাকে কেড়ে ক্ষীণ সুখ।
নিতে এ আঁজলা আয়ু
ট্যারা চোখে ঘুরে বায়ু
অদূরে মেঘেরা গড়ে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৭ বার দেখা | ৬৯ শব্দ ১টি ছবি
দুর্গম পথের যাত্রীর প্রতি (সনেট)
দুর্গম পথের যাত্রীর প্রতি (সনেট)
শ্রমের আঘাতে কভু টলে দেহ যদি
হে পান্থ বিশ্রাম খুঁজো দু’পায়ের তালে,
অক্ষিরে যন্ত্রনা দিলে রৌদ্র নিরবধি
ঘর্মাক্ত দক্ষিণ হস্ত রেখো তপ্ত ভালে। তৃষ্ণা বা ক্ষুধার তোড়ে বক্ষে এলে ঢল
হে যোদ্ধা বিশ্বাসী ধারে দম নিও গড়ি,
মোহের জৌলুস তবু কাড়ে যদি বল
সাধের জনমই ভেবো অকূলের পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০৪ বার দেখা | ৭২ শব্দ ১টি ছবি
তুমি, জাগবে না কাণ্ডারী!
তুমি, জাগবে না কাণ্ডারী!
তুমি, জাগবে না কাণ্ডারী!
দ্যাখো না কেমনে আন্ধার ঘুরে
বাঁকা ঠোঁটে দিয়ে আড়ি! দেয় না আজকে কিঞ্চিত আলো
ক্ষণিকের তরে শশী,
হয়তো বা আছে মেঘের আড়ালে
তারারাও চুপে বসি।
পেঁচক ডাকছে কর্কশ স্বরে
গড়ে দিয়ে ভীতি ক্ষীণ অন্তরে
বায়ু বুঝি তার উগ্রতা দেখে
কেঁদে করে আহাজারি।
তুমি, জাগবে না কাণ্ডারী! উত্তাল ঢেউ পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৭৬ বার দেখা | ৬৯ শব্দ ১টি ছবি
সব আছে তবু কিছুই নেই
সব আছে তবু কিছুই নেই
কে বলে রে সব আছে নেই চলে অনটন?
চারিদিকে কেন তবে নেই নেই গর্জন?
ধন আছে মন আছে আছে জানি নিঃশ্বাস,
কও দেখি কটা বুকে জাগে তবু বিশ্বাস? খাল বিল ভুলে গেছে কারে কয় নীল জল,
ধুলি বিনে মেঠো পথ সুর হারা দুর্বল।
কাশ খেয়ো শরতের পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩১৪ বার দেখা | ১১৮ শব্দ ১টি ছবি
জীবনের পথে
জীবনের পথে
বয়স তো ভাই অনেক হলো, যায় কি রাখা ধরে!
ক’দিন বাদেই হয়তো বা যম জানটা নিবে হরে।
হয়নি আজও কিছুই কেনা
গুনছি তবু কালের দেনা
চাওয়া পাওয়ার রজ্জুতে রোজ গিট্টু নতুন গড়ে।
মন জেনে কি থামছে ক্ষণিক বাস্তবতার দোরে! যদি ভাবি হোক না জীবন সবুজ গাছের পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৫ বার দেখা | ৬৮ শব্দ ১টি ছবি
কঞ্জুস
কঞ্জুস
পাশের গাঁয়ের কদবেল আলী
ভীষণ চতুর লোক,
কোনদিন তারে করতে দেখিনি
পরের কারণে শোক। কঞ্জুস বলে বেশ আছে খ্যাতি
যদিও পায় না দাম,
সুখে-দুখে তবু সকলেরই মুখে
জেগে থাকে তার নাম। জমি-জমা আছে পুকুরেও মাছ
খায় না কভু সে ভালো,
খরচের ভয়ে ভুলেও দেয় না
জ্বালাতে সাঁঝের আলো। কথা বলে সদা শুদ্ধ পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৮০ বার দেখা | ৭৪ শব্দ ১টি ছবি
ওরে বাবা!
ওরে বাবা!
ওরে বাবা! রাত্তিরে
দেখি এক গেছো ভূত,
ঘরে ঢুকে করছে সে
ঘুরে ঘুরে খুঁত খুঁত।
এই সাজে চিতা বাঘ
ভাবি বুঝি দেয় হানা,
ফের দেখি ডেকে উঠে
বিড়ালের কালো ছানা। বুজলেও দু’টি চোখ
সাপ ফুঁসে দেয় দৌড়,
চুপিসারে দোর খুলে
ভল্লুক সেজে চোর।
টমি এসে মাথা নাড়ে
নিশ্চয় নয় পোষা,
হাতি ছুটে শুঁড় তুলে
হায় পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৩৯ বার দেখা | ৬৮ শব্দ ১টি ছবি
গেন্দি মাসির হাসি
গেন্দি মাসির হাসি
পাশের বাড়ির বুদ্ধু জেঠা
খাবার আশে ভাজি,
হাট থেকে এক ছোট্ট ইলিশ
কিনছে হয়ে রাজি। জেঠি শুধায় দুর্দিনে আজ
এই কি তোমার শান?
শুনেই এ বাক জাগলো আড়ে
সজাগ দু’টি কান। বুঝায় জেঠা ক্যান করো আর
আফসোসে হায় হায়!
কাল না হলে দু’দিন পরেই
করবো ফের এ আয়। তারচে’ বরং মাছে দেখে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১০১ বার দেখা | ৬৩ শব্দ ১টি ছবি
ছোট্ট সোনালী পাখি
ছোট্ট সোনালী পাখি
আজও খুঁজে তারে আঁখি,
যে ছিল আমার আশা জাগানিয়া
ছোট্ট সোনালী পাখি। রোজ প্রাতে এসে জানালার ধারে
বসে বৃক্ষের ডালে,
গাইতো সে গান সুরেলা কণ্ঠে
পবনের তালে তালে। কভু যদি মোর বিছানা ছাড়তে
হতো ক্ষণকাল দেরী,
শুকনো পত্র দুলায়ে বাজাতো
বিরহের রণভেরী। দিবসে সে সদা পাশেই থাকতো
কতো তার অভিমান,
পলকে পলকে গড়ে পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৪ বার দেখা | ৫৭ শব্দ ১টি ছবি
রাগের তরে টাকলা দাদু!
রাগের তরে টাকলা দাদু!
টাকলা দাদু যাবেই রেগে করছে মনে পণ,
সকাল থেকে ঘুরছে সে তাই রৌদ্রতে বনবন।
ভাবে মাথা গরম হলেই আসবে ছুটে রাগ,
চলবো আমি দর্পে তখন যেমন ফুঁসে নাগ। ভর দুপুরে বললো দাদী সোহাগ ঝরা স্বরে,
রাগ তো করা অনেক হলো এবার চলো ঘরে!
চোখ করে লাল পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪২ বার দেখা | ১৬৮ শব্দ ১টি ছবি
বলতে আছে মানা
বলতে আছে মানা
ভীষণ নাকি মুখ্য ব্যাপার
শুনেই তাড়াতাড়ি,
দেখার তরে দৌড় দিয়ে সব
চললো রাজার বাড়ি। মরলো পথে দীনুর ছেলে
ব্যস্ত চলার ঘাতে,
ছুটলো তবু ঠ্যাং নিয়ে কেউ
আছড়ে পড়া হাতে। পৌঁছে সেথা দেখলো কি ভাই
বলতে আছে মানা!
বেশ সয়ে ক্লেশ রাণীর বিড়াল
পাড়ছে বলে ছানা। পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৪ বার দেখা | ৩৪ শব্দ ১টি ছবি