আকাশ হাওলাদার-এর ব্লগ

কাউকে বলতে না পারা কথা গুলো জীবনের এক আলোয় লেখার রূপ নিয়েছে যা জীবনের এক অনাকাঙ্ক্ষিত অংশ!!

দুর্ভোগ
দুর্ভোগ
সবুজে সমবৃদ্ধি
কোলাহলে অনাবৃতি,
জাগ্রত মহল
কাগজই সম্বল! রূপের দুনিয়ায়
মগজে পোকা,
বাস্তব চিত্তে
আগ্নেয়াস্ত্রর খেলা! মানবিক দৃশ
জগতের উৎস,
সমাদৃত অরণ্যে
কলঙ্কের মূলমন্ত্র! ভালো কাজে
রোইয়াছে চোখ,
মন্দ কাজে
নাই গো কোনো সুখ! স্বর্গের লোভ
দুনিয়ার ভোগ,
মানব রূপে
রোইয়াছে চোখ! চারকোনে দিক
সত্যের কনিশ,
নিত্যনতুন ন্যায়
তৈরী হয় ব্যয়! ভোগের তারণায়
সৃষ্ট লোভ,
অন্ন হারায়
তীক্ষ্ণ রোগ! মুক্ত মঞ্চে
নেই মুক্তি,
তস্করী তো আজ
খোলা পড়ুন
কবিতা, জীবন | ৪ টি মন্তব্য | ৫২ বার দেখা | ৮৩ শব্দ ১টি ছবি
মনস্তাত্ত্বিক
"মনস্তাত্ত্বিক"
অতীতের কিছু ভুলে
পোকা জন্মেছে মগজে,
চক্ষু লজ্জায় ডুবেছি বলেই
চোখ আজ খসে পড়ছে! চিৎকার পৌঁছে গেছে
মস্তিকের পোকার কাছে,
যাদের গুনগুন আজ
তীক্ষ্ণ যন্ত্রনা বহন করছে! মনের ঊর্ধ্বে চিত্ত বহন
আত্মমনে মনস্তাত্ত্বিক দহন!
অবিকল আত্মার শরীরে
অক্ষত রক্তের প্রবাহ,
উজ্জ্বল রঙের রশ্মিতে
মানব মস্তিক হয় বাষ্প! আঘাতের আত্মঘাতে
পরিলক্ষিত আবরণ,
মানব মস্তিকে হয়
অনাগত রক্তক্ষরণ! উষ্ণ পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৪৬ বার দেখা | ৬৩ শব্দ ১টি ছবি
আমি জন্মেছি মা গরীব ঘরে
আমি জন্মেছি মা গরীব ঘরে!
পাইনি খাবার, পাইনি সুখ,
মাথা রেখে ঘুমাবার জায়গাটাও ছিলো অনেক বড় স্বপ্নের! ইচ্ছে ছিলো হবো অনেক বড় মানুষ
তাকিয়ে দেখি এই সব বড়োলোকের হুশ!
পড়ার জন্য ছিলো না কাপড়
ছিলো না কোনো প্রসাধনী
নিজেকে আজ উপহাসের পাত্র বানিয়ে
হয়েছি মানবতার প্রতিধ্বনি! ছিলো স্বপ্ন মানুষ হওয়ার
ইচ্ছে ছিলো অনেক
শিক্ষার আলো পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | ৪৯ বার দেখা | ১৫৯ শব্দ
আমি উন্মাদ কবি
আমি উন্মাদ কবি
আমি তো অবক্ষয়তার প্রাণী,
আমি তো অপ্রাণ,
আমি কর্তৃত্বের ভারে
বেঁচে থাকা সরলতার অভিমান! মানবিক দৃষ্টি কোনে চেয়ে দেখো তুমি
উন্মাদের সৃষ্টি তে আমি এক অভিশপ্ত প্রাণী,
আমি তো উন্মাদ কবি
আমি তো ক্ষিপ্ত এক রাহাজানি! আমি তো হতে চাই নি উন্মাদ কবি
আমি চেয়েছি হতে সরলতার প্রতিধ্বনি,
কে বানিয়েছে যে আমায় পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৬১ বার দেখা | ১৯১ শব্দ
দাসত্ব
দাসত্ব করছো কার
নিজের নাকি অন্যের,
বেঁচে আছো নামে,
দাসের জীবন রেখে,
হয়তোবা মরবে এখনি,
দাসত্বের জীবন ছেড়ে
আজ বেঁচে থাকা দায়,
এই জীবন রেখে কি লাভ
যদি দাস হয়ে বাঁচো,
ভয় করছো কিসে
দাস থেকে দাসত্বে,
তুমি নিজের পরিচয় বানাছো! দোষ তো আমাদের না
দোষ তো ওই পূর্বপুরুষের,
যারা নিজের খেয়ে
অন্যের গোলামী করেছে
যুগের পর যুগে,
এরা কারা পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৪৬ বার দেখা | ১১৯ শব্দ