এম. হুমায়ূন কবির-এর ব্লগ

কবিতা প্রেমি। কবিতা পড়তে এবং লিখতে ভালোলাগে।
পড়াশোনা: এস এস সি-নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয়,
এইচ এস সি & স্নাতক – বড়াই গ্রাম ডিগ্রী কলেজ,
নাটোর।
স্নাতকোত্তর-এডওয়ার্ড গভঃ কলেজ, পাবনা।

মায়ের কাছে চিঠি
মাগো,
শত কোটি পূজা তোমার চরণকমলে
জন্ম নিয়েছি তোমার মায়াময় কোলে।
কত যত্নে স্নেহে বুকে দিয়েছো মা ঠাঁই
ধূলির ধরায় কোথাও যে তা নাই।
ক্লোনাজিপাম খেয়েও যখন নিশীথ রাতে।
ঘুম আসেনা শুকনো আঁখি পাতে
চেয়ে রই দূর আকাশ পানে
স্মৃতির বেদনায় তোমার মুখখানি ভাসে।
আশার ছলনে ভুলে রইলাম দূরে
কি পেয়েছি পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ৮৯ বার দেখা | ১২১ শব্দ
শ্রাবণ রাত
শ্রাবণ রাতে বারিধারা ঝরে বাহিরে
ঘুম নেই জলে ছলছল আঁখি পাতে
নিশীথ স্বপনে হেরিলাম তব মুখ খানি
জাগরণে খুঁজে কোথাও পাইনি
আঁচলের গাঁথা মালা শুকালো তুমি হীন
হিয়া মাঝে সেই প্রেম হয়নি তো বিলীন।
স্মৃতির ছবি হৃদয়ের ভাঙ্গা আয়নায়
কাব্যের অন্তরা কবির কল্পনায়
বিরহের বৃষ্টি ঝরে পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | ১৫৪ বার দেখা | ৭০ শব্দ
দহন
ধুপের আগুন যায় না দেখা থাকে শুধু ধোঁয়া
  গন্ধ নেই অন্তর পোড়ায় থাকে শুধু জ্বালা
    ধুপের আগুন লাগিয়ে দিলে এই মনে
সেই আগুন জ্বলছে নিশিদিন এই প্রাণে।
     বনে বনে দাবানল নাচে তালে তালে
     পুড়ে কত স্বপ্ন সবুজের ডালে ডালে
  আকাশের পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ২০২ বার দেখা | ১২২ শব্দ
হৃদয়ের কথা
কত ব্যথা কত কথা বুকে এসে থেমে যায়
মুখ ফুটে বলা যায় না।
বলবো তোমায় নির্জন গোধূলির পরে
মুখোমুখি বসে কোনো এক কফি হাউজে।
শহর থেকে একটু দূরে
নরম ঘাসের উপর বসে মেঠোপথের ধারে
শঙ্খচিল উড়ে যাবে নীড়ে
নিস্তব্ধ সন্ধ্যা ঘিরে দিয়ে অস্ত যাবে সূর্য পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | ১৮৯ বার দেখা | ৮৫ শব্দ
মনোবাঞ্ছা
বসন্তদূত গান গায় কদম্ব ডালে
দ্বিভুজে জড়িয়ে বাঁধা প্রেমডোরে
দু’নয়নে এঁকে যায় স্বপ্নের পারাবার
ইন্দুপ্রভা ছুঁয়ে যায় নিলয়ের এপার ওপার।
আমি কতটা বোকা?
চারিদিকে স্বার্থপর বুদ্ধিমানদের ভীড়
স্বপ্ন কুড়িয়ে এনেছিলাম
গাঁথব বলে ভালোবাসার নীড়।
ফণাধর লুকিয়ে থাকে পুষ্প বনে
হিতৈষী নক্ষত্রগুলো ছেড়ে যায় একে একে
মেঘের কান্নার মত পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৭৪ বার দেখা | ৫৫ শব্দ
প্রতারিণী
মুখে ছিল খলিশা ফুলের মধু
চোখে ছিল মায়াবী যাদু
অন্তর ভরা ছিল হেমলক
জীবনটা করে গেল নরক
শরীরের ঘ্রাণ গেছে নিয়ে
হৃদয়ের গহীনে ছুঁয়ে দিয়ে
ব্যাকুল করে মিছে ভাবনা
ছিল না প্রেম ছিল কামনা।
মন নিয়ে খেলেছে নিঠুর খেলা
এখন অবেলায় কেন অবহেলা
গোধূলির পরে ডুবে যায় বেলা পড়ুন
কবিতা | ৫ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২৫ বার দেখা | ৬৪ শব্দ
কমল কাঁটা
     তুমি এলে মোর কমল বনে
   কমল নিলে কাঁটা গুলো রেখে
      কন্টকে মোর হৃদয় গাঙে
              রক্ত কমল ফুটে।
কমল যদি নিয়ে গেলে কাঁটা কেন ফেলে
স্বপ্ন গুলো হারিয়ে গেছে ভালোবাসা টুটে।
বউকথা কও আর ডাকে না বকুল শাখে
     মন পুড়েছে তোমার আগুন আঁচে
    পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪৬০ বার দেখা | ১২৬ শব্দ
বিশ্বাসে ভালোবাসা
ভালোবাসা ভালোলাগা এক সাথে গাঁথা
বিশ্বাসে টিকে থাকে ভালোবাসার বাসা
বিশ্বাস ভেঙ্গে গেলে ভালোবাসা থাকে না
থাকে শুধু মেনে নেয়া জৈবিক কামনা
যারে ভালোবাসি তারে ভালো লাগে না
মিছে মায়ায় সন্ন্যাসীও হতে পারি না।
যত পূজা পূজো তারে তার মন ভরে না
পূজা পেয়ে অকৃতজ্ঞ পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৬০ বার দেখা | ৮৪ শব্দ
প্রিয় জন্মভূমি
কূল ভেঙ্গে যমুনায় জাগে চর
কাশ ফুলে শুভ্র ঢেউয়ের ঝড়
নক্ষত্রের আলো জ্বলে নিশিতে
জুঁই চামেলি ভিজে শিশিরে।
নদীর স্রোত সাগরে তলায়
জীবনের ক্ষণ মহাকালে হারায়
গগনচুম্বী দালান ধ্বসে যায়
উঠে রবি নতুন সভ্যতায়।
তোমার অশ্বত্থের পাতার বাতাস
জুড়িয়ে দেয় ক্লান্ত পথিকের পিয়াস
দিয়েছো কত স্নেহ কত পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২৫ বার দেখা | ৮৮ শব্দ
অভীক বগা
সুখে-দুঃখে মায়া ভাগে
ছিল বগা নির্বিবাদের নীড়ে
অমূল্য নিধি লাভের সাধে
ধরা পড়ে শিকারির ফাঁদে
উড়ো ঝড়ে ভেঙে যায় বাসা
নোঙ্গর ছিঁড়ে তরণীর ভাসা
সাথী হারা বগীর শূন্যগৃহ
হারিয়ে গেছে বাঁচার মোহ
অভিশপ্ত এই বেঁচে থাকা
হয় না কেন ধরিত্রী দ্বিধা
এক পাপের সাজা দুজন
ব্যথার অনলে পুড়ে সুজন
চতুর পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৩৪ বার দেখা | ৫১ শব্দ
ফিরে যাও
প্রেমের অনলে পোড়া দগদগে ক্ষত
     জ্বলন্ত হৃদয়ে শূন্য হাহাকার
  তুমি এলে এক পশরা বৃষ্টি নিয়ে
আমার কি আছে তোমাকে দেবার?
  খাঁচা ভেঙ্গে পাখি গিয়েছে উড়ে
ভাঙ্গা খাঁচায় থাকবে কেমন করে
    চারিদিকে শুধু ধুধু মরীচিকা
    আলো নয় আলেয়ার খেলা
  প্রেমাহত পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ২৪২ বার দেখা | ৯১ শব্দ
চিরচেনা
চিরচেনা শহরের কোলাহলে কত লোকের ভীড়ে
শুধু একটি মুখ বারবার চোখে ভাসে
মনে হয় ছুটে চলে যাই অশরীরী হয়ে
দূর দিগন্তে  স্বপ্নের সীমানা ছাড়িয়ে 
আলতো পরশে তোমার চিবুক ছুঁয়ে
আল্পনা এঁকে দেই কপল জুড়ে।
পারিনা কারন আমি তো নই অশরীরী
আমি মানুষ রক্ত মাংসের শরীরী
তুমিও পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩৮৭ বার দেখা | ১৪৬ শব্দ
ক্ষনিকের প্রশান্তি
ক্ষনিকের প্রশান্তি
(বাংলা সনেট) পৃথিবীর পথেই হেঁটে ক্লান্ত পথিক
কোথাও খুঁজে পায়না ঠিকানার দিক
দিনের পর রাত ছুটে অসার প্রাণ
শান্তির বারতা নিয়ে এলো না অঘ্রাণ।
দূর দিগন্তে আকাশ মিশে গেছে নীলে
হতাশার কালোমেঘ অন্তরের তলে
ক্ষনিকের তরে এসো গো নদীর তটে
স্নিগ্ধ সমীরণে আঁকাবাকা বয়ে চলে। পড়ুন
কবিতা | ৪ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪১৮ বার দেখা | ৮০ শব্দ
আত্মগ্লানি
আকাশের সব নীল এনে
রাখিনু যার চোখে
বাতাসের যত সুর সেধে
গীতিকা রচিনু যার তরে।
ছলনায় ভুলিয়ে মোরে
সে কেন প্রতারনা হানে।
প্রেম অনল জ্বলে বুকে
হৃদয় পোড়া যায় না দেখা
অশ্রু ছল ছল আখিনীড়
মলিন মুখে কালো ছায়া।
ঘৃনা করি নিজেকে প্রচন্ড
হৃদয়টাকে উপড়ে ফেলি
হিংস্র নখের থাবায়
তবু যদি অনল নিভে যায়। পড়ুন
কবিতা | ৮ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৩২২ বার দেখা | ৪৩ শব্দ
তোমার প্রতীক্ষায়
তোমার যাবার বেলায় চেয়ে দেখনি
এলোমেলো কলাপাতা গুলি
বাতাসের ভরে না না বলে কেপেছিল
শিমের আড়ালে দোয়েলটি কেঁদেছিল।
পৌষের আকাশে জমেছিল কালমেঘ
ঝরেছিল অশ্রুবারি ক’ফোটা
গ্রামের ছড়ানো ছিটানো বাড়িগুলোতে
নেমেছিল শুনশান নীরবতা
থমকে গেল উত্তরের হিমেল হাওয়া
কেউ মেনে নিতে পারে নি এ যাওয়া
মেঠোপথের দুর্বা পাপোষের শিশিরেরা
তোমার পড়ুন
কবিতা | ৬ টি মন্তব্য | মন্তব্য বন্ধ রাখা আছে | ৪০৬ বার দেখা | ১২৮ শব্দ