দাউদের কবিতা ট্যাগের সব লেখা

ডুব সাঁতার ও কাতর বেলা
ডুব সাঁতার ও কাতর বেলা
তখনো আমি সাঁতার শিখিনী। তাই বলে ভয় পেতাম না জলে। বুকে কলসি চেপে পা ছুড়ে ছুড়ে ঠিকই পার হতাম পুকুরের এপার। আমারো ইচ্ছে হতো সবার মত মরিচ মরিচ খেলি, এইটা কি মরিচ এক্কই ডুবে ধরিস
আমার ঠিকই ইচ্ছে হতো পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | ৬২ বার দেখা | ১১২ শব্দ ১টি ছবি
শাশ্বত সুন্দরের মৃত্যু
কত কিছুই জানা হয় না, জানা যায় না।
কেন প্রতিদিনের সেই একি জানালায় ঝুলে থাকে
ভাঁজ করা চিবুক।
কেন, এক জন যুবক
অন্ধকার হাতড়ে হাতড়ে তুলে আনে নিত্যনতুন অসুখ!
কেন বিদীর্ণ ভাস্কর্যের চেয়ে ঢের ম্লান হয় মানুষের মুখ ।
কতটা নৃশংসতায় ক্ষান্ত হয় নপুংসক হায়েনা
জানা যায় না- তুষের অভ্যন্তরে কতটা পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | ৯১ বার দেখা | ৬১ শব্দ
অযৌক্তিক
অযৌক্তিক
অল্পের জন্য বেঁচে যাই,
মরতেও পারতাম। যদিও মৃত্যুতে কোন মুক্তি নাই,
অযৌক্তিক
গল্পের ভেতরে ঢুকে পড়ি,
অন্যের হাত ধরে হই দীঘল পথের সহচরী!
সাথে নই, সাথী নই
কদমে কদমে এগোই তব তীর্থের প্রহরী।
ঘুমে- নির্ঘুমে
সওদা করি মন, জলের দামে!
নির্মম বালিয়াড়ির ঘূর্ণি মর্মে উড়ি বৃত্তের ভেতর
ঘুরি চক্র বৃদ্ধ পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | ৭৮ বার দেখা | ৭৮ শব্দ ১টি ছবি
খুঁজে দেখোনি
খুঁজে দেখোনি
খুঁজে দেখোনি
অথচ
আমি ছিলাম তোমারই কাজলা দীঘির জলে
যেখানে নিত্য আগুন জ্বেলে – নিজেকে পরখ করে দেখতাম-
দেখতাম জলের অতলে ধিকি ধিকি আগুন
কিছুটা ক্ষুধা, কিছুটা উদাম নি:শেষে
জীবন আমাকে বরণ করলোনা- মানুষের খোলসে পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | ৬৫ বার দেখা | ৩০ শব্দ ১টি ছবি
অশ্রুত ধারা
অশ্রুত ধারা
পানি মানে ঘাম
পানি মানে রক্ত! উদাম বুকে
অশ্রুত ধারা
পানি মানে জলাবদ্ধ অসহায় দু:খরা
কিছু পানি গড়িয়ে পড়ার
কিছু তৃষ্ণা মেটাবার
কিছু পানি অপেক্ষায় থাকে
জন্ম জন্মান্তর
বাষ্প হয়ে উড়ার জন্য !
এরাই ফিরে আসে
আমাদের দীর্ঘশ্বাসে পুনরায় অশ্রুতে মিশে অশ্রুত ধারা // দাউদল ইসলাম পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | ৬৪ বার দেখা | ৩৬ শব্দ ১টি ছবি
আমি চাইছিলাম কবিতা আসুক আজ
আমি চাইছিলাম কবিতা আসুক আজ
আমি চাইছিলাম কবিতা আসুক আজ
ইলিশ গুটি বৃষ্টির মত নির্ঝর নরম পায়ে
চাইছিলাম দুর্মর আবেগে মিসমিস বুকে
শব্দের মিষ্টি ধারা নামুক পরম মধুর লয়ে। আমি চাইছিলাম অবনীতা ভিজুক আজ
শীতল জলের স্নিগ্ধা হয়ে কম্পন ধরুক গায়ে
নরম পঙ্কজলের প্রলেপ মেখে জাগাতাম উষ্ণতা
মমতার শঙ্খ চুম্বনে ভরে পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৫৭ বার দেখা | ৮৭ শব্দ ১টি ছবি
বিমোহ
বিমোহ
কোত্থেকে আসে পিপাসা
কোন আগুনে জাগে এত্তো তৃষা,
কিসের কারণে বিমনা চিত্ত
কোন দহনে জাগে উদ্রেক- বিবমিষা! কে তুমি বাজাও বাঁশি
শাল পিয়ালের বনে
কার জন্য সাজাও শশী
চন্দ্র মল্লিকার উদ্যানে পাখীর ডাকে
কেন ধুকপুক উঠে বুকে?
কেন জ্যোৎস্না হাসে
যখন বাতাসে ফিসফিসনি শব্দ ভাসে; লুব্ধ দৃষ্টিতে এতো কি ধার
ফুল্কির মত পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১১৩ বার দেখা | ৫৭ শব্দ ১টি ছবি
মঞ্জিলে তুমি ছিলে
মঞ্জিলে তুমি ছিলে
আমাকে আটকাতে পারেনি
আটকাতে পারেনি ঘিরে আসা ঝড়ো অন্ধকার
হাওয়ার উন্মাতাল,কিংবা বৃষ্টির তীক্ষ্ণ ধার!
যখন দিগ্বিদিক ছুটেছিলো গৃহপালিত পশুর পাল
যখন ঘরে ফেরার চটপট কৃষাণীর দু চোখ খুঁজে পায়নি তাল
আমি তখন পা বাড়ালাম
মাথায় তুলে নিলাম রাজ্যের মাতাল ভালোবাসা
ছুটে চললাম
ছুটে চললাম লক্ষ্যে-পাণে
কারণ; মঞ্জিলে তুমি ছিলে! পড়ুন
কবিতা | | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪২ বার দেখা | ১০৮ শব্দ ১টি ছবি
অযথাই বাড়াইছি আবেগের আনাগোনা
অযথাই বাড়াইছি আবেগের আনাগোনা
যদি আসমান ভাইঙ্গা পইড়তো
যদি জমিন ফাইট্টা চৌচির হইতো
তখন তুমি বুঝতা দহন কাহারে কয়!
এখনোতো সোনার চামচ নামেনি মুখ থেইকে
এখনোতো মুছেনি পীযুষ দুধের ঘেরান
এখনো দুলছ দোলনায় দিনমান তুমি কি কইরে
বুঝবা আমাগো লাহান হত দরিদ্রের কষ্ট-নির্বাণ!
ক্যামনে বুঝবা?
বিরান মরু চরের মতন-ক্যান ধু ধু করে পড়ুন
কবিতা | | ৭ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪০ বার দেখা | ১০১ শব্দ ১টি ছবি
রূপোর নাকফুল
রূপোর নাকফুল
ঝিলিক মারা রূপোর নাক ফুলের তলে
পিদিম জ্বালা সোনার শিখা দোলে
দুষ্টমতি বাতাস ঘোমটার ওড়না ফেলে-
ছুঁইয়ে দেয় লাজুক চিবুক, বগলে
বর্ষার ধারা- গ্রীবার ঢালে জোনাক জ্বলে;
এই তো লগন- মহেন্দ্র ক্ষণ
এসো প্রেম করি নিবেদন
পাঁজরে পাঁজর রেখে পাঠ হোক অজর কবিতা
পুড়ুক কস্তূরী আম্বর, বাড়ুক রাতের পড়ুন
কবিতা | | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৫৮ বার দেখা | ৮৪ শব্দ ১টি ছবি
মানুষ অন্ধ হয়
মানুষ অন্ধ হয়
মানুষ অন্ধ হয়
হতেই হয়- প্রেমান্ধ, ধর্মান্ধ, ধনান্ধ, ক্ষমতা কিংবা শোষোণান্ধ
কেউ কেউ আবেগান্ধ, কেউ কেউ রাগান্ধ
আবার কেউ কেউ ডুবে থাকে শরীর সম্বন্ধীয় মোহান্ধতায়
অন্ধত্ব মানুষকে নিয়ে আসে চারিত্রিক এককে-
অন্ধত্বে আত্মস্থ হয়ে উঠা মানুষ গুলো একে একে ধারণ করে
বিশেষ বিশেষণ,
অন্ধত্ব জুড়ে থাকে পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৭৯ বার দেখা | ১৭৬ শব্দ ১টি ছবি
অতন্দ্র বুভুক্ষু
অতন্দ্র বুভুক্ষু
যদি ঘুম ভেঙ্গে যায় তোমার
আমি সেই ভয়ে চিৎকার দিইনি আত্মার দহন কালে
ডাইনীদের মরণ ফুঁৎকারে অস্তিত্বের মর্মতলে করাল হাহাকার
আমি হাত বাড়াইনি জল-স্পর্শে
যদি শান্ত শিথিলতায় দহনের বীভৎস উষ্ণতার ছোঁয়া লেগে যায়
যদি ঘুম ভেঙ্গে যায় নিষ্পাপ চন্দ্রমুখীর ঘুমন্ত চোখের পাতায়
ছোঁয়াইনি আমার অনন্ত কালের রুক্ষ পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩০৮ বার দেখা | ১১১ শব্দ ১টি ছবি
একটি সংবাদ
একটি সংবাদ
না, কোন বিশেষ বুলেটিন নয়
কিংবা নয় কোন ব্রেকিং নিউজ;
এ এক মামুলি সংবাদ
স্রেফ সংবাদ!
কেউ শুনবেকেউ শুনবে না
কেউবা, শুনে না শুনে থেকে যাবে;
কতক্ষণ?
ত্রিশ সেকেন্ড, অথবা তারো কম সময়ের সংবাদ
“আর নাই”
তারপর ক্ষণিকের ধর্ম ফলিয়ে কেউ কেউ আয়াত আওড়াবে
কেউ বা আহ্‌
কারো মনে ছোঁয়া লাগবে পড়ুন
কবিতা | | ২ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৫০ বার দেখা | ৪০৬ শব্দ ১টি ছবি
সখি ভালোবাসা কারে কয়!
সখি ভালোবাসা কারে কয়!
ঘুম না আসা প্রহরে
রাত্তির নিবিড়ে কান পেতে দেখলাম বিষাদের চাপা নিঃশ্বাস
বৃক্ষের শিকড়ে, শাখা প্রশাখায় হাত বুলিয়ে দেখলাম-
অনুক্ত বেদনায় কতো রুক্ষ্ণ তার বিদীর্ণ চাতাল!
আমি খুঁজলাম কৃষ্ণাকাশের নির্বাণ ধ্রুব তারা
ভোরের আবছা আলো মাথায় তুলে ছুটলাম নীল সাগরের তীরে
যেখান টায় হয় সূর্যোদয়;
শিশিরে ভেজা পড়ুন
কবিতা | | ৩ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ১৪৬ বার দেখা | ১৭৫ শব্দ ১টি ছবি
আমার চাই সুশ্রী পৃথিবী
আদর্শচ্যুত রাজনীতির পার্থিব মোহ আমাকে কখনো বাঁধতে পারেনি।
বাঁধতে পারেনি ক্ষমতায়ন কিংবা বাহবার আবহ, সমীহ সংস্কৃতির
অন্ধত্ব আমাকে আটকাতে পারেনি বলেই আমি দেখতে পাই-
দেখতে পাই তা, যা তোমরা দেখতে অক্ষম
শুনতে পাই তা। যা তোমারা শুনতে অক্ষম
বলতে পারি তা, যা তোমারা বলতে গেলে রুদ্ধ হয়ে আসবে কণ্ঠ!
আমি পড়ুন
কবিতা | | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২১৯ বার দেখা | ১৫৪ শব্দ