আবু মকসুদ-এর ব্লগ
বেঁচে থাকার গল্প
পলায়ন প্রবৃত্তি শেষে পুনরায় ফিরতে চাইলে
পাড়ার সীমাবদ্ধ বাতাস তার অনমনীয় অন্তরে
স্থান দিতে রাজী হয় না, পরদার আড়ালে
দাঁড়িয়ে ভূমির অগ্রগতির বয়ান দিতে থাকলে
পরদার ওপাড় জানায়
কালের পথে সেও হেঁটেছে, নিদারুণ যন্ত্রণার
শেষেও নিরবচ্ছিন্ন করেছে শ্বাসঘাত একটা অনিয়ন্ত্রিত জীবন যখন প্রায়
স্থিত হতে শুরু করছে, অন্তরের মর্মবেদনা যখন
অভ্যন্তরীণ চিকিৎসায় পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯৫ বার দেখা | ১১৫ শব্দ
প্রাণের পিরিতি
প্রাণে পোঁতে রাখা সোনা খাল
চিরতার শরবতে বড় স্বাদ
তোমার মুখ পড়ি মুখস্ত নিয়মে
জীবন মানেই ঢেউয়ের প্রবাদ সময়ে বড় হয় আঙটির আঙুল
সিথানে রাখি বয়সের শব
ঝর্ণা উড়ে আসে নাড়িয়ে নুপুর
বাতাস শুনে পিরিতের স্তব কালের নিয়মে পার করি কাল
ঘোর সংসারী আমি এই
কেন লজ্জায় মুখ করি লাল পড়ুন
ছড়া ও পদ্য | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২২৩ বার দেখা | ৪১ শব্দ
প্রতিজ্ঞা
ছুঁয়ে দিলে গুটিয়ে গেলে লজ্জাবতী
মনোহরী কাঁটাঝোপে ওড়না বিহীন
গুটালে কেন রেশমি চুলের জলাশয়ে
আমার কাছে রোদ্দুর আছে, তোমায় দেবো। ঘাসের বুকে প্রজাপতির আলপনা
একটু দূরে কাশের নদী, অভিমানী
নদীর পাড়ে ছেলেবেলা, বৈঠা ঠেলা
আমার নদী তোমায় দেবো হে অরুণা। পাঁজর হাড়ে রক্ত ঝরে ফোঁটায় ফোঁটায়
বৃষ্টি এসে রক্ত ধোয়ায় দুঃখ গ্রাসী
বসো পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৬৪ বার দেখা | ৬০ শব্দ
দুঃখ
দুঃখ আমায় পুড়িয়ে মারে
দুঃখ আমায় জ্বালায়
বানের জলে দুঃখ এলে
সুখ পাখিটা পালায় অতল সাগর দুঃখে ভাসি
দুঃখে ভাসি নদী
অষ্ট প্রহর বইতে থাকে
দুঃখ নিরবধি দুঃখ ধরে আছাড় মারে
দুঃখ মারে লাথি
হাবুডুবুর দুখ সাগরে
দুঃখ জীবন পাতি দুঃখে করি ঘর সংসার
দুঃখ বানায় দাস
দুঃখ সময় দুঃখ দিয়ে
করছে জীবন নাশ দুঃখে কাটাই দিবস রাতি
দুঃখতে নিশ্চুপ
দুঃখ পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৭৮ বার দেখা | ৪৮ শব্দ
পিতার কাছে
সেই দিনমান প্রয়াণ হয়েছে পাতায় জমেছে ধুলো
অবুঝ কিছু স্বপ্ন নিয়েছে জলে ভেজা চোখ গুলো
পাথরের সিঁড়ি পাথর রয়েছে সিঁড়ির আড়ালে ঘাস
শুয়েছে আকাশ পাথরের কোলে আকাশে নীলের চাষ পাতার বাতাসে ছাই উড়ে গেলে লাগে আগুনের আঁচ
আগুনের শিখা তার নাভিমূলে নীল কমলের গাছ
কোথাও আকাল কোথাও খরা, খরার পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৫৮ বার দেখা | ৯৩ শব্দ
আহত ঐতিহ্যের নদী-৮
এই পৃথিবী একদিন সতেজ ছিল
অপেক্ষমাণ শিশুর মুখে অন্ন যোগাবে বলে
নিরবচ্ছিন্ন পরিশ্রম করে নিজেকে যোগ্য করে তুলেছিল
ভবিতব্যের সময়ে পর্যাপ্ত আলোর প্রয়োজন হবে ভেবে
নিজের পাঁজর ছিদ্র করে সঞ্চয় করেছিল সূর্যরশ্মি জলের অভাবে নদীগুলো মিইয়ে যাবে, ঘাসের মাঠে
হরিণ শাবকেরা পর্যাপ্ত সবুজ পাবে না এই ভাবনা
তাকে জল সঞ্চয়েও পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৬৬ বার দেখা | ১৩৪ শব্দ
যাত্রী
শেষের খেয়া ধরবো বলে
বসে আছি পাড়ে
ঘুমিয়ে গেলে খেয়ার মাঝি
ডাকবে কি আমারে ঘুমিয়ে যদি পার হয় বেলা
খেয়া ছুটে যায়
কিংবা যদি জায়গা না হয়
মাঝির ঐ খেয়ায় তখন আমায় কে তরাবে
কে দেখাবে দিশা
হাত বাড়াবে কেউ কি আছে
নামলে অমানিশা বুকের কোনে যত্ন করে
রাখবে কি কেউ মোরে
জাগিয়ে দেবে হারাই যদি
মায়া মোহের পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩৮ বার দেখা | ৫৬ শব্দ
মাটি
মাটি ছিল বন্ধু প্রাণের
মাটি ছিল মিত্র
বদলে গেলে সময় বুঝি
বদলেও যায় চিত্র বদলে সবাই ইট হয়েছি
কীটের মতো থাকি
মাটি ভুলে ইট সিমেন্টের
স্বপ্ন চোখে আঁকি এককালে যে মাটিই ছিলাম
নাইতো এখন স্মরণ
ফিরব না আর মাটির কোলে
হউক না হলে মরণ মরব কেন চিরটাকাল
থাকব সবাই বেঁচে
কে আর বলো চাইবে যেতে
মাটির ঘরে যেচে মাটির পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪০১ বার দেখা | ৫৪ শব্দ
পরিচয়...
বাতাস হয়ে ভেসে বেড়াই
লাগিয়ে গায়ে পাল
ধরবে আমায় কিনছ নাকি
মাছ শিকারির জাল আমায় ধরা এতোই সহজ
চাইলে দেবো ধরা
জলের সাথে আমার আছে
অনেক বোঝাপড়া সাঁতার আমি কম জানি না
দৌড়ে পটু বেশ
চোখ পলকে দেখতে পাবে
আমার অবশেষ হাওয়ার সাথে ভাসি ঠিকই
কিন্তু জানি মাটি
জল সেঞ্চন কম করি নি
রাখতে পরিপাটী খুঁজছো মিছে এথায় হেথায়
মরছ পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৬৪ বার দেখা | ৫৯ শব্দ
নাতে রাসুল...
প্রাণের নবী ধরায় এলেন
আজকে এমন দিনে
নূরের আলোয় উদ্ভাসিত
নিলাম তাকে চিনে নিয়ে এলেন বিশ্ববাসীর
মুক্তির পয়গাম
বলে দিলেন মখলুকাতে
মানুষেরই দাম তার আসাতে আশার আলো
দেখল মানবজাতি
শিখিয়ে দিলেন কিভাবে পার
হবে আধাররাতি কেমন করে চললে পরে
পৌঁছাবে মনজিলে
জানিয়ে দিলেন কি করলে
আল্লাহ পাবে দিলে প্রাণের নবী দেখিয়ে দিলেন
কোনটা সরল পথ
কোন পথেতে খোদার কাছে
পৌঁছাবে উম্মত প্রাণের প্রিয় পড়ুন
কবিতা | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৫১০ বার দেখা | ৯১ শব্দ
আহত ঐতিহ্যের নদী-৫
নদীর পলিতে ভেসে আসে অজস্র ছিন্ন হৃদয়
ভেসে আসা পলির জমিনে উর্বর ফসল জন্মালে
আমরা ভাবি প্রসবিতা নদী তার পাঁজরের রক্তে
লিখে দিচ্ছে অনাগত কাল, তার ব্যথা বেদনা
আমাদের ভারাক্রান্ত করলেও ক্ষণিকের শোক কাটিয়ে
আমরা উঠি, প্রস্ফুটিত কলি আমাদের ভোগের নিমিত্তে
অল্পকাল পরেই পাপড়ি মেলবে এই খুশিতে ভুলে যাই
বিগতকালে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯০ বার দেখা | ১৩৯ শব্দ
আহত ঐতিহ্যের নদী-৬
আমাদের গল্পরা একদা যদিও বৈচিত্র্যের ছিল
তবু লেজ ধরে ধরে মাথায় ঠিকই পৌঁছানো যেত
জামাকাপড়ে সরলতার ছোঁয়া দেখতে পেয়ে
পরিচিত বন্ধুরা হঠাৎ ভয়ঙ্কর দস্যুতে রূপান্তর হবে
এমন ভাবনায় আমারাও আত্মরক্ষার কলাকৌশলে
কোন কমতি দেখাতাম না, বিজ্ঞাপনের জৌলুষে
মোহগ্রস্ত মন তাড়িত হতো ঠিকই কিন্তু চকচকে
সোনা আমাদের মগজে ভিন্ন বার্তা পাঠাত খানিক পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫২ বার দেখা | ১১২ শব্দ
আহত ঐতিহ্যের নদী-৭
মাজারের জুতা পাহারাদারের খোপগুলিতে
পুণ্য লুকানো থাকে, পয়সার বিনিময়ে যারা
মাজার বাবার কাছে পুণ্য মাগে তাদের উচিৎ
পাহারাদারের পায়ে মাথা ঠেকানো, সেই জানে
কোন জুতা পৌঁছাবে মঞ্জিলে মকসুদে আর
কোন জুতার ভারে থেঁতলে যাবে মানব হৃদয় জুতার সাথে সকলের সখ্য হয় না, পাদুকা কর্মীর
নিষ্ঠাকে অবজ্ঞার চোখে না পড়ুন
অন্যান্য | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪৭ বার দেখা | ৯৪ শব্দ
কথা...
কথায় কথার পাহাড় চড়ি
কথায় পাড়ি নদী
কথার সুরে কথারা সব
গায় যে নিরবধি গানের ভাষায় প্রাণের ভাষায়
কথার হাঁটাহাটি
চরের লাগি হয় যে জড়ো
কথার পলিমাটি কথার আকাশ গভীর নীলে
কথায় থাকে ছেয়ে
সবুজ বনের হরিনগুলো
কথায় থাকে চেয়ে দূর সাগরে কথার পানি
ছাড়ে কথার ঢেউ
নোনাজলের কষ্ট কথা
বলছে তারে কেউ পাখির মত কিচিরমিচির
হয় যে কথা যত
কথার বনে পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫৩ বার দেখা | ১২৪ শব্দ
রোদ্রদিন
আমার মরণ কাউকে যেন
নিরুৎসাহিত না করে
অমিত সম্ভাবনা ফেলে
অকালে পাড়ি দেয়া ভেবে
বিলাপ করা অর্থহীন
বরং যাদের সম্ভাবনার এখনো মৃত্যু
হয় নি তাদেরে একটু পরিচর্যা দিন আমি বেঁচে থাকতে অক্ষম কলমের নিবে
ঝরিয়েছি যে সমস্ত প্রলাপ
এখনই পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৬৫ বার দেখা | ১২২ শব্দ