আহমেদ হানিফ-এর ব্লগ

ছাত্র,
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়,
হাটহাজারী, চট্টগ্রাম।

দূরত্ব
বহমান সমুদ্রের কলকল ধ্বনিতে,
পাল তোলা নৌকার বিচরণে,
ঐপাড় থেকে এপাড়ে সৌহার্দ্যের বন্ধন-
দূরত্ব ঘুচিয়েছে ভালোবাসার মিলনে। বসন্তের আগমনী গানে,
ফুলে ফুলে সয়লাব এপাড়ায়,
কোকিলের কুহুতানে কপোত-কপোতীর মননে,
দূরত্ব ঘুচিয়ে প্রেম আনে। যখন বর্ষা আসে এখানে,
কদমের শুভ্রতায়,
রিমিঝিম বরষনে-
দূরত্ব ঘুচিয়ে সতেজতা প্রকৃতিতে। শত শত উপমায় কত যে পদ্য লেখা,
কত কাগজের বুকে গল্পের পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | ৮২ বার দেখা | ১২৮ শব্দ
না, একটু ঘুমাই
মানুষ মরছে মরুক না,
কিসের এতো চিন্তা করা-
আমিতো আর মরছি না আজ,
এই দিব্যি বেঁচে থাকা। জলে ডুবছে ডুবুক না,
কেন এতো আহাজারি,
ব্যাটারা দেখ সাঁতার না জানা,
মরবেইতো মরুক না। উন্নয়নের জলস্রোতে গা ভাসিয়ে বেড়াক না,
কিসের এতো চিন্তা বলো,
শ’খানেক মরুক না-
সবাইতো আর মরছে না। তোমরা বাপু বেজায় রসহীন ,
একটু-আধটু পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | ৯৮ বার দেখা | ১৬৬ শব্দ
সীতাকুণ্ড ট্রাজেডি
সীতাকুণ্ড ট্রাজেডি
সীতাকুণ্ডের মাটির আগুনের লেলিহান শিখা নিভেনি এখনো-
এখনো শুনা যাবে বাঁচার শেষ আকুতি,
বাজান, আমার পা উড়ে গেলো!
কালিমা পড়াও,আমি আর বাঁচবো না। অন্তঃসত্ত্বা নব বধুর হাসপাতালে হাসপাতালে বিচরণ,
সাত মাসের শিশুর ডিএনএ টেস্টে শনাক্ত-
মৃত বাবার লাশ!
স্বজনদের কান্নার আহাজারি চতুর্দিকে,
কতকের খোঁজ নেই,
মৃত নাকি জীবিত জানে পড়ুন
সমকালীন | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৯৭ বার দেখা | ১৪৪ শব্দ ১টি ছবি
বিভোল নেত্র
অজস্র কথা মালা আর স্বরচিত একটি কবিতায়-
আমার চয়িত শব্দ গুলো,
নিপুণা লক্ষ্মী আত্মাটার জন্য-
যাকে শব্দের গাঁথুনিতে মানবী রূপে উন্মোচন করি। কতক মনুষ্য সৃজিত বয়ানে-
পারিপাট্য ‘ডাগর চোখ ওয়ালী’-মনোহরা,
চোখ দু’টোতেই স্বপ্ন দেখি,
জীবন-বিনিময়ে। অকারণে আজ কথাদের নিমন্ত্রণ,
অজানা গন্তব্যে বিলিন হউক স্বপ্ন সমেত,
তুমি আছো বিচক্ষণ এক কবির নয়ন জুড়ে-
আমার কণ্ঠ রুদ্ধ! প্রতিনিয়ত পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১২৮ বার দেখা | ৭৪ শব্দ
কবিতায় নজরুল
কবিতায় নজরুল
কত শত কবি মনে,
হাজারো ছন্দের মেলবন্ধন!
নজরুল বন্দনায় শতেক পদ্য-
কিংবা স্মৃতিচারণ।
আমিও বাদ যাইনি,
যদি কবিদলে কিঞ্চিৎ ঠাঁই হয়-
কতক কথার পসরা সাজাতে পারি!
তবেই,
নজরুল চয়িত হবে। দিস্তা দুই কাগজ আর কলমের অক্লান্ত খাটুনিতে-
শতেক শব্দের সমাবেশ,
আমার পাণ্ডুলিপিতে ক্ষণিক অঙ্কিত নজরুল রূপ,
১৮৯৯!
কত শত মানুষের পৃথিবীতে আগমন,
তুমি ও পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫২ বার দেখা | ৮৭ শব্দ ১টি ছবি
কবি ও কবিতা
কবি ও কবিতা
সাদা কাগজের জমিনে শব্দের চাষাবাদ,
নানা উপমা, গল্পের আয়োজনে-
কবিতা!
বিরহ, বিরস চিন্তন, অদৃশ্য প্রেমালাপ,
কপোত-কপোতীর রূপিত দেহাঙ্গ-
তুমি, আমি হতে আমরা বন্দনা! কবিতা!
শতেক দিস্তা কাগজের পাণ্ডুলিপি,
সহস্র শব্দের সমাবেশে-
হাজারটা অলিখিত গল্পের আয়োজনে-
কবিতা!
মানবিক মানুষের কথা,
নতুন ভোরের স্বপ্ন দেখা এক ঝাঁক কবির কথা- কবিতা!
হাজারটা কথার আয়োজনে আমরা-
হুম,
আমরা অদৃশ্যতার দৃশ্যায়ন পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৯ বার দেখা | ৯৮ শব্দ ১টি ছবি
মা
মনুষ্য সৃজনে তুমি চিরযৌবনা,
তোমার রক্ত মাংস খেয়েইতো মনুষ্য শিশুর আগমন,
দশ মাস দশ দিন-
এই মহাকালসম সময়ব্যাপী তোমার উদরে,
আমরা কতক জানান দিয়েছি- মা, পৃথিবী সাজিয়ে রাখো,
আমি আসছি,
আমরা আসছি।
তুমিইতো মিথ্যা বলো,
শত ব্যথার চুপ থাকো,
অনাহারে কিংবা বঞ্চনায়,
খুব মিথ্যা বলো
কত শত! সমাজের দু’কথা শুনে,
আবার বাবার বকুনি সয়ে,
তবুও চুপ থাকো,
তুমি মিথ্যা বলো।
আমি পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪১ বার দেখা | ৮১ শব্দ
আহ্বান
নতুন গল্প বলার মানুষটি নেই,
ক্ষণিক আগে অদৃশ্যতা জব্দ করেছে,
বোবা দেহে ক্ষণিক অবলোকনে,
আমিও মরার অপেক্ষায়। এই বরষায়,
কত যে গল্প বলেছি
বেঁচে থাকার, ভালোবাসার।
সে মনোমুগ্ধ শ্রবণকারী-
ঘন্টা দু’য়েক শুনে যেত কত বকবকানি! হঠাৎ,
কোনো এক অজুহাতে হাত ধরে-
প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতাম,
এক সাথে মরবো!
না, পারলাম কই?
ডাহা মিথ্যে বলেছি, সে একাইতো মরলো!
আমি না বড়ই মিথ্যাবাদী! এখন,
হাত পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬৫ বার দেখা | ৮৫ শব্দ
সুবোধ আসিস না
অন্ধকার নেমেছে আজ সভ্যতার ছোট্ট কুটিরে,
কে তুই আজো একেলা দাঁড়িয়ে আছিস?
সুবোধ নাকি?
অবাস্তব কল্পনা বিলাস নয়তো আবার!
কি জানি কি ভাবছি-
মনুষ্য নির্মিত সভ্যতায় তো মানুষের স্বার্থসাধন,
তুই কিভাবে আসবি?
না,
তুই না তোর আদলে স্বার্থান্বেষণে ব্যস্ত কেউ-
চলে যা, যা-ই তুই-
কখনো ডাকবো না, আমি লুটেরা শুধু সভ্যজনে ভয়! সুবোধ আসিস না, পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৮৪ বার দেখা | ১৫৬ শব্দ
মৃন্ময়ী
বহুদিন পরে,
ঠিক তিন বসন্তের দিন অতিবাহিত হলো-
চারিধারে কত ভিন্নতা আজ,
কথারা সুর বেঁধেছে নানা তালে।
আজ স্মৃতি রোমন্থন হলো-
বসন্ত দূতের কুহুতানে,
বাড়ি হতে কয়েক ক্রোশ দূরে-
অদৃশ্যে বিচরণের প্রয়াসে দু’কদম চলেছিলাম। তাকিয়ে থাকার লোভে পড়ে কথা জমেনি,
বিভোল নেত্রে যার প্রেম জাগে-
তার চাহনিই কবিতা হয়ে উঠে,
বিমুগ্ধ নয়নে তাকিয়ে থাকাইতো কাব্য। আজ পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬৮ বার দেখা | ৯২ শব্দ
না!চুপ থাকি
বেঁচে আছি এইতো বেশ!
কিসের এতো আহাজারি,বেদনাহত!
বিশটি বছর সবে শেষ হলো-
তবুও বুড়িয়ে বসেছি জীবন সংসারে।
এইতো সেই দিনকার কথা,
দাদা ভাই খুব জোর গলায় বললো,
মানুষ নাকি খুবই দয়ালু ও সুচিন্তক ছিলেন! বাহ!
শুনতে বেশ লাগলো!
আরো কত কথা অবাস্তব লাগবে-
তাই, এই আসরে না বলায় শ্রেয়।
মাথাটা একটু বিশ্রামে দিলাম,
না জানি কি পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৬৯ বার দেখা | ১০৪ শব্দ
তুমি এসো
শীতের প্রকোপের অবসানের পরে,
চিরযৌবনা বসন্ত এসে গেলো,
বৃক্ষরাজিতে আজ পুষ্পের মেলা বসেছে ,
আঁচলে মুখ লুকিয়ে।
তুমিও এসো
দূর্বাদলের বুক মাড়িয়ে এসো-
প্রতি ভোরে তোমার চুলে গুজে দিবো ফুল,
মিছে বাহানায় হাত ধরার গল্প সাজাবো।
তোমার স্পর্শ ফেলে কবি সত্তা জাগ্রত হবে,
কতক কথা কিংবা বুনো শব্দ চয়নে,
তোমার প্রতি প্রেম নিবেদনে,
আমি প্রেমিক পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৯৯ বার দেখা | ১০৬ শব্দ
অচেনা
চেনা শহরটা বড্ড অচেনা আজ,
পরিচিত মুখগুলো ঢেকেছে নিজেরে,
একুশটা বসন্তের বিদায় দেখেছি-
নতুনত্ব আনেনি জীবনে।
প্রত্যহ ভাবনায় ডুবি-
প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের বিচার বসাবে শুনেছি,
ইট পাথরের দালানে বন্দিজীবন,
অচেনা মানুষের সাথে সমঝোতায় বেঁচে থাকা।
দুই কদম সামনে চলতে শত বাঁধা,
সীমান্ত প্রাচীর বেঁধেছে সভ্যজনরা,
চেনা শহরটা তাই অচেনা আজ,
আর কত এমন ভাবে চলা।
ঋতুরাজের আগমনের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২২০ বার দেখা | ৭৪ শব্দ
শেষ সময়
কাফনের দোকানে সকাল হতেই গমন,
সাড়ে তিন হাত দেহটার কাফনের বন্দোবস্তে,
গোর খোদকের আগমন বাঁশঝাড়ের ঠিক পিছনে,
যতনে খনন করিতে হবে গোর,
মোল্লা সাহেব ব্যস্ত সব কিছুর তদারকিতে।
দলে দলে ছুটিছে মানুষ,
বোবা দেহটা স্থির অনাদরে চাটাইয়ের উপরে,
পরিধেয় বস্ত্র কিংবা অলঙ্কার নেই গাত্রে,
ঠাণ্ডা হয়ে গেছে দেহটা।
মসজিদের মিনার থেকে অনবরত ভেসে পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৩১ বার দেখা | ২২৮ শব্দ
হুমা ও কুয়াশার মেয়ে
রিক্ততায় ছেয়ে গেছে চারপাশ,
মননে কত বেদনার স্মৃতিপট-
কতই না অজানা গল্পের করুণ সমাপ্তি,
শীতের প্রকোপে স্তব্ধ হয়ে আছে মনুষ্য আবরণটি।
শূন্যতায় ছেয়ে গেছে আমায়,
তুমি নেই বলে-
হুমা তোমাকেই বলছি-
তুমিই রিক্ততার কারণ হয়ে আছো।
আজি এই ক্ষণে বেদনায় জর্জরিত,
কথাদের দ্রোহে আমি বড়ই অসহায়-
না জানি কি বলতে প্রতিবাদী আজ কথারা!
কুয়াশা মেয়েরও পড়ুন
কবিতা | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫২ বার দেখা | ১৩৪ শব্দ