মৌসুমী মণ্ডল দেবনাথ-এর ব্লগ
সুইট সিক্সটিন
সুইট সিক্সটিন কিছু কিছু সত্যি গল্প বহু বছরের জন্যে মনে গেঁথে বসে থাকে। যেমন ক্ষিধে কোনো দিনও শেষ হয়না। আকাশ কোনও দিন মেঘশূন্য হয়না। পাখিরা খড়কুটো ঠোঁটে গাছে বাসা বাঁধবেই। একটা গ্রাম গ্রাম শহরের পাশে স্বচ্ছতোয়া ছোট নদীটি। এই নদীর নীল জলের তলায় বাস রূপোর ঝিনুকদের। পড়ুন
জীবন | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩৯ বার দেখা | ৪১৯ শব্দ
ঝরো পূর্ণতায়
ঝরো পূর্ণতায়
ঝরো পূর্ণতায় না হয় চুপটি করো। থাকবো রাতের পাশটিতেই
কতোটা মেঘ জমলে পরে, কান্না ঝরে বৈশাখেই এখন যেমন গাইছে পাখি, ব্যালকনিতে সূর্যোদয়
বৃষ্টি তোমায় ছন্দ দেবো, ঝরবে ঝরো পূর্ণতায় যেমন ক’রে পাহাড় ফুরোয়, ধূসর বাসর নীলঘন
কালচে মৃত্যু ছড়িয়ে বনে, সবুুুজে প্রাণ নিমগ্ন বরফদেশের সুরগুলো সব, পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২০১ বার দেখা | ৭০ শব্দ ১টি ছবি
প্রাণহীন
প্রাণহীন
প্রাণহীন একদল হরিণ রোজ সীমান্ত পেরিয়ে
ঘাসের খোঁজে আসে
-জীবন
শীতের রোদ মেখে আগুন হয়ে যায় গুপ্ত চাঁঁদ
শস্য ক্ষেতের তীর ছুঁয়ে মৌন মিছিল হাঁটে
-বিদ্রোহ
পাহাড়ের গা বেয়ে নেমে আসে চা বাগান
আমলকী বনের নিরুত্তাপ ঝরনার ছায়ারা
—সবুজ
একদল শরণার্থী কোলে শিশু কাঁটাতার পেরোয়
ভীরু পায়ে পায়ে ক্ষিধে আঁকা শূন্য পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৬৬ বার দেখা | ৭৫ শব্দ ১টি ছবি
একদিন
একদিন
একদিন আর কতো বড়ো আয়না হলে নিজেকে দেখতে পাবে তুমি?
ক্যামেরায় তোলা মানুষের ছবিগুলো সাদা কালো, সাদা কালো।
শুধু কৃষ্ণচূড়ারা লাল হয়ে আছে।
কিছু বোকা মানুষ যারা খরগোশকে কোনওদিন ভালোবাসেনি, তারা কৃষ্ণচূড়ার লালকে আলাদা করতে চাইছে।
মে ‘মাসের একটা সারাদিন ধরে রাজপথে
ঝরছে লাল টুপটাপ টুপটাপ।
খরগোশটা পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৬৯ বার দেখা | ১০৬ শব্দ ১টি ছবি
নিভে যাওয়া কথা
নিভে যাওয়া কথা
নিভে যাওয়া কথা এই যে বসেছ পাশে ল্যাপটপে ছবি হয়ে
জানালার পাড়ে ধূপছায়া শাড়িতে দুলছে
চৈত্রের আনমনা বিষণ্ণ দুপুর,
একটা ডাহুক ডাকছে কখন থেকে
যেন একটানা অসহ্য বিবশ মাইগ্রেন,
বিছানায় এলো হয়ে পড়ে আছে কার রৌদ্রশরীর,
একটা, দু ‘টো আলতা পরা বেহাগ কথা
ছিটিয়ে দিচ্ছো খইয়ের মতো যন্ত্র পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯১ বার দেখা | ৮১ শব্দ ১টি ছবি
রোমন্থন
রোমন্থন
রোমন্থন সাগর যতোই নীলাম্বরী, জাহাজ কিন্তু কম্পাসের
সন্ধ্যে জ্বলে হ্যালোজিনে, তারিফ থাকে জোছনার ঝাউবনেরা উড়ছে হাওয়ায়, সমুদ্র স্নান দম্পতির
একটি ঝিনুক ঠেকলো তীরে, ঝড়ের পাশেই অভিসার ঝরা পাতার শব্দ জমে, ডায়েরিতে আজ অমনিবাস
ঝাপসা বয়স একলা ঘরে, জানলার আজ মনখারাপ পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২০৬ বার দেখা | ৩৪ শব্দ ১টি ছবি
আমি ও তুমি
আমি ও তুমি
আমি ও তুমি বরং তুমি এসো বৃৃষ্টি বিকেল, গান সাজিয়ে মল্লারে
অঙ্গে আমার ঢাকাই শাড়ি, তুুমিও মেঘের বন্দরে
এক পশলা কথার পরেও, জমলো কিছু অভিমান
লেবুফুলও হঠাৎ উদাস, বেহাগ সেতার তরল তান
আগুনরঙা গোধুলিতে, পলাশ ফুুুল আর জৌনপুরী
ভুট্টা কিছু উনুন সেঁকে, বিভাস রাগের ফুলঝুড়ি ভিজছে পাখি পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৯৯ বার দেখা | ৭৯ শব্দ ১টি ছবি
শহর তুমি কার
শহর তুমি কার
শহর তুমি কার সমুদ্রের জলে কান্নার কোনও যতি নেই
ইচ্ছে নীলের গভীরে মৃত্যুহীন জেলিফিশের বাস
সমুদ্র তার নিগূঢ় বিষাদ প্রহরের
দুঃখ গুছিয়ে রাখতে জানেনা
আবদার রাখে কলম্বাসের দূরবীনে
দূর পাহাড়ের পাদদেশে চুম্বন গচ্ছিত রাখে,
শুধু নিষ্পাপ শিশুরা যখন তার
জলের শরীর ছোঁয়, তার মা হতে ইচ্ছে হয়
স্নান শেষে পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৯৩ বার দেখা | ৭২ শব্দ ১টি ছবি
অরণ্য পরিবার
অরণ্য পরিবার
অরণ্য পরিবার এমনই তোমার মেঘে ঢাকা রীতি। যেন কোনও দিন দেখোনি বজ্রপাত
দুপুরের ছাদে উড়ছে পোস্টকার্ড চিঠি। যেন নীল প্রজাপতি ও জলপ্রপাত একদিন বাতিল কৃষ্ণচূড়ার ফুল। যেন প্রমাণ লোপাট হলো বেঁচে থাকার
ডোরাকাটা রাস্তায় ছেঁড়াপাতা পড়ে। যেন মৃত্যু নিষাদ মেঘ ব্রাত্য কবিতার তারপর জাগে ছিন্ন পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫১৩ বার দেখা | ৫৮ শব্দ ১টি ছবি